সংসদে সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বক্তব্য জনাব কাজী ফিরোজ রশিদ এম পির

Spread the love

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ বলেছেন,আস্তিক,নাস্তিক, বামপন্থি-চরমপন্থি সবাইকে নৌকায় তুলেছেন। এতো পরিমাণ উঠেছে যে, নৌকা এখন ডুবো ডুবো অবস্থা।

 

এই আস্তিক-নাস্তিক নিয়া সাগর পাড়ি দিবেন কেমনে? জাতীয় সংসদে মঙ্গলবার দুপুরে সম্পূরক বাজেটের ওপর বক্তৃতায় জাতীয় পার্টির এই প্রেসিডিয়াম সদস্য এসব কথা বলেন।ঢাকা-৬ আসন থেকে নির্বাচিত এই এমপি বলেন, ৭০ সালের নৌকা আর এখনকার নৌকা এক না। ভোট দেন দেখবেন, এইআস্তিক-নাস্তিক আর হাইব্রিড আওয়ামী লীগারদের সঙ্গে ত্যাগী আওয়ামী লীগারদের দূরত্ব বেড়ে গেছে।

 

কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘খরচ তো হয়েই গেছে টাকা। এখন আইসেন সংসদে, কেন? এই টাকা হচ্ছে জনগণের টাকা। জনগণের ট্যাক্সের টাকা। খরচ কইরা আইসেন আমাদের বৈধতা দেন। আমাদের বৈধতা তো দিতেই হবে। কারণ সরকারি দল হা- না ভোটে জিতে যাবে। বৈধতা হয়েই গেল। এটা অনৈতিক অসাংবিধানিক।’ বাজেট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ছোট বেলায় পুতুলকে মানুষ ভেবে খেলি। আর একটু বড় হলে মানুষকে পুতুল ভেবে খেলি। মাননীয় অর্থমন্ত্রী। দেশের সমস্ত জনগণকে মনে করেছেন পুতুল। পুতুলের যেমন বাকশক্তি নাই। এই দেশের ১৬ কোটি মানুষও বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেছে, তাদের কথা বলার শক্তি হারিয়ে ফেলেছে।’ কালকে একজন হুইপ বললেন দ্রব্যমূল্য যা বেড়েছে তাতেও মানুষ খুশি। এ কথা শুনলে মানুষ হাসে।

 

আপনি তো আলো বাতাস সবকিছু ফ্রি পান। আপনারা বুঝতে পারবেন না। মানুষের ইনকাম বাড়ে নাই। রাজপথে ইফতারি খেয়ে রোজা ভাঙতে হয়। সেজন্য তাদের ব্যথার কথা বুঝবেন না। জনগণের টাকা ভাঙলেন, সংসদের কাছে আইছেন বৈধতা নিতে।’ ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘অর্থমন্ত্রী এই টাকা খরচ করার পেছনে ‍যুক্তি দেখান। মন্ত্রীরা বিরাট বিরাট বহর নিয়ে বিদেশে যান। এমন এমন মন্ত্রী আছেন বছরের ৯ মাস বিদেশ থাকেন। কারণ কোথাও কোনো জবাবদিহি নাই।’ ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সময় তিনি (আবুল মাল আবদুল মুহিত) ২টি বাজেট দিয়েছেন। খুব ভালো বাজেট দিয়েছেন। ৫ হাজার ৮শ’ কোটি টাকার বাজেট। এ বাজেট দিয়েই আমরা ৪৬০টি উপজেলা করেছিলাম, জেলা পরিষদ করেছিলাম।

 

অর্থমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ব্যাংকে আমানত রাখবেন আবগারি শুল্ক বসিয়েছেন। আগে সুদ থেকে টাকা কাটা হতো এখন কাটবেন আসল থেকে। ভোটের আগে বাজেট.. ভোট যে কী পরিমাণ নষ্ট হয়েছে রাস্তায় না গেলে বুঝবেন না। তিনি বলেন, ‘সরকারে গেলে ‍দুই ধরনের লোকের অভাব হয় না। একটি হলো তেল দেওয়া আরেকটি হলো বাঁশ দেওয়া। ব্যাংক লুট যারা করেছে তাদের বিচার না করে জনগণকে..। জনগণকে পুতুল ভাববেন না। – by facebook (Belal Belal)

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» প্রশ্নপত্রে পর্নো তারকার নাম বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে: শিক্ষামন্ত্রী

» হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) দুনিয়ার সর্বকালের সেরা মানব : রানী মুখার্জি

» ছাত্রীদেড় প্রস্তাব দেন বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকের, ফোনালাপ ফাঁস! (অডিও)

» আমরা বিপদে, বাঁচান! এবার আশ্রয় চেয়ে আর্তি দুই তরুণীর

» আযানের সাথে সাথে শুরু হতো ওসি মোয়াজ্জেমের জন্য চাঁদা আদায়

» নুসরাত হত্যাকাণ্ড: ‘অনেক তথ্য’ দিয়েছেন আসামি কাদের

» তোরা যদি সাফাকে গালি দিস তবে আবার আমি একই কাজ করবো: সেফাতউল্লাহ

» সেফুদাকে ধরিয়ে দিলেই ২ লাখ পুরস্কার!

» নুসরাতকে নিয়ে ছোট ভাই রায়হানের আবেগঘন স্ট্যাটাস!

» নবম শ্রেণির বাংলা প্রশ্নে দুই পর্নো তারকার নাম!

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com

x

আজ শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সংসদে সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বক্তব্য জনাব কাজী ফিরোজ রশিদ এম পির

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ বলেছেন,আস্তিক,নাস্তিক, বামপন্থি-চরমপন্থি সবাইকে নৌকায় তুলেছেন। এতো পরিমাণ উঠেছে যে, নৌকা এখন ডুবো ডুবো অবস্থা।

 

এই আস্তিক-নাস্তিক নিয়া সাগর পাড়ি দিবেন কেমনে? জাতীয় সংসদে মঙ্গলবার দুপুরে সম্পূরক বাজেটের ওপর বক্তৃতায় জাতীয় পার্টির এই প্রেসিডিয়াম সদস্য এসব কথা বলেন।ঢাকা-৬ আসন থেকে নির্বাচিত এই এমপি বলেন, ৭০ সালের নৌকা আর এখনকার নৌকা এক না। ভোট দেন দেখবেন, এইআস্তিক-নাস্তিক আর হাইব্রিড আওয়ামী লীগারদের সঙ্গে ত্যাগী আওয়ামী লীগারদের দূরত্ব বেড়ে গেছে।

 

কাজী ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘খরচ তো হয়েই গেছে টাকা। এখন আইসেন সংসদে, কেন? এই টাকা হচ্ছে জনগণের টাকা। জনগণের ট্যাক্সের টাকা। খরচ কইরা আইসেন আমাদের বৈধতা দেন। আমাদের বৈধতা তো দিতেই হবে। কারণ সরকারি দল হা- না ভোটে জিতে যাবে। বৈধতা হয়েই গেল। এটা অনৈতিক অসাংবিধানিক।’ বাজেট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ছোট বেলায় পুতুলকে মানুষ ভেবে খেলি। আর একটু বড় হলে মানুষকে পুতুল ভেবে খেলি। মাননীয় অর্থমন্ত্রী। দেশের সমস্ত জনগণকে মনে করেছেন পুতুল। পুতুলের যেমন বাকশক্তি নাই। এই দেশের ১৬ কোটি মানুষও বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেছে, তাদের কথা বলার শক্তি হারিয়ে ফেলেছে।’ কালকে একজন হুইপ বললেন দ্রব্যমূল্য যা বেড়েছে তাতেও মানুষ খুশি। এ কথা শুনলে মানুষ হাসে।

 

আপনি তো আলো বাতাস সবকিছু ফ্রি পান। আপনারা বুঝতে পারবেন না। মানুষের ইনকাম বাড়ে নাই। রাজপথে ইফতারি খেয়ে রোজা ভাঙতে হয়। সেজন্য তাদের ব্যথার কথা বুঝবেন না। জনগণের টাকা ভাঙলেন, সংসদের কাছে আইছেন বৈধতা নিতে।’ ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘অর্থমন্ত্রী এই টাকা খরচ করার পেছনে ‍যুক্তি দেখান। মন্ত্রীরা বিরাট বিরাট বহর নিয়ে বিদেশে যান। এমন এমন মন্ত্রী আছেন বছরের ৯ মাস বিদেশ থাকেন। কারণ কোথাও কোনো জবাবদিহি নাই।’ ফিরোজ রশিদ বলেন, ‘হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সময় তিনি (আবুল মাল আবদুল মুহিত) ২টি বাজেট দিয়েছেন। খুব ভালো বাজেট দিয়েছেন। ৫ হাজার ৮শ’ কোটি টাকার বাজেট। এ বাজেট দিয়েই আমরা ৪৬০টি উপজেলা করেছিলাম, জেলা পরিষদ করেছিলাম।

 

অর্থমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ব্যাংকে আমানত রাখবেন আবগারি শুল্ক বসিয়েছেন। আগে সুদ থেকে টাকা কাটা হতো এখন কাটবেন আসল থেকে। ভোটের আগে বাজেট.. ভোট যে কী পরিমাণ নষ্ট হয়েছে রাস্তায় না গেলে বুঝবেন না। তিনি বলেন, ‘সরকারে গেলে ‍দুই ধরনের লোকের অভাব হয় না। একটি হলো তেল দেওয়া আরেকটি হলো বাঁশ দেওয়া। ব্যাংক লুট যারা করেছে তাদের বিচার না করে জনগণকে..। জনগণকে পুতুল ভাববেন না। – by facebook (Belal Belal)

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited