বিএনপির কোনো শর্তই পূরণ হবে না: খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে কয়েকটি শর্ত দিয়েছে। তারা বলেছে, সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারসহ খালেদা জিয়ার মুক্তি দিতে হবে। তাদের এই শর্তের কোনোটি পূরণ হবে না। সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন হবে। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘গণতন্ত্রের মানসপূত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ১২৫তম জন্মবার্ষিকী ও গণতন্ত্রের মানসকণ্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা’ শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট।

 

এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। তাই তার মুক্তি দেবেন আদালত। এখানে সরকারের কোনো হাত নেই। আর আওয়ামী লীগ সরকার আদালতের ওপর কোনো ফরমায়েসী আদেশও করে না। করতেও চায় না। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে খালেদা জিয়ার মুক্তির শর্ত দিয়েছেন। এটা কখনই পূরণ হওয়ার নয়। গণতন্ত্র রক্ষায় সংবিধান অনুযায়ী যথা সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গণতন্ত্রকে কোনোভাবেই হত্যা করতে দেওয়া যাবে না।

 

তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচনকে বানচাল করার লক্ষ্যে দেশকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিতে চায়। তারা গণতন্ত্রকে গলা টিপে হত্যা করতে চায়। গত দশ সংসদ নির্বাচনের আগে দেশে বিএনপি যে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়েছিল, তারা এখনও সেই পথে হাটতে চায়। কিন্তু সরকার সেই সুযোগ কখনই দেবে না। গত নির্বাচনে বিএনপিকে বাদ দিয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয় লাভ করে পাঁচ বছর পূর্ণ করতে চলছে। তাই নির্বাচনে বিএনপি আসবে কি আসবে না তা তাদের বিষয়। বিএনপির বড় বড় সব নেতারাই অতিবামরা। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে অন্তত পক্ষে বিরোধী দলের আসনে বসতে পারে। আর যদি নির্বাচনে না আসে তাদের অস্তিত্ব বিলিন হয়ে যাবে। মুসলিম লীগের চেয়েও করুণ অবস্থা হবে।

 

সম্প্রতি গঠিত যুক্তফ্রন্টের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ড. কামাল হোসেন, আ স ম আব্দুর রব, বি চৌধুরী, কাদের ছিদ্দিকী ও মাহমুদুর রহমান মান্নারা মুক্তি যুদ্ধের পক্ষের শক্তি হলেও এখন দেশকে ভিন্ন দিকে নিয়ে যেতে চাইছেন। তারা স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তিকে মদদ দিয়ে যাচ্ছেন। এর এখন ক্ষমতার লোভে একে অপরের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি ও কে কোন মন্ত্রী হবেন তা নিয়ে দরকষাকষি করছেন। এটাই তাদের ভুল। বিগত দিনে রাজনীতির সঠিক পথ পরিহার করেছেন বলেই আজকে তাদের এই অবস্থা। তারা রাজনীতিতে দড়াতে পারেনি। এখন তারা বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে গাটছাড়া বাধতে চাইছেন।

 

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু এমপি, এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনূস এমপি, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল, মহাসচিব শাবান মাহমুদ, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, শাহ আলম, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও মুখপাত্র অরুণ সরকার রানা, সাংবাদিক সমীরণ রায়, বৃষ্টি রানী সরকার, মিজানুর রহমান বিটু, হাবিবুল্লাহ রিপন, অভিনেত্রী পারুল আক্তার লোপা, সনিয়া পারভিন শাপলা, মাধবী সরকার, রোকন উদ্দিন পাঠান প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

সর্বশেষ আপডেট



» এসআই শাফিউলকে নিয়ে আপত্তির স্ট্যাটাসের ‘অনিক’ ভিপি রিয়াদের চাচাতো ভাই!!

» আশুরা উপলক্ষে সৈয়দপুর দাফন কমিটির ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল

» কাশিপুরে চাদাঁবাজ আওয়ালগংদের হামলায় ব্যাংকার পরিবারের ৪ জন আহত

» জলবায়ু ও সমুদ্রের বৈরী আচরণে ধ্বংস হচ্ছে কুয়াকাটার প্রকৃতি বিলুপ্তির পথে জাতীয় উদ্যান

» গোপালগঞ্জে শিল্প ও বানিজ্য মেলার উদ্বোধন

» গোপালগঞ্জে বিদেশী পিস্তল ও গুলিসহ কুক্ষাত মাদক সম্রাট আটক

» গোপালগঞ্জে ট্রাকচাপায় প্রভাষক নিহত ১ : আহত ৩

» গোপালগঞ্জে ওসির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মলনে সোস্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড়

» ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

» বাগেরহাটে দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১৫

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিএনপির কোনো শর্তই পূরণ হবে না: খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেছেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে কয়েকটি শর্ত দিয়েছে। তারা বলেছে, সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারসহ খালেদা জিয়ার মুক্তি দিতে হবে। তাদের এই শর্তের কোনোটি পূরণ হবে না। সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন হবে। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘গণতন্ত্রের মানসপূত্র হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ১২৫তম জন্মবার্ষিকী ও গণতন্ত্রের মানসকণ্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা’ শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট।

 

এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। তাই তার মুক্তি দেবেন আদালত। এখানে সরকারের কোনো হাত নেই। আর আওয়ামী লীগ সরকার আদালতের ওপর কোনো ফরমায়েসী আদেশও করে না। করতেও চায় না। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে খালেদা জিয়ার মুক্তির শর্ত দিয়েছেন। এটা কখনই পূরণ হওয়ার নয়। গণতন্ত্র রক্ষায় সংবিধান অনুযায়ী যথা সময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গণতন্ত্রকে কোনোভাবেই হত্যা করতে দেওয়া যাবে না।

 

তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচনকে বানচাল করার লক্ষ্যে দেশকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিতে চায়। তারা গণতন্ত্রকে গলা টিপে হত্যা করতে চায়। গত দশ সংসদ নির্বাচনের আগে দেশে বিএনপি যে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়েছিল, তারা এখনও সেই পথে হাটতে চায়। কিন্তু সরকার সেই সুযোগ কখনই দেবে না। গত নির্বাচনে বিএনপিকে বাদ দিয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয় লাভ করে পাঁচ বছর পূর্ণ করতে চলছে। তাই নির্বাচনে বিএনপি আসবে কি আসবে না তা তাদের বিষয়। বিএনপির বড় বড় সব নেতারাই অতিবামরা। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে অন্তত পক্ষে বিরোধী দলের আসনে বসতে পারে। আর যদি নির্বাচনে না আসে তাদের অস্তিত্ব বিলিন হয়ে যাবে। মুসলিম লীগের চেয়েও করুণ অবস্থা হবে।

 

সম্প্রতি গঠিত যুক্তফ্রন্টের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ড. কামাল হোসেন, আ স ম আব্দুর রব, বি চৌধুরী, কাদের ছিদ্দিকী ও মাহমুদুর রহমান মান্নারা মুক্তি যুদ্ধের পক্ষের শক্তি হলেও এখন দেশকে ভিন্ন দিকে নিয়ে যেতে চাইছেন। তারা স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তিকে মদদ দিয়ে যাচ্ছেন। এর এখন ক্ষমতার লোভে একে অপরের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি ও কে কোন মন্ত্রী হবেন তা নিয়ে দরকষাকষি করছেন। এটাই তাদের ভুল। বিগত দিনে রাজনীতির সঠিক পথ পরিহার করেছেন বলেই আজকে তাদের এই অবস্থা। তারা রাজনীতিতে দড়াতে পারেনি। এখন তারা বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে গাটছাড়া বাধতে চাইছেন।

 

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু এমপি, এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনূস এমপি, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল, মহাসচিব শাবান মাহমুদ, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, শাহ আলম, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও মুখপাত্র অরুণ সরকার রানা, সাংবাদিক সমীরণ রায়, বৃষ্টি রানী সরকার, মিজানুর রহমান বিটু, হাবিবুল্লাহ রিপন, অভিনেত্রী পারুল আক্তার লোপা, সনিয়া পারভিন শাপলা, মাধবী সরকার, রোকন উদ্দিন পাঠান প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited