দৈনিক আমাদের কন্ঠে সংবাদ প্রকাশ! মৎস্য কর্মকর্তার সরেজমিন পরিদর্শন

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারে সদর উপজেলা প্রশাসনের যোগাযোগীমুলে সরকারের জলমহাল নীতিমালা অমান্য করে কাজুরা উন্নয়ন সংগঠনের নামে সেচ দিয়ে “কাজুরা বিল”এর মাছ লুঠ করার ঘটনায় জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আ.ক.ম শফিক উজ্জমান‘র নির্দেশে আজ ৩ ডিসেম্বর দুপুরে “কাজুরা বিল” সরেজমিন পরিদর্শন করেছেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু ইউসুফ। সরেজমিন পরিদর্শন শেষে ঘটনার সত্যতা পেয়ে আগামী ৪ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় কাজুরা উন্নয়ন সংগঠন নামীয় সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সকল মাছ লুটকারীদের উপজেলা মৎস্য অফিসে গিয়ে কারন দর্শানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন।

 

গত ২ ডিসেম্বর জাতীয় দৈনিক আমাদের কন্ঠ ও স্থানীয় দৈনিক মৌমাছি কন্ঠসহ একাধিক অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় “মৌলভীবাজারে সেচ দিয়ে কাজুরা বিল এর মাছ লূট” শীর্ষক শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হলে টনক নড়ে জেলা মৎস্য অফিসের। পত্রিকায় মাছ লুটের ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় এ প্রতিবেদককে ধন্যবাদ জানান জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আ.ক.ম শফিক উজ্জমান। জানা গেছে- মৌলভীবাজার সদর উপজেলাধীন ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়নের আনিকেলীবুদা গ্রাম নিবাসী মৃতঃ মেন্দি মিয়ার পুত্র আব্দুল মিয়া, আনিকেলীবড় গ্রাম নিবাসী মৃত- হারিছ মিয়ার পুত্র ছালিক মিয়া (বর্তমান ইউপি সদস্য ৩নং ওয়ার্ড), কাজুরা উন্নয়ন সংগঠনের সভাপতি আব্দুল মতিন খান, সাধারণ সম্পাদক সাবুদ্দিন মিয়া ও কোষাধ্যক্ষ নাজমা বেগমসহ অজ্ঞাতনামা লোকজন সরকারের জলমহাল নীতিমালার প্রযোজ্য শর্তাদি অমান্য করে গত ২৫/১১/২০১৮ইং থেকে শুরু করে গত ১ নভেম্বর পর্যন্ত পাম্প মেশিন এর মাধ্যমে সেচদিয়ে জলমহাল শুকিয়ে মাছ লুঠ করেন।

 

বিষয়টি একাধিকবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামানকে অবগত করা হলেও ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়ন তহশিলদার রাধা বিনোদ পাল ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে জলমহালে সেচদিয়ে মাছ লুঠ না করার জন্য অনুরুদ করেন। অপরদিকে, “কাজুরা বিল” এর মাছ লুঠকারীদের সাথে গোপনে যোগাযোগ অব্যাহত রাখেন- ইউনিয়নের তহশিলদার রাধা বিনোদ পাল, ইউনিয়ন ভৃমি সহকারী কর্মকর্তা সুয়েজ আহমদ, ইউনিয়ন ভৃমি সহকারী কর্মকর্তা এস.এম মুখলেছুর রহমান, অফিস সহায়ক আব্দুল মালিক ও বেলাল মিয়া। ফলে, মাছ লুন্টনকারীরা তাদের যোগাযোগীমুলে সেচদিয়ে জলমহাল শুকিয়ে মাছ লুঠ করেন। সর্বশেষ এ ঘটনায় এলাকাবাসীর পক্ষে গত ২ ডিসেম্বর মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক বরাবর দায়ীদের বিরুদ্ধে জরুরী ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার দাবী জানিয়ে লিখিত ( ডকেটনং- ১১৬৬৫) আবেদন করেন ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়নের ভুক্তভোগী মোঃ নওরোজ মিয়া।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» ফতুল্লায় পুলিশকে গুলি করে পলানো সেই চার ছিনতাইকারী গ্রেফতার

» রাজনগরে শহীদ তারা মিয়ার মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ ও স্বরণসভা

» হিউম্যান রাইটস রিভিউ সোসাউটি’র পক্ষ থেকে দশমিনায় নির্বাহী কর্মকর্তা’কে ক্রেরেস্ট প্রদান

» সভাপতি মোশারেফ – সম্পাদক বুলেট: কলাপাড়ায় সুজন’র কমিটি গঠন

» কলাপাড়ায় তৃনমূল পর্যায়ের জনতার দাবী নিয়ে সংবাদ সম্মেলন

» সাপাহারে নিজ বুদ্ধিমত্তায় বাল্য বিয়ে বন্ধের স্কুল ছাত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা

» রাজাপুরে বিভিন্ন স্থানে বিট পুলিশিং মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

» কুমিল্লার এক মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বহাল

» জন্মদিনের এমন উপহারে বোবা হয়ে গেছি: জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি

» সেনা নামবে ২৪ ডিসেম্বর, থাকবে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত: ইসি সচিব

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

আজ শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ৩০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দৈনিক আমাদের কন্ঠে সংবাদ প্রকাশ! মৎস্য কর্মকর্তার সরেজমিন পরিদর্শন

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারে সদর উপজেলা প্রশাসনের যোগাযোগীমুলে সরকারের জলমহাল নীতিমালা অমান্য করে কাজুরা উন্নয়ন সংগঠনের নামে সেচ দিয়ে “কাজুরা বিল”এর মাছ লুঠ করার ঘটনায় জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আ.ক.ম শফিক উজ্জমান‘র নির্দেশে আজ ৩ ডিসেম্বর দুপুরে “কাজুরা বিল” সরেজমিন পরিদর্শন করেছেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু ইউসুফ। সরেজমিন পরিদর্শন শেষে ঘটনার সত্যতা পেয়ে আগামী ৪ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় কাজুরা উন্নয়ন সংগঠন নামীয় সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সকল মাছ লুটকারীদের উপজেলা মৎস্য অফিসে গিয়ে কারন দর্শানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন।

 

গত ২ ডিসেম্বর জাতীয় দৈনিক আমাদের কন্ঠ ও স্থানীয় দৈনিক মৌমাছি কন্ঠসহ একাধিক অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় “মৌলভীবাজারে সেচ দিয়ে কাজুরা বিল এর মাছ লূট” শীর্ষক শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হলে টনক নড়ে জেলা মৎস্য অফিসের। পত্রিকায় মাছ লুটের ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় এ প্রতিবেদককে ধন্যবাদ জানান জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আ.ক.ম শফিক উজ্জমান। জানা গেছে- মৌলভীবাজার সদর উপজেলাধীন ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়নের আনিকেলীবুদা গ্রাম নিবাসী মৃতঃ মেন্দি মিয়ার পুত্র আব্দুল মিয়া, আনিকেলীবড় গ্রাম নিবাসী মৃত- হারিছ মিয়ার পুত্র ছালিক মিয়া (বর্তমান ইউপি সদস্য ৩নং ওয়ার্ড), কাজুরা উন্নয়ন সংগঠনের সভাপতি আব্দুল মতিন খান, সাধারণ সম্পাদক সাবুদ্দিন মিয়া ও কোষাধ্যক্ষ নাজমা বেগমসহ অজ্ঞাতনামা লোকজন সরকারের জলমহাল নীতিমালার প্রযোজ্য শর্তাদি অমান্য করে গত ২৫/১১/২০১৮ইং থেকে শুরু করে গত ১ নভেম্বর পর্যন্ত পাম্প মেশিন এর মাধ্যমে সেচদিয়ে জলমহাল শুকিয়ে মাছ লুঠ করেন।

 

বিষয়টি একাধিকবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামানকে অবগত করা হলেও ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়ন তহশিলদার রাধা বিনোদ পাল ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে জলমহালে সেচদিয়ে মাছ লুঠ না করার জন্য অনুরুদ করেন। অপরদিকে, “কাজুরা বিল” এর মাছ লুঠকারীদের সাথে গোপনে যোগাযোগ অব্যাহত রাখেন- ইউনিয়নের তহশিলদার রাধা বিনোদ পাল, ইউনিয়ন ভৃমি সহকারী কর্মকর্তা সুয়েজ আহমদ, ইউনিয়ন ভৃমি সহকারী কর্মকর্তা এস.এম মুখলেছুর রহমান, অফিস সহায়ক আব্দুল মালিক ও বেলাল মিয়া। ফলে, মাছ লুন্টনকারীরা তাদের যোগাযোগীমুলে সেচদিয়ে জলমহাল শুকিয়ে মাছ লুঠ করেন। সর্বশেষ এ ঘটনায় এলাকাবাসীর পক্ষে গত ২ ডিসেম্বর মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক বরাবর দায়ীদের বিরুদ্ধে জরুরী ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার দাবী জানিয়ে লিখিত ( ডকেটনং- ১১৬৬৫) আবেদন করেন ১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়নের ভুক্তভোগী মোঃ নওরোজ মিয়া।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited