ফতুল্লায় চোরদের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাসিন্দারা

সাদ্দাম হোসেন শুভ:- নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার কুতুবপুরের নন্দলালপুর ও নয়ামাটিতে হঠাৎ করে চোরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাসিন্দারা।

 

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কুতুবপুরে চোরদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে নয়ামাটি এলাকার দুলালের ছেলে আলমগীর(ফুলা) নয়ামাটি চিতাশাল এলাকার কাজল,দঃনয়ামাটি কবরস্থান রোডের রানা,পশ্চিম নন্দলালপুর রেললাইনের সাগর(চোর সাগর) পশ্চিম নন্দলালপুরের সোহেল(লালখাঁ)পশ্চিম নন্দলালপুরের সোর্স আসিফ,নন্দলালপুর মোল্লাবাড়ীর দ্বিপু,নন্দলালপুর উত্তর মহল্লার সোহেল(চোর সোহেল)নন্দলালপুর বটতলা এলাকার আব্বাস(হিরনছি আব্বাস)পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকার সোর্স নিশাদ দেলপাড়া টাওয়ারপাড় এলাকার শফিক(চোর শফিক)জালকুড়ী এলাকার শাইজুদ্দিন(সূর্যা)সহ আরো প্রাই অর্ধশত চোর নিয়ন্ত্রণ করছে এলাকার দুইটি প্রভাবশালী গ্রুপের মাধ্যমে। প্রতিদিন কোন না কোন এলাকায় চুরি হচ্ছে।

 

এক শ্রেণির উঠতি বয়সি নেশাগ্রস্ত যুবকরা এ সব কাজ করছে বলে এলাকাবাসী মনে করছেন। গরম বৃদ্ধি পাওয়ায় বাড়ির মালিকরা জানালা খুলে ঘুমালে জানালা দিয়ে মোবাইল ও গুরুত্বপূর্ণ জিনিস নিয়ে চম্পট দিচ্ছে চোরেরা। তাছাড়া রাতে বাইরে কোন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র রাখলে সাকালে উঠে তা আর পাওয়া যাচ্ছে না। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, প্রায় প্রত্যেক রাতে আলীগঞ্জ থেকে পাগলা রেলস্টেশন এর রেলপথের মাঝামাঝি পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকায় মোবাইল চুরি ছিনতাই এর ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে।

 

এখানে কিছু নেশাগ্রস্ত যুবক রাতে চারিদিকে ঘুরে বেড়ায়। তারা কোন বাড়ির জানালা খোলা বা বাহিরে কোন জিনিস আছে দেখলেই তা চুরি করে নিয়ে যায়। তাছাড়া এই এলাকায় বাসা বাড়ি বেশি হওয়ায় প্রতিদিন চুরি হচ্ছে। বিশেষ করে চোরেরা প্রতিদিনের মাদক সেবনের ব্যয়বহুল অর্থের জুগান দিতে তারা চুরি করছে। চোরেরা ফলো করে থাকে কোন ব্যক্তি কখন বাইরে যাচ্ছে। সুযোগ পলেই তারা জানালা দরজা ভেঙে সব কিছু চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে। গত এক মাসের ব্যাবধানে অত্রাঞ্চল থেকে প্রাই এক দেড়শত মোবাইল ফোন সেট ও ল্যাপটপ সহ ঘরে থাকা স্বর্ণঅলংকার নগত টাকাকড়ি কৌশলসম্পন্ন ভাবে বাড়ীর দরজা জানালা ভেঙে অসংখ্য ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস চুরি হয়ে যাচ্ছে ।

 

নয়ামাটি ও নন্দলালপুর এলাকায় চোরদের বেশ কয়েকটি চক্র রয়েছে। এরা গ্রাম অঞ্চল থেকে আসা নিরিহ মানুষকে মারপিট ও ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক মোবাইল ও টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এদের ভয়ে এলাকায় কেউ কথা বলতে পারে না। কারন কিছু সংখ্যক চোর আছে তাদেরকে যাবতীয় সকল সুযোগ সুবিধা দিতে ব্যর্থ হলে অন্য আরএকটি চক্রেরের কাছে বিশাল অর্থের বিনিময়ে বিক্রি হয়ে যাবে তারা। তাদের শেল্টার দিতে সহযোগিতা করে থাকে কিছুসংখ্যক নামধারী পুলিশের সোর্স এলাকার ভাংঙারী দোকান মালিক ও পাইকারী মাদক ব্যবসায়ীরা।

 

অত্র এলাকাবাসী চোরদের উপদ্রব থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

সর্বশেষ আপডেট



» ফতুল্লায় ছিচকে সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

» গোপালগঞ্জে ১৭টি দেশীয় অস্ত্র ও মোটরসাইকেলসহ গ্রেপ্তার ৪

» কলাপাড়ায় এক বছরের জন্য মহিপুর থানা ও কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগের দু’টি নতুন কমিটির অনুমোদন

» নৌকা মার্কায় ভোট চাইলেন মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আলাউদ্দিন আহম্মেদ

» বেনাপোলের পাঠবাড়ি দুইদিন ব্যাপি নির্জন উৎসব সমাপ্ত

» বাগেরহাটে মোরেলগঞ্জে রবি’র বিক্রয় প্রতিনিধিকে মারপিট করে টাকা মোবাইল ছিনতাই

» সাপাহারে উন্নয়ন মেলা উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» সাপাহারে মীনা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা, র‌্যালী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

» কারাবন্দি খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে রিটের শুনানি মঙ্গলবার

» লন্ডনে  বিএনপি ও স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

 



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ফতুল্লায় চোরদের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাসিন্দারা

সাদ্দাম হোসেন শুভ:- নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার কুতুবপুরের নন্দলালপুর ও নয়ামাটিতে হঠাৎ করে চোরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাসিন্দারা।

 

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কুতুবপুরে চোরদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে নয়ামাটি এলাকার দুলালের ছেলে আলমগীর(ফুলা) নয়ামাটি চিতাশাল এলাকার কাজল,দঃনয়ামাটি কবরস্থান রোডের রানা,পশ্চিম নন্দলালপুর রেললাইনের সাগর(চোর সাগর) পশ্চিম নন্দলালপুরের সোহেল(লালখাঁ)পশ্চিম নন্দলালপুরের সোর্স আসিফ,নন্দলালপুর মোল্লাবাড়ীর দ্বিপু,নন্দলালপুর উত্তর মহল্লার সোহেল(চোর সোহেল)নন্দলালপুর বটতলা এলাকার আব্বাস(হিরনছি আব্বাস)পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকার সোর্স নিশাদ দেলপাড়া টাওয়ারপাড় এলাকার শফিক(চোর শফিক)জালকুড়ী এলাকার শাইজুদ্দিন(সূর্যা)সহ আরো প্রাই অর্ধশত চোর নিয়ন্ত্রণ করছে এলাকার দুইটি প্রভাবশালী গ্রুপের মাধ্যমে। প্রতিদিন কোন না কোন এলাকায় চুরি হচ্ছে।

 

এক শ্রেণির উঠতি বয়সি নেশাগ্রস্ত যুবকরা এ সব কাজ করছে বলে এলাকাবাসী মনে করছেন। গরম বৃদ্ধি পাওয়ায় বাড়ির মালিকরা জানালা খুলে ঘুমালে জানালা দিয়ে মোবাইল ও গুরুত্বপূর্ণ জিনিস নিয়ে চম্পট দিচ্ছে চোরেরা। তাছাড়া রাতে বাইরে কোন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র রাখলে সাকালে উঠে তা আর পাওয়া যাচ্ছে না। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, প্রায় প্রত্যেক রাতে আলীগঞ্জ থেকে পাগলা রেলস্টেশন এর রেলপথের মাঝামাঝি পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকায় মোবাইল চুরি ছিনতাই এর ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে।

 

এখানে কিছু নেশাগ্রস্ত যুবক রাতে চারিদিকে ঘুরে বেড়ায়। তারা কোন বাড়ির জানালা খোলা বা বাহিরে কোন জিনিস আছে দেখলেই তা চুরি করে নিয়ে যায়। তাছাড়া এই এলাকায় বাসা বাড়ি বেশি হওয়ায় প্রতিদিন চুরি হচ্ছে। বিশেষ করে চোরেরা প্রতিদিনের মাদক সেবনের ব্যয়বহুল অর্থের জুগান দিতে তারা চুরি করছে। চোরেরা ফলো করে থাকে কোন ব্যক্তি কখন বাইরে যাচ্ছে। সুযোগ পলেই তারা জানালা দরজা ভেঙে সব কিছু চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে। গত এক মাসের ব্যাবধানে অত্রাঞ্চল থেকে প্রাই এক দেড়শত মোবাইল ফোন সেট ও ল্যাপটপ সহ ঘরে থাকা স্বর্ণঅলংকার নগত টাকাকড়ি কৌশলসম্পন্ন ভাবে বাড়ীর দরজা জানালা ভেঙে অসংখ্য ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস চুরি হয়ে যাচ্ছে ।

 

নয়ামাটি ও নন্দলালপুর এলাকায় চোরদের বেশ কয়েকটি চক্র রয়েছে। এরা গ্রাম অঞ্চল থেকে আসা নিরিহ মানুষকে মারপিট ও ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক মোবাইল ও টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এদের ভয়ে এলাকায় কেউ কথা বলতে পারে না। কারন কিছু সংখ্যক চোর আছে তাদেরকে যাবতীয় সকল সুযোগ সুবিধা দিতে ব্যর্থ হলে অন্য আরএকটি চক্রেরের কাছে বিশাল অর্থের বিনিময়ে বিক্রি হয়ে যাবে তারা। তাদের শেল্টার দিতে সহযোগিতা করে থাকে কিছুসংখ্যক নামধারী পুলিশের সোর্স এলাকার ভাংঙারী দোকান মালিক ও পাইকারী মাদক ব্যবসায়ীরা।

 

অত্র এলাকাবাসী চোরদের উপদ্রব থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited