গুলশানের বাড়ি ফেরত চেয়ে মওদুদের মামলা

গুলশানের ৩শ কোটি টাকার বাড়ির অধিকার ও দখল চেয়ে মামলা করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ঢাকার প্রথম যুগ্ম জেলা জজ উৎপল ভট্টাচার্যের আদালতে বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইনে এই মামলা করেন তিনি।

 

মামলায় এহসান-ইনজি দম্পতির ছেলে করিম ফারনাজ সোলাইমান, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক), গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঢাকা জেলার প্রশাসককে বিবাদী করা হয়। আসছে ১৯ জুলাই সরকার ও রাজউককে জবাব দেয়ার জন্য দিন ঠিক করেন আদালত। মামলায় মওদুদ আহমদ বাড়ির অধিকার ও দখল চেয়ে আদালতের কাছে আবেদন করেন। এছাড়াও তিনি বাড়ি থেকে উচ্ছেদের বিরুদ্ধে চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন করেন।

 

বুধবার রাজউকের দখল নেয়া বাড়িটি তার ইংল্যান্ডপ্রবাসী ভাই মঞ্জুর আহমদের এবং তার পক্ষে তিনি দখলদার বলে দাবি করেছিলেন। কিন্তু এখন তিনি নিজেই বাড়ির মালিকানা দাবি করেছেন। এজাহারে আরো বলা হয়, পাকিস্তানি নাগরিক মো. এহসান তৎকালীন ডিআইটিতে (বর্তমান রাজউক) অ্যালটমেন্ট বা বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেন। ডিআইটি মো. এহসানের স্ত্রী জার্মান নাগরিক ইনজি স্লাজের নামে বাড়িটি বরাদ্দ দেন। পরে ১৯৮১ সালের ২৩ মে আমমোক্তারনামায় মওদুদ আহমদের বরাবর একটি ভাড়াটিয়া চুক্তিপত্র করেন।

 

এর আগে ১৯৮১ সালে গুলশানের ওই বাড়ির মালিক ইনজি স্লাজ প্রয়াত প্রধান বিচারপতি মাইনুর রেজা চৌধুরীকে আমমোক্তারনামা করে দেন। যার ক্ষমতা ১৯৮৪ পর্যন্ত বহাল ছিল। তবে এই বাড়ি বাবদ ভাড়া প্রদানের বিষয়ে মামলার কোথাও উল্লেখ করেননি। কিন্তু ওই বাড়ি পুনর্নির্মাণ, রক্ষণাবেক্ষণ, ট্যাক্স ও খাজনা প্রদান বাবদ তিনি আড়াই কোটি টাকা খরচ করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» বাতিল হচ্ছে এমসিকিউ? বিপদে শিক্ষার্থীরা

» রাজধানীর চকবাজারে আগুন: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৯

» আগুন নেভাতে বিমান বাহিনীর দুই হেলিকপ্টার

» আজ অমর একুশে ভাষা শহীদদের প্রতি জাতির বিনম্র শ্রদ্ধা

» রাজধানীর চকবাজার এলাকায় ভয়াবহ আগুন

» নিজ পরিচয়ে সারাবিশ্বে ও স্বদেশের উজ্জ্বল নক্ষত্র, শ্রেষ্ঠ রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা

» একুশে স্মৃতি সংসদ সম্মাননা পেলেন: লায়ন গনি মিয়া বাবুল

» কলাপাড়ায় ছুরিকাঘাতে কলেজ শিক্ষিকা গুরুতর জখম

» চাঁদপুরে গ্রাম আদালতের অগ্রগতি ও চ্যালেন্জসমূহ নিয়ে জেলা প্রশাসকের ভিডিও কনফারেন্স

» গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ছয় কোচিং সেন্টার সিলগালা : বেঞ্চ ধ্বংস

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৯ই ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

গুলশানের বাড়ি ফেরত চেয়ে মওদুদের মামলা

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

গুলশানের ৩শ কোটি টাকার বাড়ির অধিকার ও দখল চেয়ে মামলা করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ঢাকার প্রথম যুগ্ম জেলা জজ উৎপল ভট্টাচার্যের আদালতে বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইনে এই মামলা করেন তিনি।

 

মামলায় এহসান-ইনজি দম্পতির ছেলে করিম ফারনাজ সোলাইমান, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক), গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঢাকা জেলার প্রশাসককে বিবাদী করা হয়। আসছে ১৯ জুলাই সরকার ও রাজউককে জবাব দেয়ার জন্য দিন ঠিক করেন আদালত। মামলায় মওদুদ আহমদ বাড়ির অধিকার ও দখল চেয়ে আদালতের কাছে আবেদন করেন। এছাড়াও তিনি বাড়ি থেকে উচ্ছেদের বিরুদ্ধে চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন করেন।

 

বুধবার রাজউকের দখল নেয়া বাড়িটি তার ইংল্যান্ডপ্রবাসী ভাই মঞ্জুর আহমদের এবং তার পক্ষে তিনি দখলদার বলে দাবি করেছিলেন। কিন্তু এখন তিনি নিজেই বাড়ির মালিকানা দাবি করেছেন। এজাহারে আরো বলা হয়, পাকিস্তানি নাগরিক মো. এহসান তৎকালীন ডিআইটিতে (বর্তমান রাজউক) অ্যালটমেন্ট বা বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেন। ডিআইটি মো. এহসানের স্ত্রী জার্মান নাগরিক ইনজি স্লাজের নামে বাড়িটি বরাদ্দ দেন। পরে ১৯৮১ সালের ২৩ মে আমমোক্তারনামায় মওদুদ আহমদের বরাবর একটি ভাড়াটিয়া চুক্তিপত্র করেন।

 

এর আগে ১৯৮১ সালে গুলশানের ওই বাড়ির মালিক ইনজি স্লাজ প্রয়াত প্রধান বিচারপতি মাইনুর রেজা চৌধুরীকে আমমোক্তারনামা করে দেন। যার ক্ষমতা ১৯৮৪ পর্যন্ত বহাল ছিল। তবে এই বাড়ি বাবদ ভাড়া প্রদানের বিষয়ে মামলার কোথাও উল্লেখ করেননি। কিন্তু ওই বাড়ি পুনর্নির্মাণ, রক্ষণাবেক্ষণ, ট্যাক্স ও খাজনা প্রদান বাবদ তিনি আড়াই কোটি টাকা খরচ করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited