জরাজীর্ণ বসতঘরে জীবন-যাপন দশমিনায় মিনারা’র

সঞ্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা।। পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় জরাজীর্ণ বসতঘরে দীর্ঘ ১৭বছর যাবৎ মানবেতর জীবন-যাপন করছে অসহায় হতদরিদ্র মিনারা’র পরিবার। স্বামী হারা পরিবার খেয়ে না খেয়ে জরাজীর্ন অবস্থায় মানবতায় জীবন যাবন করে।  জানা যায়, উপজেলার বাঁশবাড়িয় ইউনিয়নের দক্ষিন বাঁশবাড়িয়াা গ্রামের মৃত কাঞ্চন আলী খাঁ’র স্ত্রী মিনারা বেগম ২কন্যা সন্তান নিয়ে একটি মোটামুটি ভালো আশ্রয়স্থল এর অভাবে বহু বছর ধরে জরাজীর্ণ বসতঘরে মানবেতর জীবন-যাপন করে আসছেন।

 

এলাকাবাসী জানান, মিনারার পরিবার গরীব অসহায় লোক। মানুষের বাসায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। বসত ভিটার প্রায় ২শতাংশ জমি ছাড়া তার নিজের কোন জমি নেই। তার ২মেয়ের মধ্যে বড় মেয়ে অর্থের অভাবে লেখাপড়া বাধ দিয়েছে। ছোট মেয়ে মাদ্রাসা দিয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী। বর্তমানে মিনারার বসত ঘরখানা খুবই জরাজীর্ন অবস্থায় আছে। বসত ঘর ভাংগা পুরাতন টিন ও পলিথিন দিয়ে ঢাকা। বর্ষার সময় ঘরের ছাউনী থেকে পানি পড়ে বাশঁ, খুটি, বিছানাসহ সব কিছু ভিজে নষ্ট হয়ে যায়। একটু বন্যা হলেই ঘরটি পরে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ঝড় বন্যা হলে অন্যের ঘরে আশ্রয় নিতে হয় মিনারার পরিবারের। এ অবস্থায় মিনারার মেয়েদেরকে নিয়ে খুবই মানবেতর ভাবে জরাজীর্ণ বসতঘরে জীবন-যাপন করছেন।

 

মিনারা জানান, বর্ষা কালে ঘরে পানি পড়ে বলে সারা রাত ঘরের এক কোনায় জেগে রাত কাটাতে হয়। আর এই ভেজা স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে বেশি করে অসুস্থ করে দিচ্ছে তাদের। অর্থিক অবস্থা ভাল না হওয়ায় ঠিক মত ঔষুধ কেনা হয় না তাদের। বর্তমানে তাদের ভাঙ্গা ঝুপড়ি নিয়ে বেশ চিন্তিত। কারন রোদ বৃষ্টি কোন মৌসুমেই ঠিক মত থাকতে পারেন না। খেয়ে না খেয়ে থাকা যায় কিন্তু আশ্রয়স্থল যদি ঠিক না থাকে তাহলে দিন-রাত পার করা খুব মুসকিল । স্থানীয় মেম্বার-চেয়ারম্যানের কাছে একটি ঘরের জন্য করেও আজ পর্যন্ত বসত ঘর পাইনায়।

 

 

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



» সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় নারী-শিশুসহ নিহত ৪০

» হাজার বছরের ঐতিহ্য ধরে রেখেছেন কার্তিকপুরের মৃৎশিল্পীরা

» বেনাপোলের দূর্গাপুর থেকে ফেন্সিডিল ও ভারতীয় বিভিন্ন মালামাল সহ আটক-১

» ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

» সংবাদ প্রকাশের পর: রাজাপুর-বেকুটিয়া সড়কের ১৭ কোটি টাকার কাজ

» ঝালকাঠিতে সাংবাদিক নির্যাতনে প্রতিবাদে মানববন্ধন

» অফিসবাজার সমাজকল্যাণ তহবিল এর উদ্যাগে ফ্রি চক্ষু ক্যাম্প

» দিনাজপুরের খানসামায় তরুণ উদ্যোক্তাদের উদ্যোগে শীর্তাতদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

» ইব্রাহীম খলীলের লিভার ক্যান্সার, চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন

» জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ৯ম বর্ষে পদার্পণ জাবি প্রেসক্লাব

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ৮ই মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জরাজীর্ণ বসতঘরে জীবন-যাপন দশমিনায় মিনারা’র

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

সঞ্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা।। পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় জরাজীর্ণ বসতঘরে দীর্ঘ ১৭বছর যাবৎ মানবেতর জীবন-যাপন করছে অসহায় হতদরিদ্র মিনারা’র পরিবার। স্বামী হারা পরিবার খেয়ে না খেয়ে জরাজীর্ন অবস্থায় মানবতায় জীবন যাবন করে।  জানা যায়, উপজেলার বাঁশবাড়িয় ইউনিয়নের দক্ষিন বাঁশবাড়িয়াা গ্রামের মৃত কাঞ্চন আলী খাঁ’র স্ত্রী মিনারা বেগম ২কন্যা সন্তান নিয়ে একটি মোটামুটি ভালো আশ্রয়স্থল এর অভাবে বহু বছর ধরে জরাজীর্ণ বসতঘরে মানবেতর জীবন-যাপন করে আসছেন।

 

এলাকাবাসী জানান, মিনারার পরিবার গরীব অসহায় লোক। মানুষের বাসায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। বসত ভিটার প্রায় ২শতাংশ জমি ছাড়া তার নিজের কোন জমি নেই। তার ২মেয়ের মধ্যে বড় মেয়ে অর্থের অভাবে লেখাপড়া বাধ দিয়েছে। ছোট মেয়ে মাদ্রাসা দিয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী। বর্তমানে মিনারার বসত ঘরখানা খুবই জরাজীর্ন অবস্থায় আছে। বসত ঘর ভাংগা পুরাতন টিন ও পলিথিন দিয়ে ঢাকা। বর্ষার সময় ঘরের ছাউনী থেকে পানি পড়ে বাশঁ, খুটি, বিছানাসহ সব কিছু ভিজে নষ্ট হয়ে যায়। একটু বন্যা হলেই ঘরটি পরে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ঝড় বন্যা হলে অন্যের ঘরে আশ্রয় নিতে হয় মিনারার পরিবারের। এ অবস্থায় মিনারার মেয়েদেরকে নিয়ে খুবই মানবেতর ভাবে জরাজীর্ণ বসতঘরে জীবন-যাপন করছেন।

 

মিনারা জানান, বর্ষা কালে ঘরে পানি পড়ে বলে সারা রাত ঘরের এক কোনায় জেগে রাত কাটাতে হয়। আর এই ভেজা স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে বেশি করে অসুস্থ করে দিচ্ছে তাদের। অর্থিক অবস্থা ভাল না হওয়ায় ঠিক মত ঔষুধ কেনা হয় না তাদের। বর্তমানে তাদের ভাঙ্গা ঝুপড়ি নিয়ে বেশ চিন্তিত। কারন রোদ বৃষ্টি কোন মৌসুমেই ঠিক মত থাকতে পারেন না। খেয়ে না খেয়ে থাকা যায় কিন্তু আশ্রয়স্থল যদি ঠিক না থাকে তাহলে দিন-রাত পার করা খুব মুসকিল । স্থানীয় মেম্বার-চেয়ারম্যানের কাছে একটি ঘরের জন্য করেও আজ পর্যন্ত বসত ঘর পাইনায়।

 

 

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited