মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ তবিবর রহমান এর বিদায় অনুষ্ঠান

Spread the love

আত্রাই(নওগাঁ ) প্রতিনিধি:  চাকুরিতে মানুষের যোগদান ও চাকুরি শেষে অবসরে যাওয়া এটা একটা নিয়মতান্ত্রিক বিষয়। তবুও কারো কারো বেলায় এ নিয়ম মানতে ইচ্ছা করে না।, কোথাও যেন একটা ধাক্কা লাগে। প্রফেসর তবিবর রহমান ২০১০ সালে মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজে অধ্যক্ষ পদে যোগদান করেন। একটি অন্ধকার প্রতিষ্ঠানকে কিভাবে আলোকিত করলেন ভাবতে অবাক লাগে।

 

আমার চোখের সামনে ৬টি বছর কখন যে শেষ হয়ে গেল টের পেলাম না। সামনের গেইটে ঢুকে প্রতিষ্ঠানটির প্রবেশ দ্বারে ছিল খাদে খন্দে ভরা খোলা জায়গা। সব সময় পানি জমে থাকত। পেছনের গেইট খোলা আবস্থায়। যা কোন দিন বোঝা যায় নাই কোনটি সামনের আর কোনটি পেছনের গেট। প্রতিষ্ঠানের ভিতর -বাহিরে ময়লা আবর্জনা ও ধ্বংসস্তুপ ছিল।ফুল,ফুলগাছ এসবের নান্দনিক ছোঁয়া লাগেনি কখনো।। ছাত্র-শিক্ষক-অবিভাবকের মধ্যে ছিল যুদ্ধের পরিবেশ। পুর্বের ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোল্লা পরিবারের কৃতি কন্যা রোকেয়া বেগম স্থানীয় রাজনৈতিক ও পরিচালনা কমিটির ¯œায়ূ চাপে কোন রকম হ-যব-র-ল অবস্থায় তার সময় পার করে অবসরে চলে গেছেন। আসলেন বর্তমান বিদায়ী অধ্যক্ষ প্রফেসর তবিবর রহমান।চাকরির বয়স শেষ তবুও কেই তাকে বিদায় দিতে চায় ন্ াছাত্র,শিক্ষক,অবিভাবক কেউ না। সবাই যেন যাদু কওে ফেলেছেন।

 

কলেজের প্রবেশ গেইটআর খোলা নেই সেইখানে দর্শনিয় খোদাই করা গেইট তৈরী করা হয়েছ্ ে। নেই খালে খন্দে ভরা মাঠ। পিছনের গেইট দিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রবশ করে, আর সামনের গেইট দিয়েবের হয়।ফুলে ফুলে ভরা প্রতিষ্ঠানের সর্বত্র। অপূর্ব জায়গায় যে মনোরম দৃশ্যনান্দনিকতা সৃষ্ঠি করেছে তা না দেখে দর্শক মাত্রই অভিভূতহয়। শ্রেণি কক্ষের শৃঙ্খলা, শিক্ষার মান, অধ্রক্ষের কর্ম চাঞ্চল্য সবাইকে মূগ্ধ করে। কি চমৎকার বাবে শিক্ষক, শিক্ষার্থী , অবিভাবকদেও আপন কওে আগলে রেখেছেন, সেটা যেন যাদু মন্ত্র। এই সকল গুনের অধিকারী অধ্যক্ষ তবিবর রহমান তার অবসর যাবার কথা জেনেও তিনি স্থানীয় সংসদ সদস্য( আত্রাই- রাণী নগর) শিক্ষা প্রেমিক,ও উন্নয়নের রুপকার ইসরাফিল আলম এর সার্বিক সহযোগীতায় ও প্রচেষ্ঠায় নওগাঁ জেলার আত্রাইয়ে ১৯৬৮ সালে স্থাপিত মোলা আজাদ মেমোরিয়াল মহা বিদ্যালয়কে প্রথমে বিশ^ বিদ্যালয়ে রুপান্তরিত করে ৬টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করেন এবং উত্তর বঙ্গের মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সাবেক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিলের নামে ৪তলা একাডেমিক ভবন স্থাপন করা হয় । এ ছাড়া সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম এলাকার সাধারণ মানুষ, শিক্ষার্থীর কথা চিন্তা করে এলাকার সর্বহারা,জঙ্গীবাদ নির্মূল করতে সক্ষম হওয়ায়। এলাকার শিক্ষারর্থীদের শিক্ষায় শিক্ষত করতে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর অস্থাভাজন অর্জন করে ইতি মধ্যে অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় করনে অন্তভ’ক্ত করন করাতে কখনো পিঁছু পা হন নাই।

 

অধ্যক্ষ তবিবর রহমান একজন নিরহংকারী মানুষ।ভালো বাসেন জাতির জনক বঙ্গ বন্ধুকে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে তিনি বাকি জীবনও কাজ করার আশা রাখেন। তবে তার কথা হচ্ছে,যেখানে যে কাজের জন্য দায়িত্ব প্রাপ্ত সে তার কাজ যথাযথ ও নিষ্ঠার সাথে পালন করলেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন স্বার্থক হবে।এর জন্য মিটিং-মিছিল,সভা-সমিতি,যুদ্ধবিগ্রহের প্রয়োজন নেই। সর্বশেষ তিনি আশাবাদী মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজে একদিন অনেক রবীন্দ্র,নজরুল,হুমায়ূন আহম্মেদ ও লাখো দেশপ্রেমিক সূর্যসন্তান জন্মদেবে। তিনি আত্রাই মানুষের কাছে,শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের কাছে কৃতজ্ঞ ও দোয়া প্রার্থী । গতকাল রোববার সকাল ১১টায় মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজ চত্বরে শিক্ষক/কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপধাক্ষএবং বর্তমান ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাহবুবুল আলম দুলু। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান এবাদ।

 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামি লেিগর সভাপতি নৃপেন্দ্র নাথ দত্ত দুলাল। বিদায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যেও সমধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজের সাবেক পরিচালনা পরিষদ কমিটির সদস্য চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, উপজেলা মডেল প্রেস ক্লাবের সভাপতি একেএম কামাল উদ্দিন টগর, ভোঁপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাসেম, প্রভাষক সিমারানী সাহা বাংলা বিভাগ, প্রভাষক তানজিলা বেগম দর্মন বিভাগ, প্রধান সহকারী ফজলেরাব্বী জুয়েল, লাইব্রেরিয়ান মেহেনিগার আকতার,কর্মচারী বেলাল উদ্দিন , উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি কুদ্দুস আলী, সাদারন সম্পাদক বরিউল ইসলাম চঞ্চল,কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি হুমায়ূন কবির সোহাগ প্রমূখ।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» রোহিঙ্গাদের কারণে বনাঞ্চলের ক্ষতি হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

» নুসরাত হত্যা: ১৬ আসামিকে আদালতে হাজির

» নিখোঁজের ১১ দিন পর ময়মনসিংহ থেকে সোহেল তাজের ভাগ্নে উদ্ধার

» বান্দরবানে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সাংবাদিক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত

» ভারতের বিহার প্রদেশে খালি পেটে লিচু খাওয়ার পর ১০৩ শিশুর মৃত্যু

» বড়লেখায় ভোক্তা অধিকার আইনে ৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

» শনিবার ৪ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন এ প্লাস

» আগৈলঝাড়ায় ১১শ’ পিস ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার

» বিশালতা : মোঃ জুমান হোসেন

» ধলাই নদীর বাঁধ ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে বসত-ভিটাসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন





ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ তবিবর রহমান এর বিদায় অনুষ্ঠান

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

আত্রাই(নওগাঁ ) প্রতিনিধি:  চাকুরিতে মানুষের যোগদান ও চাকুরি শেষে অবসরে যাওয়া এটা একটা নিয়মতান্ত্রিক বিষয়। তবুও কারো কারো বেলায় এ নিয়ম মানতে ইচ্ছা করে না।, কোথাও যেন একটা ধাক্কা লাগে। প্রফেসর তবিবর রহমান ২০১০ সালে মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজে অধ্যক্ষ পদে যোগদান করেন। একটি অন্ধকার প্রতিষ্ঠানকে কিভাবে আলোকিত করলেন ভাবতে অবাক লাগে।

 

আমার চোখের সামনে ৬টি বছর কখন যে শেষ হয়ে গেল টের পেলাম না। সামনের গেইটে ঢুকে প্রতিষ্ঠানটির প্রবেশ দ্বারে ছিল খাদে খন্দে ভরা খোলা জায়গা। সব সময় পানি জমে থাকত। পেছনের গেইট খোলা আবস্থায়। যা কোন দিন বোঝা যায় নাই কোনটি সামনের আর কোনটি পেছনের গেট। প্রতিষ্ঠানের ভিতর -বাহিরে ময়লা আবর্জনা ও ধ্বংসস্তুপ ছিল।ফুল,ফুলগাছ এসবের নান্দনিক ছোঁয়া লাগেনি কখনো।। ছাত্র-শিক্ষক-অবিভাবকের মধ্যে ছিল যুদ্ধের পরিবেশ। পুর্বের ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোল্লা পরিবারের কৃতি কন্যা রোকেয়া বেগম স্থানীয় রাজনৈতিক ও পরিচালনা কমিটির ¯œায়ূ চাপে কোন রকম হ-যব-র-ল অবস্থায় তার সময় পার করে অবসরে চলে গেছেন। আসলেন বর্তমান বিদায়ী অধ্যক্ষ প্রফেসর তবিবর রহমান।চাকরির বয়স শেষ তবুও কেই তাকে বিদায় দিতে চায় ন্ াছাত্র,শিক্ষক,অবিভাবক কেউ না। সবাই যেন যাদু কওে ফেলেছেন।

 

কলেজের প্রবেশ গেইটআর খোলা নেই সেইখানে দর্শনিয় খোদাই করা গেইট তৈরী করা হয়েছ্ ে। নেই খালে খন্দে ভরা মাঠ। পিছনের গেইট দিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রবশ করে, আর সামনের গেইট দিয়েবের হয়।ফুলে ফুলে ভরা প্রতিষ্ঠানের সর্বত্র। অপূর্ব জায়গায় যে মনোরম দৃশ্যনান্দনিকতা সৃষ্ঠি করেছে তা না দেখে দর্শক মাত্রই অভিভূতহয়। শ্রেণি কক্ষের শৃঙ্খলা, শিক্ষার মান, অধ্রক্ষের কর্ম চাঞ্চল্য সবাইকে মূগ্ধ করে। কি চমৎকার বাবে শিক্ষক, শিক্ষার্থী , অবিভাবকদেও আপন কওে আগলে রেখেছেন, সেটা যেন যাদু মন্ত্র। এই সকল গুনের অধিকারী অধ্যক্ষ তবিবর রহমান তার অবসর যাবার কথা জেনেও তিনি স্থানীয় সংসদ সদস্য( আত্রাই- রাণী নগর) শিক্ষা প্রেমিক,ও উন্নয়নের রুপকার ইসরাফিল আলম এর সার্বিক সহযোগীতায় ও প্রচেষ্ঠায় নওগাঁ জেলার আত্রাইয়ে ১৯৬৮ সালে স্থাপিত মোলা আজাদ মেমোরিয়াল মহা বিদ্যালয়কে প্রথমে বিশ^ বিদ্যালয়ে রুপান্তরিত করে ৬টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করেন এবং উত্তর বঙ্গের মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সাবেক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিলের নামে ৪তলা একাডেমিক ভবন স্থাপন করা হয় । এ ছাড়া সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম এলাকার সাধারণ মানুষ, শিক্ষার্থীর কথা চিন্তা করে এলাকার সর্বহারা,জঙ্গীবাদ নির্মূল করতে সক্ষম হওয়ায়। এলাকার শিক্ষারর্থীদের শিক্ষায় শিক্ষত করতে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর অস্থাভাজন অর্জন করে ইতি মধ্যে অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় করনে অন্তভ’ক্ত করন করাতে কখনো পিঁছু পা হন নাই।

 

অধ্যক্ষ তবিবর রহমান একজন নিরহংকারী মানুষ।ভালো বাসেন জাতির জনক বঙ্গ বন্ধুকে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে তিনি বাকি জীবনও কাজ করার আশা রাখেন। তবে তার কথা হচ্ছে,যেখানে যে কাজের জন্য দায়িত্ব প্রাপ্ত সে তার কাজ যথাযথ ও নিষ্ঠার সাথে পালন করলেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন স্বার্থক হবে।এর জন্য মিটিং-মিছিল,সভা-সমিতি,যুদ্ধবিগ্রহের প্রয়োজন নেই। সর্বশেষ তিনি আশাবাদী মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজে একদিন অনেক রবীন্দ্র,নজরুল,হুমায়ূন আহম্মেদ ও লাখো দেশপ্রেমিক সূর্যসন্তান জন্মদেবে। তিনি আত্রাই মানুষের কাছে,শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের কাছে কৃতজ্ঞ ও দোয়া প্রার্থী । গতকাল রোববার সকাল ১১টায় মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজ চত্বরে শিক্ষক/কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপধাক্ষএবং বর্তমান ভার প্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাহবুবুল আলম দুলু। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান এবাদ।

 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামি লেিগর সভাপতি নৃপেন্দ্র নাথ দত্ত দুলাল। বিদায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যেও সমধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজের সাবেক পরিচালনা পরিষদ কমিটির সদস্য চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, উপজেলা মডেল প্রেস ক্লাবের সভাপতি একেএম কামাল উদ্দিন টগর, ভোঁপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাসেম, প্রভাষক সিমারানী সাহা বাংলা বিভাগ, প্রভাষক তানজিলা বেগম দর্মন বিভাগ, প্রধান সহকারী ফজলেরাব্বী জুয়েল, লাইব্রেরিয়ান মেহেনিগার আকতার,কর্মচারী বেলাল উদ্দিন , উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি কুদ্দুস আলী, সাদারন সম্পাদক বরিউল ইসলাম চঞ্চল,কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি হুমায়ূন কবির সোহাগ প্রমূখ।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited