দখল নয়, ক্রয়কৃত জমির বাউন্ডারি দিতে গিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির শিকার এমপি মহিব

Spread the love

আনোয়ার হোসেন আনু, কুয়াকাটা॥ দখল নয়, নিজের ক্রয় করা সম্পত্তিতে বাউন্ডারিওয়াল র্নিমান করতে গিয়ে বিব্রত পরিস্থিতে পড়েছেন এমপি মহিববুর রহমান মুহিব। গত ৮ ফের্রুয়ারী দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় এমপি মুহিব কর্তৃক পাউবো’র জমি দখল করেছে এমপি মুহিব এমন সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদিক সম্মেলন করেছে কুয়াকাটা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ। রবিবার বেলা দশটায় কুয়াকাটা প্রেসক্লাবে সেচ্ছাসেবকলীগ আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কুয়াকাটা পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি শহীদ দেওয়ান বলেন, ৯৭ সালে ক্রয় করা জমিতে দীর্ঘদিন ধরে কোন স্থাপনা র্নিমান না করায় একশ্রেণীর অস্থায়ী ব্যবসায়ীরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করে ব্যবসা করে আসছিল। এসব ভাসমান ব্যবসায়ীরা তারা নিজেরাই তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরিয়ে নিয়ে গেছে।

 

অপরদিকে পানি উন্নয়নের বোর্ড তাদের মালিকানাধীণ ৪৮ শতাংশ জমিতে ধাঁনসিড়ি নামে একটি গেস্ট হাউস র্নিমান করেছে। বাউন্ডারি ওয়াল র্নিমানে করে তাদের জমি দখলে রেখেছে। কাজেই পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য পাউবো’র কোন জমি দখল করেননি। একটি প্রতিক্রিয়াশীল চক্র পরিকল্পিতভাবে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য গনমাধ্যমকর্মীদের ভুল তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশ করিয়েছে। লিখিত বক্তব্যে শহীদ দেওয়ান আরো বলেন, সেউ মগের কন্যা সেফরী মগ ৩৪ নং জেএল লতাচাপলী মৌজার ১৯৪১ সনের আরএস খতিয়ানমুলে মালিক। যার দাগ নং ৫৩৪৮, ৫৩৪৯, ৫৪৮৫, ৫৩৬৩, ৫৩৫০, ৫৪৮৪, ৫৪৮৬। ১০৫৯ সনের এসএ ১১৬০ খতিয়ানমুলেও উক্ত ১ একর ৮ শতাংশ জমির মালিক থাকেন সেফরী মগ। সেফরী মগের লোকান্তরে ওয়ারিশ প্লিচিং মগনী কাছ থেকে ১৯৯৭ সানে ৩০৫০ নং সাফ কবলা দলিল মুলে দুই একর জমি ক্রয় করেন মহিব্বুর রহমান গং। এরমধ্যে ৮০ শতাংশ জমি মহিব্বুর রহমানের নিজ নামীয়। যা পরবর্তীতে বিএস ১২৫৮ খতিয়ান হিসাবে অর্ন্তভুক্ত হয়।

 

তিনি আরো বলেন, একই আরএস ও এসএ দাগ হতে ১৯৬৮ সনে পানি উন্নয়ন বোর্ড ৩৮ শতাংশ জমি সরকারের কাছ থেকে অধিগ্রহন করে। কিন্তু উক্ত দাগের জমি ১৯৪১ সনে ব্যাক্তি মালিকানায় রেকর্ড হয়। একইভাবে ১৯৫৯ সালেও এসএ রেকর্ড হয়। যার খতিয়ান নং ১১৬০। প্রকৃতপক্ষে উল্লেখিত দাগে সরকারের আদৌ কোন জমি ছিলনা। আর পানি উন্নয়ন বোর্ড বিএস ৩৩৯৮,৩৩৯৯ দাগের ৪৮ শতাংশ জমি তাদের দখলে রয়েছে। কাজেই এমপি মহোদয় কর্তৃক পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করা শুধু গল্প নয় মিথ্যা প্রপাগন্ডা। মহিপুর থানা যুবলীগের আহবায়ক এ এম মিজানুর রহমান বুলেট ও যুগ্ম আহবায়ক মোঃ মাসুদ রানা বলেন, এমপি অধ্যক্ষ মুহিবকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য বিএনপি পন্থি কতিপয় ব্যাক্তি এসব মিথ্যা সংবাদ সরবরাহ করেছে সাংবাদিকদের কাছে। এমন মিথ্যা সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান তারা।

 

এসময় উপস্থিত দোকান মালিক শাহজাহান বিশ্বাস এবং আবু বকর বলেন, তারা কোন সাংবাদিকের কাছে অভিযোগ করেননি। কোন সাংবাদিক তাদের কাছে আসেননি এ বিষয় জানার জন্য। তাদের কেউ জোর করে উচ্ছেদ করেনি। তিনি নিজেই তার দোকান ঘর সরিয়ে নিয়ে গেছেন। তারপরও একটি পত্রিকায় তাদেরকে জরিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে। এমন সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন দুই ব্যবসায়ী। এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড কলাপাড়া সার্কেলের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহজাহান সিরাজ সাংবাদিকদের বলেন, উল্লেখিত দাগ এবং খতিয়ানের তার (এমপি মুহিব) কোন জমি নাই। সংবাদিক সম্মেলনে এসময় উপস্থিত ছিলেন, লুৎফুল হাসান রানা, জিএম হারুন, পৌর যুবলীগের আহবায়ক ইসাহাক শেখ,কালাম ফরাজী,শাকিল মৃধাসহ স্থানীয় আ.লীগ, যুবলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

 

উল্লেখ্য ৮ ফেব্রুয়ারী দৈনিক যুগান্তর প্রত্রিকায় ”পাউবোর জমি দখলে এমপি মুহিব” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সেখানে বলা হয়েছে, এমপি হওয়ার ১ মাসের মাথায় কুয়াকাটায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি দখল করে নিচ্ছেন পটুয়াখালী-৪ আসনের এমপি মুহিব্বুর রহমান মুহিব।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» বঙ্গোপসাগরে ইলিশ মৌসুমে অবরোধ বাতিলের দাবিতে মৎস্যজীবীদের মানববন্ধন ও সমাবেশ

» যশোরের শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় চটপটি বিক্রেতা নিহত

» মাদ্রাসার টাকা যেত প্রশাসন ও আওয়ামী লীগ নেতাদের পকেটে

» ঝিনাইদহে হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী আ’লীগ কর্মীকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যা

» নওগাঁয় সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে পান্তা-ইলিশ উৎসব

» গ্রাম আদালত বিষয়ক বাৎসরিক রিভিউ সভা অনুষ্ঠিত গ্রাম আদালত সক্রিয় হলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে

» কোটি জেলের বেকারত্বের আশংকা: ভরা মৌসুমে সমুদ্রে ৬৫দিন অবরোধের প্রতিবাদে মাঠে নামছেন জেলেরা

» শার্শায় প্রতিপক্ষের আঘাতে দম্পত্তি আহত মামলা না করার হুমকি

» সিরাজগঞ্জে ভাবীকে বিয়ে করল ছোট ভাই, বউ ফিরে পেতে প্রাণ গেল বড় ভাইয়ের

» দশমিনায় ১৫ জেলের জেল ১লাখ মিটার অবৈধ জাল জব্দ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

x

আজ শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৭ই বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দখল নয়, ক্রয়কৃত জমির বাউন্ডারি দিতে গিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির শিকার এমপি মহিব

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

আনোয়ার হোসেন আনু, কুয়াকাটা॥ দখল নয়, নিজের ক্রয় করা সম্পত্তিতে বাউন্ডারিওয়াল র্নিমান করতে গিয়ে বিব্রত পরিস্থিতে পড়েছেন এমপি মহিববুর রহমান মুহিব। গত ৮ ফের্রুয়ারী দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় এমপি মুহিব কর্তৃক পাউবো’র জমি দখল করেছে এমপি মুহিব এমন সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদিক সম্মেলন করেছে কুয়াকাটা পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ। রবিবার বেলা দশটায় কুয়াকাটা প্রেসক্লাবে সেচ্ছাসেবকলীগ আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কুয়াকাটা পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি শহীদ দেওয়ান বলেন, ৯৭ সালে ক্রয় করা জমিতে দীর্ঘদিন ধরে কোন স্থাপনা র্নিমান না করায় একশ্রেণীর অস্থায়ী ব্যবসায়ীরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করে ব্যবসা করে আসছিল। এসব ভাসমান ব্যবসায়ীরা তারা নিজেরাই তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরিয়ে নিয়ে গেছে।

 

অপরদিকে পানি উন্নয়নের বোর্ড তাদের মালিকানাধীণ ৪৮ শতাংশ জমিতে ধাঁনসিড়ি নামে একটি গেস্ট হাউস র্নিমান করেছে। বাউন্ডারি ওয়াল র্নিমানে করে তাদের জমি দখলে রেখেছে। কাজেই পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য পাউবো’র কোন জমি দখল করেননি। একটি প্রতিক্রিয়াশীল চক্র পরিকল্পিতভাবে তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য গনমাধ্যমকর্মীদের ভুল তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশ করিয়েছে। লিখিত বক্তব্যে শহীদ দেওয়ান আরো বলেন, সেউ মগের কন্যা সেফরী মগ ৩৪ নং জেএল লতাচাপলী মৌজার ১৯৪১ সনের আরএস খতিয়ানমুলে মালিক। যার দাগ নং ৫৩৪৮, ৫৩৪৯, ৫৪৮৫, ৫৩৬৩, ৫৩৫০, ৫৪৮৪, ৫৪৮৬। ১০৫৯ সনের এসএ ১১৬০ খতিয়ানমুলেও উক্ত ১ একর ৮ শতাংশ জমির মালিক থাকেন সেফরী মগ। সেফরী মগের লোকান্তরে ওয়ারিশ প্লিচিং মগনী কাছ থেকে ১৯৯৭ সানে ৩০৫০ নং সাফ কবলা দলিল মুলে দুই একর জমি ক্রয় করেন মহিব্বুর রহমান গং। এরমধ্যে ৮০ শতাংশ জমি মহিব্বুর রহমানের নিজ নামীয়। যা পরবর্তীতে বিএস ১২৫৮ খতিয়ান হিসাবে অর্ন্তভুক্ত হয়।

 

তিনি আরো বলেন, একই আরএস ও এসএ দাগ হতে ১৯৬৮ সনে পানি উন্নয়ন বোর্ড ৩৮ শতাংশ জমি সরকারের কাছ থেকে অধিগ্রহন করে। কিন্তু উক্ত দাগের জমি ১৯৪১ সনে ব্যাক্তি মালিকানায় রেকর্ড হয়। একইভাবে ১৯৫৯ সালেও এসএ রেকর্ড হয়। যার খতিয়ান নং ১১৬০। প্রকৃতপক্ষে উল্লেখিত দাগে সরকারের আদৌ কোন জমি ছিলনা। আর পানি উন্নয়ন বোর্ড বিএস ৩৩৯৮,৩৩৯৯ দাগের ৪৮ শতাংশ জমি তাদের দখলে রয়েছে। কাজেই এমপি মহোদয় কর্তৃক পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করা শুধু গল্প নয় মিথ্যা প্রপাগন্ডা। মহিপুর থানা যুবলীগের আহবায়ক এ এম মিজানুর রহমান বুলেট ও যুগ্ম আহবায়ক মোঃ মাসুদ রানা বলেন, এমপি অধ্যক্ষ মুহিবকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য বিএনপি পন্থি কতিপয় ব্যাক্তি এসব মিথ্যা সংবাদ সরবরাহ করেছে সাংবাদিকদের কাছে। এমন মিথ্যা সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান তারা।

 

এসময় উপস্থিত দোকান মালিক শাহজাহান বিশ্বাস এবং আবু বকর বলেন, তারা কোন সাংবাদিকের কাছে অভিযোগ করেননি। কোন সাংবাদিক তাদের কাছে আসেননি এ বিষয় জানার জন্য। তাদের কেউ জোর করে উচ্ছেদ করেনি। তিনি নিজেই তার দোকান ঘর সরিয়ে নিয়ে গেছেন। তারপরও একটি পত্রিকায় তাদেরকে জরিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করেছে। এমন সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন দুই ব্যবসায়ী। এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড কলাপাড়া সার্কেলের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহজাহান সিরাজ সাংবাদিকদের বলেন, উল্লেখিত দাগ এবং খতিয়ানের তার (এমপি মুহিব) কোন জমি নাই। সংবাদিক সম্মেলনে এসময় উপস্থিত ছিলেন, লুৎফুল হাসান রানা, জিএম হারুন, পৌর যুবলীগের আহবায়ক ইসাহাক শেখ,কালাম ফরাজী,শাকিল মৃধাসহ স্থানীয় আ.লীগ, যুবলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

 

উল্লেখ্য ৮ ফেব্রুয়ারী দৈনিক যুগান্তর প্রত্রিকায় ”পাউবোর জমি দখলে এমপি মুহিব” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সেখানে বলা হয়েছে, এমপি হওয়ার ১ মাসের মাথায় কুয়াকাটায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি দখল করে নিচ্ছেন পটুয়াখালী-৪ আসনের এমপি মুহিব্বুর রহমান মুহিব।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited