মোরেলগঞ্জে দুই নেতা হত্যার ঘটনায়: আটক ১২

Spread the love

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট অফিস: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার অভিযোগে থানায় হত্যা ও অস্ত্র আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় নিহত যুবলীগ নেতা শেখ শুকুর আলীর বড় ভাই ও দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শেখ ফারুক আহম্মেদ বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরসহ ৩১ জনকে আসামি করা হয়েছে। অপর মামলাটি দায়ের করে পুলিশ। অস্ত্র আইনে দায়ের করা এ মামলায় আসামি করা হয়েছে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরসহ ছয়জনকে। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলামকে প্রধান আসামি করা হয়।

 

এ ব্যাপারে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি কে এম আজিজুল ইসলাম বলেন, গত সোমবার জোড়া হত্যার ঘটনায় নিহত শুকুর শেখের ভাই বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দিলে তা এজাহার হিসেবে গন্য করা হয়েছে। ওই মামলায় মোট ৩১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামাও আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়াও থানা ওসি(তদন্ত) ঠাকুর দাস মন্ডল বাদী হয়ে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনেও একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্তু আটক করা হয়েছে ১২ জনকে। এও জানা গেছে, ঘটনার দিনই পুলিশ অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের লাইসেন্স করা শর্টগানটি জব্দ করে। এ ছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে দেশিয় তৈরি একটি রিভলবার, একটি ওয়ান শুটারগান, রিভলবারের গুলি ২ রাউন্ড, ৬ রাউন্ড কার্তুজ, দুটি রক্তমাখা কুড়াল জব্দ করে পুলিশ।

 

এ বিষয়ে নিহত যুবলীগ নেতা শেখ শুকুর আলীর বড় ভাই ও দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শেখ ফারুক আহম্মেদ জানান, প্রভাবশালী দুই নেতাকে প্রকাশ্যে দিবালোকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে মোড়েলগঞ্জের দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়নের দুই বারের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকির। গত সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের নিকটবর্তী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী দিহিদারের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে তাকে সেখান থেকে তুলে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসে শহিদুলের সশস্র ক্যাডার বাহিনী। এ সময় তার স্ত্রী মঞ্জু বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার পাশাপাশি তার একটি পা ভেঙে দেয় হামলাকারীরা। এরপর একই ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা শেখ শুকুর আলী ও স্থানীয় তাঁতী লীগ নেতা বাবুল শেখকে (৪২) দৈবজ্ঞহাটি বাজার থেকে তুলে আনা হয় ওই ইউনিয়ন পরিষদে।

 

তারা আরো জানান, মূলত ওই ইউনিয়ন পরিষদটি স্থানীয়দের কাছে শহিদুল ফকিরের টর্চার সেল হিসেবে পরিচিত। তাদের হত্যার পূর্বে একটি নাটকও সাজিয়েছিল শহিদুল। আনসার আলী, শুকুর আলী ও বাবুলকে ইউনিয়ন পরিষদে তুলে নিয়ে পিটিয়ে, কুপিয়ে ও গুলি করে মারাত্মকভাবে আহত করে। এরপর তাদের তিনজনকে বোরকা পরিয়ে মাইকে ঘোষণা করা হয় যে হত্যার উদ্দেশে তার (শহিদুল) ওপর হামলা করেছে একদল সন্ত্রাসীরা। স্থানীয়রা জানান, মোড়েলগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদে পৌঁছে আহত অবস্থায় তিনজনকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক যুবলীগ নেতা শুকুর আলীকে মৃত ঘোষণা করে। আশঙ্কাকাজনক অবস্থায় আনসার আলী ও বাবুলকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে পথেই মারা যায় আনসার।

 

নিহত আনসার আলী (৫৩) দৈবজ্ঞহাটি গ্রামের আবির শেখের ছেলে এবং শুকুর আলী (৪৫) উপজেলার জোকা গ্রামের মোসলেম শেখের ছেলে। বর্তমানে নিহত আনসার আলীর স্ত্রী মঞ্জু বেগম ঢাকায় ও বাবুল খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তারা আরো জানান, নৌকা প্রতিকে পরপর দুইবার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিল শহিদুল ফকির। ফলে ওই ইউনিয়নে একক আধিপত্যের বিস্তার ছিল তার। আর এই সুযোগে মানুষের ওপর বিভিন্নভাবে অত্যাচার নির্যাতন, অন্যের চিংড়ি মাছের ঘের দখল এবং প্রতিপক্ষকে ঘায়েলের মত নৃসংশ কর্মকাণ্ডে লিপ্ত ছিল শহিদুল। এদিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর থেকেই থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে দৈবজ্ঞহাটি ও পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতে। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» শিক্ষার্থীদের ফাঁসাতে বাসে পরিবহন শ্রমিকের আগুন

» অবশেষে বিয়ে করছেন পর্নো তারকা মিয়া খলিফা!

» রাজধানীতে আবারো ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ স্লোগানে সড়কে শিক্ষার্থীরা

» রাজধানীর বসুন্ধরা বাসে আগুন দেওয়ার সময় চালককে হাতেনাতে ধরলেন শিক্ষার্থীরা!

» বিয়ের সময়ে লম্বা স্বামী আর খাটো স্ত্রীর সংসারই সবচেয়ে সুখের!

» বেনাপোলে “দৈনিক গনমানুষের আওয়াজ” পত্রিকার ৩য় বর্ষ উদযাপন

» জন্ম নেওয়ার পরপরই নবজাতককে ট্রাঙ্কে লুকিয়ে রাখার কারণ জানালেন জাবি ছাত্রী

» বেনাপোল আইসিপি বিজিবির অভিযান ১০ হাজার ইউএস ডলার সহ আটক-১

» নিউজিল্যান্ডে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ‘সেজদা’ দিলেন ২ অমুসলিম ফুটবলার

» রাজধানীর নর্দ্দায় বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নিহত, সড়ক অবরোধ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৫ই চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মোরেলগঞ্জে দুই নেতা হত্যার ঘটনায়: আটক ১২

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট অফিস: বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার অভিযোগে থানায় হত্যা ও অস্ত্র আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় নিহত যুবলীগ নেতা শেখ শুকুর আলীর বড় ভাই ও দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শেখ ফারুক আহম্মেদ বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরসহ ৩১ জনকে আসামি করা হয়েছে। অপর মামলাটি দায়ের করে পুলিশ। অস্ত্র আইনে দায়ের করা এ মামলায় আসামি করা হয়েছে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরসহ ছয়জনকে। এদের মধ্যে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলামকে প্রধান আসামি করা হয়।

 

এ ব্যাপারে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি কে এম আজিজুল ইসলাম বলেন, গত সোমবার জোড়া হত্যার ঘটনায় নিহত শুকুর শেখের ভাই বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দিলে তা এজাহার হিসেবে গন্য করা হয়েছে। ওই মামলায় মোট ৩১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামাও আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়াও থানা ওসি(তদন্ত) ঠাকুর দাস মন্ডল বাদী হয়ে চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনেও একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্তু আটক করা হয়েছে ১২ জনকে। এও জানা গেছে, ঘটনার দিনই পুলিশ অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের লাইসেন্স করা শর্টগানটি জব্দ করে। এ ছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে দেশিয় তৈরি একটি রিভলবার, একটি ওয়ান শুটারগান, রিভলবারের গুলি ২ রাউন্ড, ৬ রাউন্ড কার্তুজ, দুটি রক্তমাখা কুড়াল জব্দ করে পুলিশ।

 

এ বিষয়ে নিহত যুবলীগ নেতা শেখ শুকুর আলীর বড় ভাই ও দৈবজ্ঞহাটী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শেখ ফারুক আহম্মেদ জানান, প্রভাবশালী দুই নেতাকে প্রকাশ্যে দিবালোকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে মোড়েলগঞ্জের দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়নের দুই বারের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকির। গত সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের নিকটবর্তী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী দিহিদারের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে তাকে সেখান থেকে তুলে ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসে শহিদুলের সশস্র ক্যাডার বাহিনী। এ সময় তার স্ত্রী মঞ্জু বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার পাশাপাশি তার একটি পা ভেঙে দেয় হামলাকারীরা। এরপর একই ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা শেখ শুকুর আলী ও স্থানীয় তাঁতী লীগ নেতা বাবুল শেখকে (৪২) দৈবজ্ঞহাটি বাজার থেকে তুলে আনা হয় ওই ইউনিয়ন পরিষদে।

 

তারা আরো জানান, মূলত ওই ইউনিয়ন পরিষদটি স্থানীয়দের কাছে শহিদুল ফকিরের টর্চার সেল হিসেবে পরিচিত। তাদের হত্যার পূর্বে একটি নাটকও সাজিয়েছিল শহিদুল। আনসার আলী, শুকুর আলী ও বাবুলকে ইউনিয়ন পরিষদে তুলে নিয়ে পিটিয়ে, কুপিয়ে ও গুলি করে মারাত্মকভাবে আহত করে। এরপর তাদের তিনজনকে বোরকা পরিয়ে মাইকে ঘোষণা করা হয় যে হত্যার উদ্দেশে তার (শহিদুল) ওপর হামলা করেছে একদল সন্ত্রাসীরা। স্থানীয়রা জানান, মোড়েলগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদে পৌঁছে আহত অবস্থায় তিনজনকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক যুবলীগ নেতা শুকুর আলীকে মৃত ঘোষণা করে। আশঙ্কাকাজনক অবস্থায় আনসার আলী ও বাবুলকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে পথেই মারা যায় আনসার।

 

নিহত আনসার আলী (৫৩) দৈবজ্ঞহাটি গ্রামের আবির শেখের ছেলে এবং শুকুর আলী (৪৫) উপজেলার জোকা গ্রামের মোসলেম শেখের ছেলে। বর্তমানে নিহত আনসার আলীর স্ত্রী মঞ্জু বেগম ঢাকায় ও বাবুল খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তারা আরো জানান, নৌকা প্রতিকে পরপর দুইবার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিল শহিদুল ফকির। ফলে ওই ইউনিয়নে একক আধিপত্যের বিস্তার ছিল তার। আর এই সুযোগে মানুষের ওপর বিভিন্নভাবে অত্যাচার নির্যাতন, অন্যের চিংড়ি মাছের ঘের দখল এবং প্রতিপক্ষকে ঘায়েলের মত নৃসংশ কর্মকাণ্ডে লিপ্ত ছিল শহিদুল। এদিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর থেকেই থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে দৈবজ্ঞহাটি ও পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতে। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited