স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন দেশের হিজড়ারা

Spread the love

বাংলাদেশে হিজড়াদের প্রতি মানুষের দৃষ্টিভঙ্গিতে পরিবর্তন আসছে৷ এর পাশাপাশি তাঁরাও চাইছেন স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে৷ কোনো ভেদ নয়, সবাই মানুষ – এটাই পরিবর্তনের মূল মন্ত্র৷

বাংলাদেশে হিজড়া জনগোষ্ঠী

বাংলাদেশে সর্বশেষ সরকারি হিসেবে মোট হিজড়া ১২ হাজারের কিছু বেশি৷ কিন্তু বাস্তবে এই সংখ্যা আরো বেশি৷ তাঁরা প্রধানত ঢাকা শহরেই বসবাস করেন৷ তবে ঢাকার বাইরে সাভারসহ বিভিন্ন এলাকায় তাঁদের বাস রয়েছে৷

দলবদ্ধ হয়ে থাকেন

হিজড়ারা সামাজিক কারণে পরিবার বিচ্ছিন্ন হয়ে দলবদ্ধ হয়ে বসবাস করেন৷ তাঁদের কাউকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়েছে৷ আবার কেউ সামাজিক কারণে নিজেই বাড়ি থেকে বের হয়ে গেছেন৷

তেমন কোনো পেশা নেই

হিজড়ারা এখনো প্রধানত ভিক্ষাবৃত্তি এবং মানুষের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে জীবিকা নির্বাহ করেন৷ অনেকেরই কোনো পেশা নেই৷ শুধু তাই নয়, তাঁদের কাজের সুযোগও খুব কম৷ সমাজ তাঁদের স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ না করাতেই হয়ত এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে৷

দৃষ্টিভঙ্গি বদলাচ্ছে

তবে পরিস্থিতি বদলাচ্ছে৷ বদলাচ্ছে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি৷ সাধারণ মানুষ এখন তাঁদের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সমর্থন দিচ্ছে৷ দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনে কাজ করছে৷ কাজ করছে সরকার এবং নানা বেসরকারি সংগঠনও৷

স্বতন্ত্র লিঙ্গের স্বীকৃতি

২০১৩ সালের ১১ নভেম্বর হিজড়াদের স্বতন্ত্র লিঙ্গ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় সরকার৷ তাঁদের ভোটাধিকার দেয়া হয়৷ চাকরিতে সমান সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হয়৷ স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনে দু’জন হিজড়া প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করেছেন৷

সরকার এগিয়ে আসছে

হিজড়াদের জন্য এখন সমাজসেবা অধিদপ্তর নানা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে৷ তাঁদের জন্য শিক্ষা, কর্মসংস্থান, প্রশিক্ষণসহ নানা উদ্যোগ রয়েছে৷ তবে তা পর্যাপ্ত নয়৷

বেসরকারি উদ্যোগও আছে

বেসরকারি উদ্যোগও রয়েছে হিজড়াদের জন্য৷ তাঁরা এখন পোশাক কারখানায় কাজ করছেন৷ তাঁদের তৈরি জুতাসহ নানা পণ্য বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে৷ তাঁরা এখন বিউটি পার্লারেও কাজ করছেন।

দেয়া হয় প্রশিক্ষণ

হিজড়াদের জন্য কবিতা আবৃত্তি, সংগীত, উচ্চাঙ্গ সংগীত, নাচসহ আরো অনেক প্রশিক্ষণের আয়োজন হয় নিয়মিত৷ তাঁরা এখন স্টেজ শো-ও করছেন৷ কেউ কেউ প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন নিউজ রিপোর্টার হওয়ার জন্য৷

মেহেদি ও সেল্ফি উৎসব

১১ নভেম্বর ঢাকার ছ’টি জায়গায় হিজড়ারা আয়োজন করে সেল্ফি এবং মেহেদি উৎসবের৷ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির এই দিনটিকে তাঁরা উৎসবের জন্য বেছে নেন৷ উৎসবের নাম দেয়া হয় ‘খোলা হাওয়া’৷

খোলা হাওয়া ছড়িয়ে পড়ুক

বাংলাদেশের এই হিজড়ারা চান সবার সঙ্গে মিলেমিশে জীবনযাপন করতে, কষ্টের জীবন থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে৷ আর তাঁদের এই চাওয়ায়, খোলা হাওয়ায় সাড়া দিয়েছেন সাধারণ মানুষও৷ তাঁরাও যে আজ হিজড়াদের মানুষ ভাবেন৷ সূত্র: ডয়চে ভেলে

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» বান্দরবানে শহর জুড়ে চলছে হরতাল আর পিকেটিং

» এবার প্রচন্ড শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘বায়ু’!

» রাণীনগরে ইট ভাটা গুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত

» ধানের দাম কম তাই জমেনি ঈদের বাজার!

» বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে অর্ধশতাধিক বাড়ী-ঘর বিধ্বস্ত

» মোরেলগঞ্জে উন্মুক্ত বাজেট প্রনয়ন সভা অনুষ্ঠিত

» ঈদ উপলক্ষে আমতলী ঢাকা রুটে যাত্রীদের জন্য অতিরিক্ত লঞ্চ দেয়ার ঘোষণা

» নবীগঞ্জের বিভিন্ন বাজারে ঈদের হাটে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজী

» রাজাপুরে নারী মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার -৩

» সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে বেনাপোল পোর্ট থানার পুলিশ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন





ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com



আজ রবিবার, ২৬ মে ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ১২ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন দেশের হিজড়ারা

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

বাংলাদেশে হিজড়াদের প্রতি মানুষের দৃষ্টিভঙ্গিতে পরিবর্তন আসছে৷ এর পাশাপাশি তাঁরাও চাইছেন স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে৷ কোনো ভেদ নয়, সবাই মানুষ – এটাই পরিবর্তনের মূল মন্ত্র৷

বাংলাদেশে হিজড়া জনগোষ্ঠী

বাংলাদেশে সর্বশেষ সরকারি হিসেবে মোট হিজড়া ১২ হাজারের কিছু বেশি৷ কিন্তু বাস্তবে এই সংখ্যা আরো বেশি৷ তাঁরা প্রধানত ঢাকা শহরেই বসবাস করেন৷ তবে ঢাকার বাইরে সাভারসহ বিভিন্ন এলাকায় তাঁদের বাস রয়েছে৷

দলবদ্ধ হয়ে থাকেন

হিজড়ারা সামাজিক কারণে পরিবার বিচ্ছিন্ন হয়ে দলবদ্ধ হয়ে বসবাস করেন৷ তাঁদের কাউকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়েছে৷ আবার কেউ সামাজিক কারণে নিজেই বাড়ি থেকে বের হয়ে গেছেন৷

তেমন কোনো পেশা নেই

হিজড়ারা এখনো প্রধানত ভিক্ষাবৃত্তি এবং মানুষের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে জীবিকা নির্বাহ করেন৷ অনেকেরই কোনো পেশা নেই৷ শুধু তাই নয়, তাঁদের কাজের সুযোগও খুব কম৷ সমাজ তাঁদের স্বাভাবিকভাবে গ্রহণ না করাতেই হয়ত এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে৷

দৃষ্টিভঙ্গি বদলাচ্ছে

তবে পরিস্থিতি বদলাচ্ছে৷ বদলাচ্ছে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি৷ সাধারণ মানুষ এখন তাঁদের মূল ধারায় ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সমর্থন দিচ্ছে৷ দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনে কাজ করছে৷ কাজ করছে সরকার এবং নানা বেসরকারি সংগঠনও৷

স্বতন্ত্র লিঙ্গের স্বীকৃতি

২০১৩ সালের ১১ নভেম্বর হিজড়াদের স্বতন্ত্র লিঙ্গ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় সরকার৷ তাঁদের ভোটাধিকার দেয়া হয়৷ চাকরিতে সমান সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হয়৷ স্থানীয় পর্যায়ের নির্বাচনে দু’জন হিজড়া প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করেছেন৷

সরকার এগিয়ে আসছে

হিজড়াদের জন্য এখন সমাজসেবা অধিদপ্তর নানা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে৷ তাঁদের জন্য শিক্ষা, কর্মসংস্থান, প্রশিক্ষণসহ নানা উদ্যোগ রয়েছে৷ তবে তা পর্যাপ্ত নয়৷

বেসরকারি উদ্যোগও আছে

বেসরকারি উদ্যোগও রয়েছে হিজড়াদের জন্য৷ তাঁরা এখন পোশাক কারখানায় কাজ করছেন৷ তাঁদের তৈরি জুতাসহ নানা পণ্য বিদেশে রপ্তানি হচ্ছে৷ তাঁরা এখন বিউটি পার্লারেও কাজ করছেন।

দেয়া হয় প্রশিক্ষণ

হিজড়াদের জন্য কবিতা আবৃত্তি, সংগীত, উচ্চাঙ্গ সংগীত, নাচসহ আরো অনেক প্রশিক্ষণের আয়োজন হয় নিয়মিত৷ তাঁরা এখন স্টেজ শো-ও করছেন৷ কেউ কেউ প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন নিউজ রিপোর্টার হওয়ার জন্য৷

মেহেদি ও সেল্ফি উৎসব

১১ নভেম্বর ঢাকার ছ’টি জায়গায় হিজড়ারা আয়োজন করে সেল্ফি এবং মেহেদি উৎসবের৷ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির এই দিনটিকে তাঁরা উৎসবের জন্য বেছে নেন৷ উৎসবের নাম দেয়া হয় ‘খোলা হাওয়া’৷

খোলা হাওয়া ছড়িয়ে পড়ুক

বাংলাদেশের এই হিজড়ারা চান সবার সঙ্গে মিলেমিশে জীবনযাপন করতে, কষ্টের জীবন থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে৷ আর তাঁদের এই চাওয়ায়, খোলা হাওয়ায় সাড়া দিয়েছেন সাধারণ মানুষও৷ তাঁরাও যে আজ হিজড়াদের মানুষ ভাবেন৷ সূত্র: ডয়চে ভেলে

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ





সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited