আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ১০ মামলার শুনানি

রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার ১০ মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন শুনানির জন্য আমাগী ২৭ ফেব্রুয়ারী দিন ধার্য করেছেন আদালত। খালেদা জিয়ার আইনজীবী সময়ের আবেদন করায় মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা তা মঞ্জুর করে এ আদেশ দেন।

 

আদালতে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া সময়ের আবেদন করে বলেন, খালেদা জিয়া শারীরিকভাবে অসুস্থ। এছাড়া আগামীকাল বকশী বাজারে বিশেষ জজ আদালতে জিয়া ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল মামলার হাজিরা রয়েছে। পরবর্তীকালে তিনি আদালতে নিয়মিত হাজিরা দেবেন। আাদালত সময়ের আবদেন মঞ্জুর করে এ দিন ধার্য্য করেন। খালেদার বিরুদ্ধে দায়ের করা ১০ মামলা হলো- রাষ্ট্রদ্রোহের একটি মামলা, যাত্রাবাড়ী থানার একটি ও রাজধানীর দারুস সালাম থানায় নাশকতার আটটি মামলা।

 

রাষ্টদ্রোহের মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেন, ‘আজকে বলা হয় এত লক্ষ শহীদ হয়েছে, এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে। তিনি আরও বলেন, ‘তিনি (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাননি। তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা না দিলে মুক্তিযুদ্ধ হতো না।

 

এ বক্তব্যের পর ২৩ ডিসেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বক্তব্যে ‘দেশদ্রোহী’ মনোভাব পাওয়া যাচ্ছে অভিযোগ করে তা প্রত্যাহার করতে উকিল নোটিশ পাঠান সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক ড. মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী। নোটিশের জবাব না পাওয়ায় ২০১৬ সালের ২১ জানুয়ারি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অনুমোদন নেন স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে। ২০১৬ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম রাশেদ তালুকদারের আদালতে মামলা করেন। পরে ৫ এপ্রিল এ মামলায় তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন।

 

যাত্রাবাড়ী থানার মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি রাতে যাত্রাবাড়ীর কাঠেরপুল এলাকায় গ্লোরি পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রোলবোমা হামলা করা হয়। এতে বাসের ২৯ জন যাত্রী দগ্ধ হন। পরে ১ যাত্রী মারা যায়। ওই ঘটনায় ২৪ জানুয়ারি বিকালে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করে যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা করেন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কেএম নুরুজ্জামান। ২০১৫ সালের ৩০ এপ্রিল মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) বশির উদ্দিন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে বিস্ফোরক আইনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলায় সাক্ষী করা হয় ৮১ জনকে।

 

অপরদিকে ২০১৫ সালের দারুস সালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৮টি মামলা দায়ের করা হয়। বর্তমানে এই ৮ টি মামলা চার্জ শুনানির জন্য রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» বাতিল হচ্ছে এমসিকিউ? বিপদে শিক্ষার্থীরা

» রাজধানীর চকবাজারে আগুন: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৯

» আগুন নেভাতে বিমান বাহিনীর দুই হেলিকপ্টার

» আজ অমর একুশে ভাষা শহীদদের প্রতি জাতির বিনম্র শ্রদ্ধা

» রাজধানীর চকবাজার এলাকায় ভয়াবহ আগুন

» নিজ পরিচয়ে সারাবিশ্বে ও স্বদেশের উজ্জ্বল নক্ষত্র, শ্রেষ্ঠ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা

» একুশে স্মৃতি সংসদ সম্মাননা পেলেন: লায়ন গনি মিয়া বাবুল

» কলাপাড়ায় ছুরিকাঘাতে কলেজ শিক্ষিকা গুরুতর জখম

» চাঁদপুরে গ্রাম আদালতের অগ্রগতি ও চ্যালেন্জসমূহ নিয়ে জেলা প্রশাসকের ভিডিও কনফারেন্স

» গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ছয় কোচিং সেন্টার সিলগালা : বেঞ্চ ধ্বংস

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৯ই ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ১০ মামলার শুনানি

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার ১০ মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন শুনানির জন্য আমাগী ২৭ ফেব্রুয়ারী দিন ধার্য করেছেন আদালত। খালেদা জিয়ার আইনজীবী সময়ের আবেদন করায় মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা তা মঞ্জুর করে এ আদেশ দেন।

 

আদালতে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া সময়ের আবেদন করে বলেন, খালেদা জিয়া শারীরিকভাবে অসুস্থ। এছাড়া আগামীকাল বকশী বাজারে বিশেষ জজ আদালতে জিয়া ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল মামলার হাজিরা রয়েছে। পরবর্তীকালে তিনি আদালতে নিয়মিত হাজিরা দেবেন। আাদালত সময়ের আবদেন মঞ্জুর করে এ দিন ধার্য্য করেন। খালেদার বিরুদ্ধে দায়ের করা ১০ মামলা হলো- রাষ্ট্রদ্রোহের একটি মামলা, যাত্রাবাড়ী থানার একটি ও রাজধানীর দারুস সালাম থানায় নাশকতার আটটি মামলা।

 

রাষ্টদ্রোহের মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেন, ‘আজকে বলা হয় এত লক্ষ শহীদ হয়েছে, এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে। তিনি আরও বলেন, ‘তিনি (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান) বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাননি। তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা না দিলে মুক্তিযুদ্ধ হতো না।

 

এ বক্তব্যের পর ২৩ ডিসেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বক্তব্যে ‘দেশদ্রোহী’ মনোভাব পাওয়া যাচ্ছে অভিযোগ করে তা প্রত্যাহার করতে উকিল নোটিশ পাঠান সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক ড. মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী। নোটিশের জবাব না পাওয়ায় ২০১৬ সালের ২১ জানুয়ারি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অনুমোদন নেন স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে। ২০১৬ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম রাশেদ তালুকদারের আদালতে মামলা করেন। পরে ৫ এপ্রিল এ মামলায় তিনি আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন।

 

যাত্রাবাড়ী থানার মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি রাতে যাত্রাবাড়ীর কাঠেরপুল এলাকায় গ্লোরি পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রোলবোমা হামলা করা হয়। এতে বাসের ২৯ জন যাত্রী দগ্ধ হন। পরে ১ যাত্রী মারা যায়। ওই ঘটনায় ২৪ জানুয়ারি বিকালে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করে যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা করেন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কেএম নুরুজ্জামান। ২০১৫ সালের ৩০ এপ্রিল মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) বশির উদ্দিন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে বিস্ফোরক আইনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলায় সাক্ষী করা হয় ৮১ জনকে।

 

অপরদিকে ২০১৫ সালের দারুস সালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৮টি মামলা দায়ের করা হয়। বর্তমানে এই ৮ টি মামলা চার্জ শুনানির জন্য রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited