গলাচিপায় প্রতিপক্ষকে হয়রাানির চেষ্টা

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা: মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার চেষ্টা করছে প্রতিপক্ষকে। দেলোয়ার হোসেন নামের এক ব্যক্তি অন্যের ভূমি দখল করে দোকান নির্মান করে একদিন পরই সেই দোকান নিজে ও তার দলবল দিয়ে ভেঙ্গে প্রকৃত জমির মালিককে আদালতে ভাংচুর ও লুটের মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে স্থানীয় শত শত লোকের অভিযোগ।

 

দোকান ভাংচুর ও লুটের ঘটনায় গলাচিপা আদালতে মহিলাসহ ৭জনের বিরুদ্ধে মামলা করলে বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে গলাচিপা অফিসার ইনচার্জকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য নির্দেশ দেন আদালত। জানা গেছে, গলাচিপা উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের কুমার খালী বাজারের হাসেম আলী সিকদার ও কাজেম আলী সিকদারের নামে তিন একর রেকর্ডীয় সম্পত্তি রয়েছে। যার ১৫৭ নং এসএ খতিয়ানে দাগ নং ৪৫৮৯, ৪৫৪৮, ৪৬০১ ও ৪৬০৩ রয়েছে। তাদের বংশীয় উত্তরাধিকার হিসেবে বাদশা সিকদারগংরা ভোগ দখলে আছে। একই এলাকার হায়দর আলী খানের পুত্র মো: দেলোয়ার হোসেন খান কুমার খালী বাজারের বাদশা সিকদার গংদের ঐ ভূমির উপর নজর পড়ে। মো: দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে গত ১২মার্চ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

 

তিনি মামলায় বলেন ১১মার্চ ফজরের সময় তার দোকানে আসামীরা অনধিকার প্রবেশ করে ড্রয়ার ভেঙ্গে ২লক্ষ ৫০হাজার টাকা ও ২০পিচ মোবাইল সেট নিয়ে যায়। অজ্ঞাত নামা কয়েক আসামীগন দোকান ভেঙ্গে ১লক্ষ ২০হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। দোকান ভালই চলছি বলে মামলায় উল্লেখ থাকায় সেখানে গিয়ে সরেজমিনে দেখা যায় ভিটির উপর মরিচ চাড়া লাগানো আছে। গলাচিপা কলাগাছিয়া ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো: ফকরুল ঢালী জানান, কুমার খালী বাজারে দোকান ভাঙ্গা ও লুটের কোন ঘটনা ঘটেনি। তবে বাদী দেলোয়ার হোসেন নিজে বাদশা সিকদার গং দের ভূমি দখল করে শুক্রবার গভীর রাতে দোকান ঘর তোলেন। তা আবার এক দিনের মাথায় রবিবার গভীর রাতে বাদী দলবল নিয়ে নিজেরাই দোকান ভেঙ্গে দেয়। অথচ যাদের জমি তাদেরকেই জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দেন বলে স্থানীয় আলমগীর ঢালী, মোকলেছুর রহমান ও দুলাল গাজী জানান।

 

কলাগাছিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ (চকিদার) মো; নুর হোসেন জানান, তিনি দিনে রাতে কুমার খালী বাজারে থাকেন, এখানে দোকান ভাঙ্গা, লুটের কোন ঘটনা ঘটে নাই। বাদী দেলোয়ার হোসেন বাদশাগংদের ভূমিতে দোকান উঠিয়ে বেকাদায় পড়ায় তা আবার নিজেরাই ভেঙ্গে সড়কের পাশে রেখে দেন । এ ব্যাপারে কলাগাছিয়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: ইলিয়াস জানান, দোকান ভাংচুর ও টাকা লুট এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি ,তবে ঘটনা ঘটলে জানতাম।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» কুয়াকাটায় যথাযথ মর্যাদায় মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে

» দশমিনায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

» দশমিনায় প্রানী সম্পদ অধিদপ্তরে ভাষা দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন হয়নি

» যশোরের বেনাপোলে ফেন্সিডিলসহ মহিলা ব্যবসায়ী আটক

» আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবসে বেনাপোল নোম্যান্সল্যান্ডে দুই বাংলার মিলন মেলা

» বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে ভাষা শহীদদেও প্রতি শ্রদ্ধা

» বান্দরবানের রুমায় বিষ পানে পাড়া প্রধানের আত্মহত্যা

» গলাচিপায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালিত

» পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা সৈকতে পতাকা বিক্রেতা মো.গিয়াস উদ্দিন

» আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস উপলক্ষ্যে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন ও আলোচনা সভা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ১০ই ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

গলাচিপায় প্রতিপক্ষকে হয়রাানির চেষ্টা

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা: মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার চেষ্টা করছে প্রতিপক্ষকে। দেলোয়ার হোসেন নামের এক ব্যক্তি অন্যের ভূমি দখল করে দোকান নির্মান করে একদিন পরই সেই দোকান নিজে ও তার দলবল দিয়ে ভেঙ্গে প্রকৃত জমির মালিককে আদালতে ভাংচুর ও লুটের মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে স্থানীয় শত শত লোকের অভিযোগ।

 

দোকান ভাংচুর ও লুটের ঘটনায় গলাচিপা আদালতে মহিলাসহ ৭জনের বিরুদ্ধে মামলা করলে বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে গলাচিপা অফিসার ইনচার্জকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য নির্দেশ দেন আদালত। জানা গেছে, গলাচিপা উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের কুমার খালী বাজারের হাসেম আলী সিকদার ও কাজেম আলী সিকদারের নামে তিন একর রেকর্ডীয় সম্পত্তি রয়েছে। যার ১৫৭ নং এসএ খতিয়ানে দাগ নং ৪৫৮৯, ৪৫৪৮, ৪৬০১ ও ৪৬০৩ রয়েছে। তাদের বংশীয় উত্তরাধিকার হিসেবে বাদশা সিকদারগংরা ভোগ দখলে আছে। একই এলাকার হায়দর আলী খানের পুত্র মো: দেলোয়ার হোসেন খান কুমার খালী বাজারের বাদশা সিকদার গংদের ঐ ভূমির উপর নজর পড়ে। মো: দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে গত ১২মার্চ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

 

তিনি মামলায় বলেন ১১মার্চ ফজরের সময় তার দোকানে আসামীরা অনধিকার প্রবেশ করে ড্রয়ার ভেঙ্গে ২লক্ষ ৫০হাজার টাকা ও ২০পিচ মোবাইল সেট নিয়ে যায়। অজ্ঞাত নামা কয়েক আসামীগন দোকান ভেঙ্গে ১লক্ষ ২০হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। দোকান ভালই চলছি বলে মামলায় উল্লেখ থাকায় সেখানে গিয়ে সরেজমিনে দেখা যায় ভিটির উপর মরিচ চাড়া লাগানো আছে। গলাচিপা কলাগাছিয়া ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মো: ফকরুল ঢালী জানান, কুমার খালী বাজারে দোকান ভাঙ্গা ও লুটের কোন ঘটনা ঘটেনি। তবে বাদী দেলোয়ার হোসেন নিজে বাদশা সিকদার গং দের ভূমি দখল করে শুক্রবার গভীর রাতে দোকান ঘর তোলেন। তা আবার এক দিনের মাথায় রবিবার গভীর রাতে বাদী দলবল নিয়ে নিজেরাই দোকান ভেঙ্গে দেয়। অথচ যাদের জমি তাদেরকেই জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দেন বলে স্থানীয় আলমগীর ঢালী, মোকলেছুর রহমান ও দুলাল গাজী জানান।

 

কলাগাছিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ (চকিদার) মো; নুর হোসেন জানান, তিনি দিনে রাতে কুমার খালী বাজারে থাকেন, এখানে দোকান ভাঙ্গা, লুটের কোন ঘটনা ঘটে নাই। বাদী দেলোয়ার হোসেন বাদশাগংদের ভূমিতে দোকান উঠিয়ে বেকাদায় পড়ায় তা আবার নিজেরাই ভেঙ্গে সড়কের পাশে রেখে দেন । এ ব্যাপারে কলাগাছিয়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: ইলিয়াস জানান, দোকান ভাংচুর ও টাকা লুট এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি ,তবে ঘটনা ঘটলে জানতাম।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited