দু’দলের অত্যাচারে মানুষ অতিষ্ঠ : এইচ এম এরশাদ

এম.এ. রাজ্জাক খান: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, সব ধর্মের সমান অধিকার দিয়েছিলাম, এখন মন্দির লোট হয়, জমি দখল হয়, আমাদের সময় এগুলো হয়নি। তাই মানুষ আমাদের চায়। দু’দলের অত্যাচারে মানুষ অতিষ্ঠ। বর্তমানে মেধার চেয়ে দলের কদর বেশি।

 

গতকালও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মারামারি করেছে। এজন্যই ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করেছিলাম। আমার সময় মাথা কাটা লাশ দেখতে হয়নি। পরিবর্তন দরকার। পরিবর্তনের জন্য জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় আসতে হবে। মানুষ সুখে, শান্তিতে, নিরাপদে ছিল। কাটাকাটি, হানাহানি, মারামারি, হিংসা গুম, হত্যা, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন ছিলনা। এ কারণেই দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়, জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। আজ সোমবার বিকালে কাকরাইল, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘জাতীয় পার্টি কেন করবেন, গ্রন্থের “প্রকাশনা উৎসব” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হুসেইন মহম্মদ এরশাদ এসব কথা বলেন।

 

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, এটা ভাষার মাস। বাংলা ভাষার জন্য অনেকে শহীদ হয়েছেন। কিন্তু কেউ সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু করেনি, আমি চালু করেছি। এজন্য ১৯৮৭ সালে আইন পাশ করেছিলাম। বাংলা ভাষায় সরকারি অফিস, আধা সরকারি অফিস, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সহ বাংলা লেখা বাধ্যতামূলক করেছিলাম। ইংরেজী সাইন বোর্ডের নিচে বাংলায় লিখতে হবে, আমিই অগ্রদূত।

 

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রকাশক আলমগীর সিকদার লোটন সভাপতিত্বে ও দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলদার এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বিশিষ্ট লেখক আলহাজ¦ মোঃ সাহিদুর রহমান টেপা, সুনীল শুভরায়, উপদেষ্টা অ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, এফবিসিসি আই এর পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

 

জাতীয় পার্টি কেন করবেন ? বইটি মোড়ক উন্মেচন অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এরশাদ বলেন, বইটি পড়লেই আপনারা সবকিছু জানতে পারবেন। আমার উন্নয়ন, সংস্কার ও নির্মাণের কথা জানতে পারবেন। গ্রাম-গঞ্জে কাচাঁ রাস্তা ছিল, গরুর গাড়ি চলতো, গ্রাম থেকে শহর আসার পাকা রাস্তা আমিই করেছিলাম। তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টি সরকারের আমলে ১৯টি জেলা থেকে ৬৪টি জেলা এবং ৪৬০টি উপজেলা করেছিলাম। আমরা ক্ষমতায় আসলে পূর্বের মতো উপজেলা কার্যক্রম চালু করবো। যুবকদের কর্মসংস্থানের প্রয়োজন। মাদকে ছেঁয়ে গেছে সমাজের সর্বত্র। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে যুবকদের উপযুক্ত কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক প্রদান প্রথম আমিই চালু করেছিলাম। শুক্রবার সাপ্তাহিক সরকারি ছুটি আমিই ঘোষণা করেছিলাম।

 

আজ হিন্দু সম্প্রদায়ের সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার, নির্যাতন হচ্ছে। মহিলা আসন ৫০টি সংরক্ষিত করা হয়েছে, তেমনি হিন্দু সম্প্রদায়ের সংখ্যালঘুদের জন্য পার্লামেন্টে ৩০টি আসন বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব করেছি। এরশাদ বলেন, ঢাকা-শহরে বর্তমানে আড়াই কোটি লোক বসবাস করে। দু’বছর পরে এ সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াবে চার থেকে পাঁচ কোটি। এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়ত করতে কতো সময় লাগে তা কেউ জানেনা। তখন আর গাড়ি চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়বে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা চালু করতে হবে। বিভাগ যে কয়টিই করেন না কেন, কোনো কাজে আসবে না।

 

উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এম এ সাত্তার, অধ্যাপিকা মাসুদা এম রশিদ চৌধুরী, মোঃ শফিকুল ইসলাম সেন্টু, উপদেষ্টা রিন্টু আনোয়ার, সৈয়দ দিদার বখত, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, শেখ আলমগীর হোসেন, জহিরুল আলম রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইসহাক ভুইয়া, আমির উদ্দিন আহমেদ ডালু, ফকরুল আহসান শাহজাদা, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মোঃ বেলাল হোসেন, এম এ রাজ্জাক খান, এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, শারমিন পারভীন লিজা, সৈয়দা পারভীন তারেক, আবু সাঈদ স্বপন, কেন্দ্রীয় নেতা- আলহাজ মোহাম্মদ মোহিবুল্লাহ, মোঃ হাবিবুল্লাহ, মোঃ হেলাল উদ্দিন, কাজী আবুল খায়ের, মাহমুদ আলম, ফজলে এলাহী সোহাগ, মিজানুর রহমান মিরু, সুজন দে, মোঃ সোলায়মান সামি, মোঃ হুমায়ুন কবির শাওন, মাসুদুর রহমান মাসুম, কাজী মাও: আসাদুজ্জমান, মোঃ দ্বীন ইসলাম শেখ, মুশফিকুর রহমান, সাইদুর রহমান বুলু, মোনাজাত চৌ:, পিয়ংকা, মন্টি চৌ:, তাসলিমা রুনা, শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ছয় কোচিং সেন্টার সিলগালা : বেঞ্চ ধ্বংস

» গোপালগঞ্জে বিআরডিবি’র ইউসিসিএ কর্মচারীদের মানবন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

» সৌদি আরবকে ইইউ’র কালো তালিকা ভুক্ত করায় নাগরিক সমাজের উদ্বেগ

» দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ফুলচাষে প্রায় ৫০ লাখ মানুষের জীবন-জীবিকা নির্বাহ করে প্রায় ৬০ কোটি টাকাফুল বিক্রি

» যশোরের নাভারন প্রতিবন্ধী স্কুলে পথের আলো সংস্থার মোটর রিক্সা ভ্যান দান

» যশোরের শার্শায় মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

» গলাচিপায় বীজ আলুর মাঠ দিবস পালিত

» ভাষাসৈনিকদের যথাযথ মর্যাদা দেওয়া সময়ের দাবি: ভাষাসৈনিক লায়ন শামসুল হুদা

» বই কিনুন, বই পড়ুন, নিজেকে সমৃদ্ধ করুন: যুবলীগ চেয়ারম্যাম মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী

» ঝিনাইদহে শুদ্ধসুরে জাতীয় সংগীত পরিবেশন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৮ই ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দু’দলের অত্যাচারে মানুষ অতিষ্ঠ : এইচ এম এরশাদ

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

এম.এ. রাজ্জাক খান: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, সব ধর্মের সমান অধিকার দিয়েছিলাম, এখন মন্দির লোট হয়, জমি দখল হয়, আমাদের সময় এগুলো হয়নি। তাই মানুষ আমাদের চায়। দু’দলের অত্যাচারে মানুষ অতিষ্ঠ। বর্তমানে মেধার চেয়ে দলের কদর বেশি।

 

গতকালও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মারামারি করেছে। এজন্যই ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করেছিলাম। আমার সময় মাথা কাটা লাশ দেখতে হয়নি। পরিবর্তন দরকার। পরিবর্তনের জন্য জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় আসতে হবে। মানুষ সুখে, শান্তিতে, নিরাপদে ছিল। কাটাকাটি, হানাহানি, মারামারি, হিংসা গুম, হত্যা, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন ছিলনা। এ কারণেই দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়, জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। আজ সোমবার বিকালে কাকরাইল, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘জাতীয় পার্টি কেন করবেন, গ্রন্থের “প্রকাশনা উৎসব” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে হুসেইন মহম্মদ এরশাদ এসব কথা বলেন।

 

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, এটা ভাষার মাস। বাংলা ভাষার জন্য অনেকে শহীদ হয়েছেন। কিন্তু কেউ সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু করেনি, আমি চালু করেছি। এজন্য ১৯৮৭ সালে আইন পাশ করেছিলাম। বাংলা ভাষায় সরকারি অফিস, আধা সরকারি অফিস, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সহ বাংলা লেখা বাধ্যতামূলক করেছিলাম। ইংরেজী সাইন বোর্ডের নিচে বাংলায় লিখতে হবে, আমিই অগ্রদূত।

 

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রকাশক আলমগীর সিকদার লোটন সভাপতিত্বে ও দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলদার এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বিশিষ্ট লেখক আলহাজ¦ মোঃ সাহিদুর রহমান টেপা, সুনীল শুভরায়, উপদেষ্টা অ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, এফবিসিসি আই এর পরিচালক হেলেনা জাহাঙ্গীর প্রমুখ।

 

জাতীয় পার্টি কেন করবেন ? বইটি মোড়ক উন্মেচন অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এরশাদ বলেন, বইটি পড়লেই আপনারা সবকিছু জানতে পারবেন। আমার উন্নয়ন, সংস্কার ও নির্মাণের কথা জানতে পারবেন। গ্রাম-গঞ্জে কাচাঁ রাস্তা ছিল, গরুর গাড়ি চলতো, গ্রাম থেকে শহর আসার পাকা রাস্তা আমিই করেছিলাম। তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টি সরকারের আমলে ১৯টি জেলা থেকে ৬৪টি জেলা এবং ৪৬০টি উপজেলা করেছিলাম। আমরা ক্ষমতায় আসলে পূর্বের মতো উপজেলা কার্যক্রম চালু করবো। যুবকদের কর্মসংস্থানের প্রয়োজন। মাদকে ছেঁয়ে গেছে সমাজের সর্বত্র। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে যুবকদের উপযুক্ত কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক প্রদান প্রথম আমিই চালু করেছিলাম। শুক্রবার সাপ্তাহিক সরকারি ছুটি আমিই ঘোষণা করেছিলাম।

 

আজ হিন্দু সম্প্রদায়ের সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার, নির্যাতন হচ্ছে। মহিলা আসন ৫০টি সংরক্ষিত করা হয়েছে, তেমনি হিন্দু সম্প্রদায়ের সংখ্যালঘুদের জন্য পার্লামেন্টে ৩০টি আসন বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব করেছি। এরশাদ বলেন, ঢাকা-শহরে বর্তমানে আড়াই কোটি লোক বসবাস করে। দু’বছর পরে এ সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াবে চার থেকে পাঁচ কোটি। এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়ত করতে কতো সময় লাগে তা কেউ জানেনা। তখন আর গাড়ি চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়বে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা চালু করতে হবে। বিভাগ যে কয়টিই করেন না কেন, কোনো কাজে আসবে না।

 

উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এম এ সাত্তার, অধ্যাপিকা মাসুদা এম রশিদ চৌধুরী, মোঃ শফিকুল ইসলাম সেন্টু, উপদেষ্টা রিন্টু আনোয়ার, সৈয়দ দিদার বখত, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, শেখ আলমগীর হোসেন, জহিরুল আলম রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ইসহাক ভুইয়া, আমির উদ্দিন আহমেদ ডালু, ফকরুল আহসান শাহজাদা, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মোঃ বেলাল হোসেন, এম এ রাজ্জাক খান, এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, শারমিন পারভীন লিজা, সৈয়দা পারভীন তারেক, আবু সাঈদ স্বপন, কেন্দ্রীয় নেতা- আলহাজ মোহাম্মদ মোহিবুল্লাহ, মোঃ হাবিবুল্লাহ, মোঃ হেলাল উদ্দিন, কাজী আবুল খায়ের, মাহমুদ আলম, ফজলে এলাহী সোহাগ, মিজানুর রহমান মিরু, সুজন দে, মোঃ সোলায়মান সামি, মোঃ হুমায়ুন কবির শাওন, মাসুদুর রহমান মাসুম, কাজী মাও: আসাদুজ্জমান, মোঃ দ্বীন ইসলাম শেখ, মুশফিকুর রহমান, সাইদুর রহমান বুলু, মোনাজাত চৌ:, পিয়ংকা, মন্টি চৌ:, তাসলিমা রুনা, শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited