যাচাই-বাছাইয়ের নামে মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানি করা হচ্ছে

মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাইয়ের নামে দেশব্যাপী মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান (আমুস) নামের একটি সংগঠন। তারা এ হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ভারতীয় তালিকা, মুক্তিবার্তা লালবই, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিস্বাক্ষরিত সনদ, সেনা, নৌ, বিমান বাহিনী, বিডিআর, পুলিশ, আনসার বাহিনীর বিশেষ গেজেট যাচাই-বাছাইয়ের আওতামুক্ত রাখার দাবিতে মানবন্ধন করা হয়।

 

মানববন্ধনে সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির বলেন, ১৯৯৮-২০০১ সাল পর্যন্ত যাচাই বাছাইয়ের জন্য ৫ লাখ ৯৭ হাজার আবেদন করা হয়। যাচাই বাছাই শেষে ১ লাখ ৯২ হাজার মুক্তিযোদ্ধার নাম চূড়ান্ত করা হয়। এরপর ১ লাখ ৫৫ হাজার জেলা ভিত্তিক তালিকা করে মুক্তিবার্তা লালবই প্রণয়ন করা হয়। ২০০১ সালে বিএনপি- জামায়াত জোট ক্ষমতায় এসে শেখ হাসিনার প্রতি স্বাক্ষরিত সনদ অকার্যকর করে। সেই সময় বিএনপি সরেজমিন যাচাই-বাছাই ছাড়া নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে মুক্তিযোদ্ধা নয় এমন ব্যক্তিদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়।

 

তিনি বলেন, ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসলে প্রধানমন্ত্রীর সনদ কার্যকর হয়। এই সনদ যাদের দেওয়া হয় তখন একটি রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করে বিতরণ করা হয়। যা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে সংরক্ষিত আছে।

 

বর্তমান যাচাই-বাছাই কমিটির সমালোচনা করে হুমায়ুন কবির বলেন, বর্তমানে যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রদত্ত সনদ, মুক্তিবার্তা লাল বই, ভারতীয় তালিকা বিভিন্ন বাহিনীর গেজেট নিয়ে হাসি ঠাট্টা ও তামাশা করা হচ্ছে। নৈতিকতা বিবর্জিত অনেক কর্মকাণ্ড করছে এবং পূর্ব শত্রুতার জেরসহ নানা হয়রানি করা হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধাদের। ফলে যাচাই বাছাইয়ের নামে মুক্তিযোদ্ধাদেরকে হয়রানি বন্ধ করা হোক।

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



» বসানো হলো পদ্মা সেতুর ১৮তম স্প্যান: দৃশ্যমান হল সেতুর ২ হাজার ৭০০ মিটার

» গোপালগঞ্জে মধুমতি নদীর ভাঙ্গঁনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে চরগোবরা গ্রাম

» বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ দুই নারী আটক

» কুয়াকাটায় ন্নিমমানের আবাসিক হোটেলের বিরুদ্ধে নারী ও মাদক ব্যবসার অভিযোগ

» আগৈলঝাড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান

» ঝিনাইদহের শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক হলেন আসিফ কাজল

» মহেশপুরের অবৈধ ইটভাটায় পুড়ছে কাঠ প্রশাসন নির্বকার

» ঝিনাইদহে তৃতীয় লিঙ্গ সদস্যদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

» রাজনগরে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে অবহিতকরণ সভা

» রাজনগরে ভোক্তা অধিকার আইনে ৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ২৭শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

যাচাই-বাছাইয়ের নামে মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানি করা হচ্ছে

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাইয়ের নামে দেশব্যাপী মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান (আমুস) নামের একটি সংগঠন। তারা এ হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছে। মঙ্গলবার (৭ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ভারতীয় তালিকা, মুক্তিবার্তা লালবই, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিস্বাক্ষরিত সনদ, সেনা, নৌ, বিমান বাহিনী, বিডিআর, পুলিশ, আনসার বাহিনীর বিশেষ গেজেট যাচাই-বাছাইয়ের আওতামুক্ত রাখার দাবিতে মানবন্ধন করা হয়।

 

মানববন্ধনে সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির বলেন, ১৯৯৮-২০০১ সাল পর্যন্ত যাচাই বাছাইয়ের জন্য ৫ লাখ ৯৭ হাজার আবেদন করা হয়। যাচাই বাছাই শেষে ১ লাখ ৯২ হাজার মুক্তিযোদ্ধার নাম চূড়ান্ত করা হয়। এরপর ১ লাখ ৫৫ হাজার জেলা ভিত্তিক তালিকা করে মুক্তিবার্তা লালবই প্রণয়ন করা হয়। ২০০১ সালে বিএনপি- জামায়াত জোট ক্ষমতায় এসে শেখ হাসিনার প্রতি স্বাক্ষরিত সনদ অকার্যকর করে। সেই সময় বিএনপি সরেজমিন যাচাই-বাছাই ছাড়া নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে মুক্তিযোদ্ধা নয় এমন ব্যক্তিদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়।

 

তিনি বলেন, ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসলে প্রধানমন্ত্রীর সনদ কার্যকর হয়। এই সনদ যাদের দেওয়া হয় তখন একটি রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করে বিতরণ করা হয়। যা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে সংরক্ষিত আছে।

 

বর্তমান যাচাই-বাছাই কমিটির সমালোচনা করে হুমায়ুন কবির বলেন, বর্তমানে যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রদত্ত সনদ, মুক্তিবার্তা লাল বই, ভারতীয় তালিকা বিভিন্ন বাহিনীর গেজেট নিয়ে হাসি ঠাট্টা ও তামাশা করা হচ্ছে। নৈতিকতা বিবর্জিত অনেক কর্মকাণ্ড করছে এবং পূর্ব শত্রুতার জেরসহ নানা হয়রানি করা হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধাদের। ফলে যাচাই বাছাইয়ের নামে মুক্তিযোদ্ধাদেরকে হয়রানি বন্ধ করা হোক।

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited