মিয়ানমারে বিক্ষোভকারী সেই নারী মারা গেছেন


প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে চলমাল বিক্ষোভে মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত ২০ বছর বয়সী তরুণী টানা ১০ দিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেলেন। দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থানবিরোধী সাম্প্রতিক বিক্ষোভে এই প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটলো। গত ৯ ফেব্রুয়ারি রাজধানী নেপিদোতে বিক্ষোভকালে পুলিশের গুলিতে আহত হন মিয়া থয়ে থয়ে থাইং নামের ওই নারী। ওই দিন বিক্ষোভকারীদের দমন করতে পুলিশ জলকামান, রাবার বুলেট ও গুলি চালাচ্ছিল।

গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নেপিদোর একটি হাসপাতালে গত ক’দিন ধরেই চিকিৎসাধীন ছিলেন ওই নারী। শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। বিক্ষোভকারী মিয়া থয়ে থয়ে থাইংয়ের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান কমিটির এক সদস্য জানিয়েছেন, শেষকৃত্যের ব্যবস্থা হচ্ছে। শিগগিরই বিস্তারিত জানানো হবে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি ভোরে সেনা অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারে রাষ্ট্রক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ নেয় দেশটির সামরিক বাহিনী। আটক করা হয় গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চি’সহ মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট ও শাসক দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসির (এনএলডি) শীর্ষ কয়েকজন নেতাকে। দেশটিতে এক বছরের জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। এ নিয়ে বিশ্বজুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া ও নিন্দার ঝড় বইছে। যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমারের সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করেছে।

গেল নভেম্বরে দেশটিতে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ এনে অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে ক্ষমতা দখলে নেয় সেনাবাহিনী। সুষ্ঠু ভোটের মধ্য দিয়ে জনগণের নির্বাচিত সরকারের হাতে ক্ষমতা যথারীতি হস্তান্তর করারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সেনাপ্রধান মিং অং হ্লাইং। তবে গোটা দেশে জান্তা সরকার বিরোধী গণবিক্ষোভ চলমান রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপের এক সপ্তাহের মধ্যেই মিয়ানমারের জান্তা সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাজ্য ও কানাডা।

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ