সেই ১২ শিক্ষার্থীকে শিবির কর্মী দাবি করে গ্রেফতার দেখাল পুলিশ

সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে একে অপরকে ‘তুই’ সম্বোধন করায় রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান চেয়ারম্যানবাড়ির নগরিয়া এলাকায় হত্যা করা হয় মেহেদী হাসান শুভকে। গত ৩১ আগস্ট তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। ঘটনায় জড়িত আটজনকে গ্রেফতারের পর হত্যার এই কারণ সম্পর্কে জানা গেছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপকমিশনার মাসুদুর রহমান।

আজ রবিবার( ৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি ) এর মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মাসুদুর রহমান । ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান জানান, দক্ষিণখানের ওই এলাকায় দুটি টিনেজ গ্রুপ সক্রিয় ছিল। একটি শান্ত ও অপরটি আরাফাত গ্রুপ। নিহত মেহেদী শান্ত গ্রুপের ছিল। ঘটনার কিছুদিন আগে আরাফাত গ্রুপের এক সদস্য কাউসার মেহেদীকে ‘তুই’ বলে সম্বোধন করে। এই তুই বলার জেরে শান্ত গ্রুপের ছেলেরা আরাফাত গ্রুপের কাউসারকে মারধর করে। এরপর ১৮ আগস্ট আবারও শান্ত গ্রুপের সদস্যরা আরাফাত গ্রুপের সাইফকে মারধর করে। এর পরপরই পরিকল্পনা অনুযায়ী ৩১ আগস্ট স্থানীয় সংসদ সদস্যের প্রোগ্রামে মিছিল নিয়ে আসার পর মেহেদীর ওপর হামলা চালায় আরাফাত গ্রুপের সদস্যরা।

ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজ ও গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে মাসুদুর রহমান জানান, আসামিদের মধ্যে সানি ও সোহেল মেহেদীকে জড়িয়ে ধরে এবং সাইফ চাকু দিয়ে মেহেদীর বাম কানের নিচে স্টেপ করে এবং অন্যরা লাঠি দিয়ে আঘাত করে। আহত অবস্থায় মেহেদীকে প্রথমে কেসি হাসপাতাল ও পরবর্তীতে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। এ ঘটনায় ১ সেপ্টেম্বর নিহতের বাবা বাদী হয়ে দক্ষিণখান থানায় মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় থানা পুলিশের পাশাপাশি ছায়া তদন্ত শুরু করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ ও নিজস্ব ইন্টিলিজেন্স ব্যবহার করে আসামিদের সিলেট ও দিনাজপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান মাসুদুর রহমান।

 

মাসুদুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তাররা হলেন- সাইফ, মনির, আরাফাত, সাইফুল, মেহরাব, আপেল, সিফাত, সোহেল।এ সময় তাদের কাছ থেকে ৭টি ব‍্যবহারিত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। এবং এই মামলার প্রধান আসামি সাইফ এর কাছ থেকে একটি সুইচ গিয়ার চাকু উদ্ধার করা হয়।
মাসুদুর রহমান জানান, এ এলাকায় উঠতি বয়সী ছেলেরা বেশ কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত। গ্রুপ গুলো হলো- জিম জিয়াদ গ্রুপ, শান্ত গ্রুপ, আরাফাত গ্রুপ, কামাল গ্রুপ, আনছার গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে। এরাই এলাকায় চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, ছিনতাই, হত্যাকাণ্ড সহ নানা ধরনের অপরাধে সঙ্গে জড়িত।
উল্লেখ্য, ১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর উত্তরায় সিনিয়র জুনিয়র দ্বন্দ্বে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কিশোর মেহেদী হাসানকে (১৭) পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। আহত অবস্থায় মেহেদীকে প্রথমে কেসি হাসপাতাল ও পরবর্তীতে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সেই দিন নিহতের বাবা বাদী হয়ে দক্ষিণখান থানায় মামলা দায়ের করে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» ঝিনাইদহে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ র‌্যাবের অভিযান, রাইফেল উদ্ধার

» মিয়ানমারকে অবশ্যই রোহিঙ্গা নাগরিকদের নিজদেশে ফেরত নিতে হবে: ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত

» ১৩ ধাপ এগিয়ে ক্যারিয়ার সেরা র‌্যাংক এ মুশফিকুর রহিম

» গণমাধ্যমে মন্তব্য করতে পারবেন না পর্যবেক্ষকরা

» পর্ন ওয়েবসাইট বন্ধ কি সম্ভব?

» ৩০০ আসনে প্রার্থী দেওয়ার সামর্থ্য আমাদের আছে

» শিকাগোর হাসপাতালে বন্দুক হামলায় ৩ জন নিহত

» কুয়াকাটায় ২১ নভেম্বর থেকে তিনদিন ব্যাপী গঙ্গাস্নান ও রাসমেলা শুরু হবে

» কলাপাড়ায় বিপুল পরিমান জাটকা জব্দ

» বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবা ও চিকিৎসা খাতে উন্নয়ন

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সেই ১২ শিক্ষার্থীকে শিবির কর্মী দাবি করে গ্রেফতার দেখাল পুলিশ

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে একে অপরকে ‘তুই’ সম্বোধন করায় রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান চেয়ারম্যানবাড়ির নগরিয়া এলাকায় হত্যা করা হয় মেহেদী হাসান শুভকে। গত ৩১ আগস্ট তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। ঘটনায় জড়িত আটজনকে গ্রেফতারের পর হত্যার এই কারণ সম্পর্কে জানা গেছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপকমিশনার মাসুদুর রহমান।

আজ রবিবার( ৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি ) এর মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মাসুদুর রহমান । ডিএমপি মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান জানান, দক্ষিণখানের ওই এলাকায় দুটি টিনেজ গ্রুপ সক্রিয় ছিল। একটি শান্ত ও অপরটি আরাফাত গ্রুপ। নিহত মেহেদী শান্ত গ্রুপের ছিল। ঘটনার কিছুদিন আগে আরাফাত গ্রুপের এক সদস্য কাউসার মেহেদীকে ‘তুই’ বলে সম্বোধন করে। এই তুই বলার জেরে শান্ত গ্রুপের ছেলেরা আরাফাত গ্রুপের কাউসারকে মারধর করে। এরপর ১৮ আগস্ট আবারও শান্ত গ্রুপের সদস্যরা আরাফাত গ্রুপের সাইফকে মারধর করে। এর পরপরই পরিকল্পনা অনুযায়ী ৩১ আগস্ট স্থানীয় সংসদ সদস্যের প্রোগ্রামে মিছিল নিয়ে আসার পর মেহেদীর ওপর হামলা চালায় আরাফাত গ্রুপের সদস্যরা।

ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজ ও গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে মাসুদুর রহমান জানান, আসামিদের মধ্যে সানি ও সোহেল মেহেদীকে জড়িয়ে ধরে এবং সাইফ চাকু দিয়ে মেহেদীর বাম কানের নিচে স্টেপ করে এবং অন্যরা লাঠি দিয়ে আঘাত করে। আহত অবস্থায় মেহেদীকে প্রথমে কেসি হাসপাতাল ও পরবর্তীতে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। এ ঘটনায় ১ সেপ্টেম্বর নিহতের বাবা বাদী হয়ে দক্ষিণখান থানায় মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় থানা পুলিশের পাশাপাশি ছায়া তদন্ত শুরু করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ ও নিজস্ব ইন্টিলিজেন্স ব্যবহার করে আসামিদের সিলেট ও দিনাজপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান মাসুদুর রহমান।

 

মাসুদুর রহমান বলেন, গ্রেপ্তাররা হলেন- সাইফ, মনির, আরাফাত, সাইফুল, মেহরাব, আপেল, সিফাত, সোহেল।এ সময় তাদের কাছ থেকে ৭টি ব‍্যবহারিত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। এবং এই মামলার প্রধান আসামি সাইফ এর কাছ থেকে একটি সুইচ গিয়ার চাকু উদ্ধার করা হয়।
মাসুদুর রহমান জানান, এ এলাকায় উঠতি বয়সী ছেলেরা বেশ কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত। গ্রুপ গুলো হলো- জিম জিয়াদ গ্রুপ, শান্ত গ্রুপ, আরাফাত গ্রুপ, কামাল গ্রুপ, আনছার গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে। এরাই এলাকায় চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, ছিনতাই, হত্যাকাণ্ড সহ নানা ধরনের অপরাধে সঙ্গে জড়িত।
উল্লেখ্য, ১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর উত্তরায় সিনিয়র জুনিয়র দ্বন্দ্বে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কিশোর মেহেদী হাসানকে (১৭) পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। আহত অবস্থায় মেহেদীকে প্রথমে কেসি হাসপাতাল ও পরবর্তীতে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সেই দিন নিহতের বাবা বাদী হয়ে দক্ষিণখান থানায় মামলা দায়ের করে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited