জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো কাজ করবে গ্রামপুলিশ

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো গ্রামপুলিশ ব্যবহার করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অর্থ বরাদ্দবিষয়ক সভাশেষে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। নির্বাচন কমিশনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, এ বছর আমরা নতুন একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে যাচ্ছি। সেটি হল- এ বছর থেকে গ্রামপুলিশকে নির্বাচনী কাজে ব্যবহার করব। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা তফসিল ঘোষণার সময় বলেছেন- প্রত্যেক নির্বাচনী এলাকায় নির্বাহী ও বিচারিক হাকিম নিয়োগ দেয়া হবে।

 

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনী থেকে ৬ লক্ষাধিক সদস্য মোতায়েন করা হবে। তাদের মধ্যে থাকবে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, কোস্টগার্ড, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা। সারা দেশে দফাদার ও মহলদার মিলে গ্রামপুলিশের সংখ্যা প্রায় ৪৬ হাজার। দশম সংসদ নির্বাচনে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ১৪-১৬ জননিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেন। আর র‌্যাব, বিজিবি ও সেনা সদস্যরা ছিলেন টহলে। ওই নির্বাচনে ১৪৭ আসনে ভোট হয়, ১৫৩ আসনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন একক প্রার্থীরা। দেশের প্রায় অর্ধেক এলাকায় ভোটের সময় সশস্ত্র বাহিনীর ৫০ হাজার সদস্যের সঙ্গে ছিলেন অন্তত ৮০ হাজার পুলিশ, আট হাজার র‌্যাব, ১৬ হাজার বিজিবি ও প্রায় সোয়া ২ লাখ আনসার সদস্য।

 

ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, গতবার নির্বাচন আয়োজনে ব্যয় হয় প্রায় ২৬৫ কোটি টাকা, যার মধ্যে ১৮৩ কোটি টাকাই লেগেছে আইনশৃঙ্খলা খাতে। পুরো ৩০০ আসনে ভোট করতে হলে খরচও সে অনুযায়ী দ্বিগুণ হয়ে যাবে। একাদশ সংসদ নির্বাচনে পরিচালনা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ৭০০ কোটি টাকার খাতওয়ারি বরাদ্দ অনুমোদন করেছে নির্বাচন কমিশন। ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বুধবার পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে। ২ ডিসেম্বর বাছাইয়ের পর ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» কানাডায় নারীরা অন্যের বাচ্চা জন্ম দিচ্ছেন

» বেনাপোল স্থল বন্দর শ্রমিক ধর্মঘট, অসহায় ব্যবসায়ীরা

» একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোটবদ্ধ ২৯ ছাড়াও জাপা ১৪৩ প্রার্থী

» আওয়ামী লীগের এবারের ইশতেহার হবে ঐতিহাসিক : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ

» ঢাকাটাইমস, প্রিয়ডটকমসহ ৫৮ নিউজ সাইট বন্ধের নির্দেশ

» চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার দেশে ফিরবেন চামেলী

» মনোনয়ন ফিরে পেতে এখনও আশাবাদী হিরো আলম

» হাওলাদারকে এরশাদের বিশেষ সহকারী হিসেবে নিয়োগ

» গুলশানে বিএনপির বঞ্চিতদের হামলা, নয়াপল্টনে তালা

» বিজয়ের মাসে সাত বীরশ্রেস্ট’র নামে কলাপাড়ায় সাতটি পাঠাগার

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 

 

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ২৭শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো কাজ করবে গ্রামপুলিশ

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো গ্রামপুলিশ ব্যবহার করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অর্থ বরাদ্দবিষয়ক সভাশেষে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। নির্বাচন কমিশনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, এ বছর আমরা নতুন একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে যাচ্ছি। সেটি হল- এ বছর থেকে গ্রামপুলিশকে নির্বাচনী কাজে ব্যবহার করব। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা তফসিল ঘোষণার সময় বলেছেন- প্রত্যেক নির্বাচনী এলাকায় নির্বাহী ও বিচারিক হাকিম নিয়োগ দেয়া হবে।

 

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনী থেকে ৬ লক্ষাধিক সদস্য মোতায়েন করা হবে। তাদের মধ্যে থাকবে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, কোস্টগার্ড, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরা। সারা দেশে দফাদার ও মহলদার মিলে গ্রামপুলিশের সংখ্যা প্রায় ৪৬ হাজার। দশম সংসদ নির্বাচনে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ১৪-১৬ জননিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেন। আর র‌্যাব, বিজিবি ও সেনা সদস্যরা ছিলেন টহলে। ওই নির্বাচনে ১৪৭ আসনে ভোট হয়, ১৫৩ আসনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন একক প্রার্থীরা। দেশের প্রায় অর্ধেক এলাকায় ভোটের সময় সশস্ত্র বাহিনীর ৫০ হাজার সদস্যের সঙ্গে ছিলেন অন্তত ৮০ হাজার পুলিশ, আট হাজার র‌্যাব, ১৬ হাজার বিজিবি ও প্রায় সোয়া ২ লাখ আনসার সদস্য।

 

ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, গতবার নির্বাচন আয়োজনে ব্যয় হয় প্রায় ২৬৫ কোটি টাকা, যার মধ্যে ১৮৩ কোটি টাকাই লেগেছে আইনশৃঙ্খলা খাতে। পুরো ৩০০ আসনে ভোট করতে হলে খরচও সে অনুযায়ী দ্বিগুণ হয়ে যাবে। একাদশ সংসদ নির্বাচনে পরিচালনা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ৭০০ কোটি টাকার খাতওয়ারি বরাদ্দ অনুমোদন করেছে নির্বাচন কমিশন। ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বুধবার পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে। ২ ডিসেম্বর বাছাইয়ের পর ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited