সাপাহারে নিজ বুদ্ধিমত্তায় বাল্য বিয়ে বন্ধের স্কুল ছাত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা

হাফিজুল হক, সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী ইউনিয়নের ড্রেনপাড়া গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রী উপজেলা প্রশাসনের উপর আস্থা না পেয়ে ১০৯ নাম্বারে কল দিয়ে নিজের বিয়ে নিজেই বন্ধ করে বাল্য বিয়ের কবল হতে রক্ষা পেল। এই সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় সাপাহার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সবুর আলী ও প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ঐ স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেয় এবং পরিবার সহ গ্রামবাসীকে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে অবগত করেন।

 

জানা গেছে, পাতাড়ী ড্রেনপাড়া গ্রামের মোকলেছুর রহমান ও মা ফেরদৌসী বেগমের মেয়ে মোরশেদা খাতুন (১৩) সে পাতাড়ী ফাজিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। তার বাবা-মা পাশের গ্রামের এক ছেলের সাথে মেয়ের বিয়ে দেয়ার জন্য ১১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দিন তারিখ ঠিক করেছিলেন। এর পূর্বে ৫ ডিসেম্বর উপজেলার শিতলডাংগা গ্রামের মৃত আমিনুলের মেয়ে ফরিদার বাল্য বিবাহ হয় উক্ত বিয়েতে উপজেলার রায়পুর গ্রামের মনিরুলের ছেরে বিপ্লব থানা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে মোবাইল ফোনে অবগত করেন কিন্ত কোন প্রকার পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

 

তাই বাড়ীতে বিয়ের সকল প্রস্ততি সম্পূর্ন হতে দেখে শিক্ষার্থী মোরশেদা নিজ ঘরে নিজের বিয়ে বন্ধের জন্য ১০৯ নম্বারে কল দেয়ার চেষ্টা করতে থাকে। ঠিক এ সময়ে তার মা ফেরদৌসী বেগম মেয়ের কল করে বিয়ে বন্ধ করার কৌশল বুঝতে পেরে মেয়ের হাত থেকে মোবাইল কেড়ে নিয়ে শারীরীক নির্যাতন চালাতে শুরু করে। নির্যাতনের এক পর্যায়ে সে ১০৯ নম্বর কোথায় পেল জানার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকলে শিক্ষার্থী মোরশেদা নাম্বারটি তার গ্রামের শিশু বিকাশ কেন্দ্রের ম্যানেজার শারমীন আক্তারের নাম বলে দেয়। এর পর ওই মেয়ের বাবা মা ঐ কেন্দ্রের ম্যানেজারের প্রতি চড়াও হয়ে তাকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি প্রদর্শন করে।

 

পরে প্রশাসন সহ বিভিন্ন দপ্তরের ভয়ে আপাতত মেয়ের বিয়ে বন্ধ করে দেন পরিবার টি। আর এ বিষয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা অরলাইন পোর্টাল ও ফেসবুকে প্রকাশ করলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যাণ চৌধুরী’র নির্দেশে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সবুর আলী ও প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ঐ স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেয় এবং পরিবার সহ গ্রামবাসীকে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে অবগত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» বাগেরহাটে সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক পুরস্কার বিতরণ

» যশোরের শার্শায় নবজাতক চুরি হওয়ার ৮ ঘন্টা পর উদ্ধার,মহিলা আটক

» এক নিষ্ঠুর পিতা মনিন্দ্র দাস মৌলভীবাজারে কন্যা শিশুকে নিয়ে নিরুপায় মা

» আগৈলঝাড়ায় মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার ২

» আগৈলঝাড়ায় ঐতিহ্যবাহী সরকারী গৈলা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১২৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

» ভাগ্যবান লোকদের আল্লাহ, নেয়ামত হিসাবে উপহার দেন কন্যা সন্তান

» মৃত্যুশয্যায় বৃদ্ধা মা, পাশে নেই বিসিএস ক্যাডার-বিত্তবান সন্তানেরা

» পদ্মা সেতুর ১ হাজার ৫০ মিটার দৃশ্যমান

» বুলবুলকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘গার্ড অব অনার’, সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা

» সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে নিয়ে বিদিশার আবেগঘন স্ট্যাটাস

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ১১ই মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সাপাহারে নিজ বুদ্ধিমত্তায় বাল্য বিয়ে বন্ধের স্কুল ছাত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

হাফিজুল হক, সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাতাড়ী ইউনিয়নের ড্রেনপাড়া গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রী উপজেলা প্রশাসনের উপর আস্থা না পেয়ে ১০৯ নাম্বারে কল দিয়ে নিজের বিয়ে নিজেই বন্ধ করে বাল্য বিয়ের কবল হতে রক্ষা পেল। এই সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় সাপাহার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সবুর আলী ও প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ঐ স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেয় এবং পরিবার সহ গ্রামবাসীকে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে অবগত করেন।

 

জানা গেছে, পাতাড়ী ড্রেনপাড়া গ্রামের মোকলেছুর রহমান ও মা ফেরদৌসী বেগমের মেয়ে মোরশেদা খাতুন (১৩) সে পাতাড়ী ফাজিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। তার বাবা-মা পাশের গ্রামের এক ছেলের সাথে মেয়ের বিয়ে দেয়ার জন্য ১১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার দিন তারিখ ঠিক করেছিলেন। এর পূর্বে ৫ ডিসেম্বর উপজেলার শিতলডাংগা গ্রামের মৃত আমিনুলের মেয়ে ফরিদার বাল্য বিবাহ হয় উক্ত বিয়েতে উপজেলার রায়পুর গ্রামের মনিরুলের ছেরে বিপ্লব থানা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে মোবাইল ফোনে অবগত করেন কিন্ত কোন প্রকার পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

 

তাই বাড়ীতে বিয়ের সকল প্রস্ততি সম্পূর্ন হতে দেখে শিক্ষার্থী মোরশেদা নিজ ঘরে নিজের বিয়ে বন্ধের জন্য ১০৯ নম্বারে কল দেয়ার চেষ্টা করতে থাকে। ঠিক এ সময়ে তার মা ফেরদৌসী বেগম মেয়ের কল করে বিয়ে বন্ধ করার কৌশল বুঝতে পেরে মেয়ের হাত থেকে মোবাইল কেড়ে নিয়ে শারীরীক নির্যাতন চালাতে শুরু করে। নির্যাতনের এক পর্যায়ে সে ১০৯ নম্বর কোথায় পেল জানার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকলে শিক্ষার্থী মোরশেদা নাম্বারটি তার গ্রামের শিশু বিকাশ কেন্দ্রের ম্যানেজার শারমীন আক্তারের নাম বলে দেয়। এর পর ওই মেয়ের বাবা মা ঐ কেন্দ্রের ম্যানেজারের প্রতি চড়াও হয়ে তাকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি প্রদর্শন করে।

 

পরে প্রশাসন সহ বিভিন্ন দপ্তরের ভয়ে আপাতত মেয়ের বিয়ে বন্ধ করে দেন পরিবার টি। আর এ বিষয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা অরলাইন পোর্টাল ও ফেসবুকে প্রকাশ করলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কল্যাণ চৌধুরী’র নির্দেশে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সবুর আলী ও প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ঐ স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেয় এবং পরিবার সহ গ্রামবাসীকে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে অবগত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited