গলাচিপায় আইনজীবীকে গুরুত্বর জখম: ইয়াবা ডিলার লুপা বেগম গ্রেপ্তার

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৪৪ পিএম, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

গলাচিপা (পটুয়াখাী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর গলাচিপায় এডভোকেট মনিরুল ইসলাম কে গুরুত্বর আহত করায় ইয়াবা ডিলার লুপা বেগম কে গ্রেপ্তার করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ। গলাচিপা থানার এস.আই জাকির হোসেন জানান, গত মঙ্গলবার আইনজীবী মনিরুল ইসলাম কে খুনের উদ্দেশ্যে গুরুত্বর জখম করায় গলাচিপা থানায় একটি মামলা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে লুপা বেগম-কে বুধবার রাতে হরিদেবপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার লুপা বেগম কে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মামলায় উল্লেখ্য, লুপা বেগম একজন দস্যু প্রকৃতির লোক এবং ইয়াবা ডিলার নামে বিভিন্ন পেপার কাটিং আছে এর নামে। পুলিশের ছেলে-মেয়ের পরিচয় দিয়ে সমাজে অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে এই লুপা বেগম। একাধিক মানুষ-কে দিনের পর দিন জিম্মি করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। এ বিষয়ে মনিরুল ইসলামের মামাতো ভাই তাইবুল ইসলাম কবির বাদী হয়ে দু-জনকে আসামী করে গলাচিপা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ১২। উল্লেখ্য আইনজীবী মনিরুল ইসলাম-কে গলাচিপা পল্লী বিদ্যু অফিসের সামনে রাস্তার উপরে অতর্কিতভাবে খুনের উদ্দেশ্যে গুরুত্বর জখম করে। মনিরুল ইসলামের ডাক-চিৎকারে এলাকাবাসী এসে পড়লে মারধরকারীরা পালিয়ে যায়।

পরে এলাবাসী উদ্ধার করে মনিরুল ইসলামকে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। কর্তব্যরত ডাঃ মস্তফা শিকদার জানান, মনিরুল ইসলামের মাথা, হাতের আঙ্গুল ও বাম পাশের বুকের কন্ঠে একাধিক সেলাই লেগেছে। রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। এ বিষয়ে গলাচিপা সিনিয়র আইনজীবী শামীম মিয়া জানান, লুপা বেগম আইনজীবীকে গুরুত্বর জখম করায় তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

 

আপনার মতামত লিখুন :