ওরা তিনেই বিপদমুক্ত প্রধান বাড়ির বিএনপি’র নেতারা!!

কুয়াকাটা নিউজ:-  নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি সংসদ সদস্য শামীম ওসমানকে ফেইসবুকে ওপেন চ্যালেঞ্জ করার সংবাদটি স্থানীয় গনমাধ্যমগুলোতে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিনত হয়েছে। তবে কুয়াকাটা নিউজ ও জাগো নারায়ণগঞ্জ নিউজ পোর্টালের সংবাদ কর্মীদের অনুসন্ধ্যানী সংবাদে পাওয়া গিয়েছে আরও গভীর কিছু তথ্যাবলী। বেয়াদব ও বেপরোয়া মশিউর রহমান রনির পিছনে রয়েছে মামা এনায়েতনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মতিউর রহমান প্রধান,মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মামাতো ভাই হাবিবুর রহমান রিয়াদ,অপর মামাতো ভাই জেলা ছাত্র লীগের সাধারন সম্পাদক রাফেল প্রধান।

 

বৃহত্তর পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,প্রধান বাড়িতে উপরোক্ত তিনজনই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত আর পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বিএনপির একনিস্ট নেতাকর্মী হিসেবেই সুপরিচিতি রয়েছে। মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদের জালালউদ্দিন প্রধান @ জালা প্রধান বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয়। তার দুই চাচাগিয়াসউদ্দিন প্রধান ও জসিমউদ্দিন প্রধান যথাক্রমে মৎস্যজীবি দল ও শ্রসিক দলের রাজনীতিতে ভাইটাল পদের অধিকারী। জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো.রাফেল প্রধানের বাবা মো.কাদির প্রধানও বিএনপির রাজনীতি করেছেন ব্যাপক সুনামের সহিত।রাফেলের চাচাতো ভাই বর্তমানে এনায়েতনগর ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড মেম্বার ও প্যানেল চেয়ারম্যান আতাউর রহমান প্রধান যুবদলের রাজনীতিতে সক্রিয় কর্মী এবং অপর ভাই সাইফুর রহমান প্রধান কাউন্সিলর খোরশেদের আস্থাভাজন মহানগর যুবদলের রাজনীতিতে এখনও সম্পৃক্ত। রাফেল প্রধানের ফুফা মো.মোস্তফা কন্ট্রাকটর অথ্যাৎ রনির বাবা রুপগঞ্জের দাউদপুর ইউনিয়ন বিএনপির ভাইটাল পদের অধিকারী। মতি প্রধান,রিয়াদ প্রধান ও রাফেল প্রধানের নেপথ্য শেল্টার পেয়ে এতদিন মামলা মোকদ্দমা হতে নিরাপদেই ছিল রনিসহ গোষ্ঠির অন্যান্য সদস্যরা। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ও আস্কারা পেয়ে রনি মাথায় উঠে। এ কারনেই জনপ্রিয় এমপি শামীম ওসমানকে হেডাম থাকলে পুলিশ ছাড়া রাজপথে আসুন দেখবো কত হেডাম আছে সহ নানান বাজে মন্তব্য করেন।

 

নাম প্রকাশে অনেকেই জানান,বিএনপি করার অপরাধে নারায়ণগঞ্জসহ সারা দেশে যখন বিএনপির নেতাকর্মীরা একাধিক মামলায় জর্জরিত হয়ে এলাকা ছাড়া তখন ঠিক রিয়াদ রাফেলের আত্নীয় হওয়ার সুবাদে কোন প্রকার মামলা বিহীনভাবেই পরিবার-পরিজন নিয়ে বাসাবাড়িতেই দিন কাটাচ্ছে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে। অথচ প্রায় ৯ বছর পুর্বে স্থানয়ি বিএনপি নেতাকর্মীদের চাপে পড়ে মিছিলে অংশ নিয়ে গত সপ্তাহে ফতুল্লা মডেল থানায় দায়েরকৃত মামলায় জেলে দিনানিপাত করছেন ফতুল্লার কাশিপুর শান্তিনগর এলাকার চা দোকনী চুন্নু দেওয়ান। আবার ঝুট ব্যবসায়ী ও আওয়ামীলীগ নেতা রকমত ওরফে কাইল্লা রকমতের ভাতিজি জামাই এনায়েতনগর ইউনিয়ন ২ নংওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো.সিরাজকে জেল হাজতে যেতে হয়নি বরং স্বসম্মানে তাকে ছেড়ে দেয় ফতুল্লা থানা পুলিশ। অবশ্য সেদিন বিএনপি নেতা সিরাজকে ছাড়িয়ে থানায় ছুটে গিয়েছিলেন এনায়েতনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো.আসাদুজ্জামানসহ অনেক আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

 

আবদুল হামিদ নামে পশ্চিম মাসদাইর এলাকার এক যুবক জানান,রনি’রা রিয়াদ রাফেলের আত্নীয় তাই ওদের জন্য বিএনপি করা জায়েজ। যদি তাই না হতো তাহলে দেশব্যাপী পুলিশ যেভাবে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করছে সেখানে রিয়াদ,রাফেলের বাপ-চাচারাও আসামী হতো। কিন্তু ওনাদের জন্য আর্শিবাদ হলো মতি.রিয়াদ ও রাফেল কারন তারা আওয়ামীলীগ করেন। ক্ষোভের সাথে যে আরো বলেন, এযেন আওয়ামীলীগের ছায়াতলে বিএনপির নিরাপদ ‘বসবাস’।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» জাতীয় পার্টির মনোনয়নপত্র কিনলেন হিরো আলম

» খালেদার জন্য ৩ আসনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ

» বিএনপির হাল ধরতে আসছেন ডা. জোবাইদা রহমান!

» মহাজোটের শরিক হিসেবেই নির্বাচনে অংশ নেবে জাপা

» নির্বাচন ৩০ ডিসেম্বর, পুনঃতফসিল ঘোষণা

» আগৈলঝাড়ায় যথাযোগ্য মর্যাদায় যুবলীগের ৪৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

» কলাপাড়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

» পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী আগামী ২১ নভেম্বর

» ঐক্যফ্রন্ট ও জোটকে ৮০ আসন দিতে চায় বিএনপি

» মাশরাফির মনোনয়নে নড়াইলে আনন্দ

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ২৯শে কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ওরা তিনেই বিপদমুক্ত প্রধান বাড়ির বিএনপি’র নেতারা!!

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

কুয়াকাটা নিউজ:-  নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি সংসদ সদস্য শামীম ওসমানকে ফেইসবুকে ওপেন চ্যালেঞ্জ করার সংবাদটি স্থানীয় গনমাধ্যমগুলোতে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিনত হয়েছে। তবে কুয়াকাটা নিউজ ও জাগো নারায়ণগঞ্জ নিউজ পোর্টালের সংবাদ কর্মীদের অনুসন্ধ্যানী সংবাদে পাওয়া গিয়েছে আরও গভীর কিছু তথ্যাবলী। বেয়াদব ও বেপরোয়া মশিউর রহমান রনির পিছনে রয়েছে মামা এনায়েতনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মতিউর রহমান প্রধান,মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মামাতো ভাই হাবিবুর রহমান রিয়াদ,অপর মামাতো ভাই জেলা ছাত্র লীগের সাধারন সম্পাদক রাফেল প্রধান।

 

বৃহত্তর পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,প্রধান বাড়িতে উপরোক্ত তিনজনই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত আর পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বিএনপির একনিস্ট নেতাকর্মী হিসেবেই সুপরিচিতি রয়েছে। মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদের জালালউদ্দিন প্রধান @ জালা প্রধান বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয়। তার দুই চাচাগিয়াসউদ্দিন প্রধান ও জসিমউদ্দিন প্রধান যথাক্রমে মৎস্যজীবি দল ও শ্রসিক দলের রাজনীতিতে ভাইটাল পদের অধিকারী। জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো.রাফেল প্রধানের বাবা মো.কাদির প্রধানও বিএনপির রাজনীতি করেছেন ব্যাপক সুনামের সহিত।রাফেলের চাচাতো ভাই বর্তমানে এনায়েতনগর ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড মেম্বার ও প্যানেল চেয়ারম্যান আতাউর রহমান প্রধান যুবদলের রাজনীতিতে সক্রিয় কর্মী এবং অপর ভাই সাইফুর রহমান প্রধান কাউন্সিলর খোরশেদের আস্থাভাজন মহানগর যুবদলের রাজনীতিতে এখনও সম্পৃক্ত। রাফেল প্রধানের ফুফা মো.মোস্তফা কন্ট্রাকটর অথ্যাৎ রনির বাবা রুপগঞ্জের দাউদপুর ইউনিয়ন বিএনপির ভাইটাল পদের অধিকারী। মতি প্রধান,রিয়াদ প্রধান ও রাফেল প্রধানের নেপথ্য শেল্টার পেয়ে এতদিন মামলা মোকদ্দমা হতে নিরাপদেই ছিল রনিসহ গোষ্ঠির অন্যান্য সদস্যরা। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ও আস্কারা পেয়ে রনি মাথায় উঠে। এ কারনেই জনপ্রিয় এমপি শামীম ওসমানকে হেডাম থাকলে পুলিশ ছাড়া রাজপথে আসুন দেখবো কত হেডাম আছে সহ নানান বাজে মন্তব্য করেন।

 

নাম প্রকাশে অনেকেই জানান,বিএনপি করার অপরাধে নারায়ণগঞ্জসহ সারা দেশে যখন বিএনপির নেতাকর্মীরা একাধিক মামলায় জর্জরিত হয়ে এলাকা ছাড়া তখন ঠিক রিয়াদ রাফেলের আত্নীয় হওয়ার সুবাদে কোন প্রকার মামলা বিহীনভাবেই পরিবার-পরিজন নিয়ে বাসাবাড়িতেই দিন কাটাচ্ছে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে। অথচ প্রায় ৯ বছর পুর্বে স্থানয়ি বিএনপি নেতাকর্মীদের চাপে পড়ে মিছিলে অংশ নিয়ে গত সপ্তাহে ফতুল্লা মডেল থানায় দায়েরকৃত মামলায় জেলে দিনানিপাত করছেন ফতুল্লার কাশিপুর শান্তিনগর এলাকার চা দোকনী চুন্নু দেওয়ান। আবার ঝুট ব্যবসায়ী ও আওয়ামীলীগ নেতা রকমত ওরফে কাইল্লা রকমতের ভাতিজি জামাই এনায়েতনগর ইউনিয়ন ২ নংওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো.সিরাজকে জেল হাজতে যেতে হয়নি বরং স্বসম্মানে তাকে ছেড়ে দেয় ফতুল্লা থানা পুলিশ। অবশ্য সেদিন বিএনপি নেতা সিরাজকে ছাড়িয়ে থানায় ছুটে গিয়েছিলেন এনায়েতনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো.আসাদুজ্জামানসহ অনেক আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

 

আবদুল হামিদ নামে পশ্চিম মাসদাইর এলাকার এক যুবক জানান,রনি’রা রিয়াদ রাফেলের আত্নীয় তাই ওদের জন্য বিএনপি করা জায়েজ। যদি তাই না হতো তাহলে দেশব্যাপী পুলিশ যেভাবে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করছে সেখানে রিয়াদ,রাফেলের বাপ-চাচারাও আসামী হতো। কিন্তু ওনাদের জন্য আর্শিবাদ হলো মতি.রিয়াদ ও রাফেল কারন তারা আওয়ামীলীগ করেন। ক্ষোভের সাথে যে আরো বলেন, এযেন আওয়ামীলীগের ছায়াতলে বিএনপির নিরাপদ ‘বসবাস’।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited