এবার বাড়ছে রসুন আদার দাম: প্রতিকেজি ২০ থেকে ৩০ টাকা বেশিতে বিক্রি হচ্ছে

  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:৪০ এএম, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

পেঁয়াজের দর স্থিতিশীল হওয়ার আগেই বাড়ছে রসুনের দাম। অজুহাত করোনাভাইরাস। রসুনের সাথে বেড়েছে আদার দামও। এর পাশাপাশি গুঁড়ো দুধ, চাল, ডাল, চিনি, ভোজ্য তেলসহ প্রায় সব নিত্যপণ্যের দাম বাড়তি। শীত বিদায় নিতে চলেছে তবে এখনও শীতের সবজির দাম স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি। মুরগি এবং ডিমের দাম স্থিতিশীল রয়েছে। গতকাল শুক্রবার চট্টগ্রামের বাজারে এমন চিত্র দেখা গেছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, গত কয়েক দিন ধরে বাড়তি রসুন ও আদার দাম। মাঝে পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমলেও আবার তা বেড়ে গেছে। করোনাভাইরাসের কারণে চীন থেকে রসুন ও আদা আসা কমেছে। তা ছাড়া দেশি রসুনের মৌসুমও শেষ। নতুন দেশি রসুন এবং আমদানি করা রসুনের সরবরাহ কম থাকায় এ পণ্য দুটির দাম বাড়ছে। খুচরা বাজারে রসুন ১৯৫-২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চীনা আদার দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ টাকা। প্রতিকেজি আদা ১৫০ থেকে ১৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। আবার বাজারভেদে দামেরও তারতম্য আছে। বাজারে দেশি আদা আসা শুরু হয়েছে। দেশি পেঁয়াজ ১২০ টাকা, ভারতের নাসিক পেঁয়াজ ১২৫ টাকা, পাকিস্তানের পেঁয়াজ ১১০ টাকা, মিয়ানমারের পেঁয়াজ ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। খুচরা বাজারে সয়াবিন তেল প্রতি লিটার বিক্রি হচ্ছে ১০৫ টাকা, প্রতি কেজি চিনি ৬৫ থেকে ৭০ টাকা।

বাজারে প্রতিকেজি মুলা ২৫-৩০ টাকা, ফুলকপি ৩০-৩৫ টাকা, বাঁধাকপি ২০-২৫ টাকা, লাউ প্রতিকেজি ২৫-৩০ টাকা, বেগুন মানভেদে ৪০-৬০ টাকা, কাঁচা মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা, আলু ২৫-৩০ টাকা এবং দেশি আলু প্রতিকেজি ৪৫-৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। শিম ৩০-৪০ টাকা, শিমের বিচি ৮০-১০০ টাকা, টমেটো ৩০-৪০ টাকা, শালগম ৩০-৩৫ টাকা, শসা ২৫-৩০ টাকা, গাজর ২৫-৩৫ টাকা, তিতা করলা ৫০-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কাঁচা মরিচ প্রতিকেজি ৪০-৫০ টাকা, পেঁয়াজ পাতা ৩০-৪০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। গোশতের বাজারে ব্রয়লার মুরগি প্রতি কেজি ১১৫-১২০ টাকা, সোনালিকা ২২০-২৩০ টাকা ও দেশি মুরগি ৩৮০ থেকে ৪০০ টাকা, গরুর গোশত হাড়সহ ৬০০-৬৫০ টাকা, হাড়ছাড়া ৭০০টাকা, খাসির গোশত ৭৫০-৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
বাজারে সামুদ্রিক মাছের পাশাপাশি পুকুর, খাল, নদী ও হাওরের মাছও আছে। প্রতিকেজি রুই ২০০-২২০ টাকা, কোরাল ৪৫০-৫০০ টাকা, পাবদা ৫৫০-৬০০ টাকা, চিংড়ি আকারভেদে ৪০০-৬০০ টাকা, পোয়া মাছ ২৮০-৩৫০ টাকা, রূপচাঁদা ৭০০-৮০০ টাকা, লইট্টা মাছ ১২০-১৪০টাকা, ইলিশ আকারভেদে ৫০০-১২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কৈ মাছ প্রতিকেজি ৫০০-৬০০ টাকা, শিং ৫৫০-৬০০ টাকা, তেলাপিয়া ১২০-২২০ টাকা, টেংরা ৩৫০-৪০০ টাকা, বাটা মাছ ৩০০-৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :