হারিয়ে যাওয়া চড়ুইভাতি উৎসব

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার: শিশুবেলার চড়ুইভাতি খেলা কতোই না মজার। চড়ুইভাতি অথবা গ্রামীন জনগোষ্ঠীর হারিয়ে যাওয়া টুপা টুপি উৎসব সচরাচর দেখা না গেলেও আজ ৬ নভেম্বর মৌলভীবাজারে আওয়ার প্রাইড হোয়াটসআপ গ্র“প, দুর্লভপুর এর আয়োজনে আয়োজিত আনন্দঘন ও সৃষ্টিধর্মী চড়ুইভাতি উৎসব-২০১৯ আমন্ত্রিত অতিথিসহ দর্শনার্থীদের মন ছুঁয়ে যায়। যেনো ক্ষণেকের তরে হারিয়ে যান তাদের ফেলে আসা সেই সব অতীতের স্মৃতি রোমন্থনে। নস্টালজিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন সকলেই।

 

মনু নদীর তীরে খেয়া ঘাঠ এলাকায় রৌদ্রোজ্জ্বল পরিবেশে অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা ঘটে। শিশু কালে কাদা মাটির তৈরি ছোট ছোট হাড়িতে মিছেমিছি রান্না করা। একটিতে লতাপাতা দিয়ে সবজি। তার মধ্যে একটিতে ধুলা মাটির তৈরি ভাত। দিনভর খাওয়া-দাওয়া ভুলে চড়ৃইভাতি খেলায় শিশুদের আনন্দের শেষ নেই। বাড়ির পাশে কোন এক নিরিবিলি স্থানে গ্রামের শিশুদের শিশুরা প্রায় সময় এ খেলায় মেতে উঠে। বন্ধুদের সঙ্গে দল বেঁধে পুকুর, খাল-বিলে সাঁতার কাটা, মাছ ধরা এবং সেই মাছ দিয়ে বনভোজন, গোল¬াছুট, কানামাছি, হা-ডু-ডু, বৌছি, দাঁড়িয়াবান্ধা, কুত-কুত, সাতচারা, ডাংগুলি, এক্কা-দোক্কা, বদনসহ আরো কতো খেলা তার কোনো হিসেব সেই। কিন্তু এসব খেলার অনেকই এখন আধুনিকতার যুগে হারিয়ে যেতে বসেছে। ধুলাবালি মেখে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার পরে চলে মাযের বকুনি।

 

এমন দৃশ্য গ্রামে চোখে পড়লেও এখন চড়ুইভাতি খেলা হারিয়ে গেছে বললেই চলে। দুর্লভপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর শিক্ষার্থীরাসহ স্থানীয় এলাকাবাসী তাবুতে বসে অনেক যতœ ও মমতায় চড়ইভাতির রান্না করা খাবার খান। অনেক কষ্টে করা রান্না খাবার তারা পরম তৃপ্তির সাথে ভোজন করে। বাড়ির প্রতিদিনের রান্নার চেয়ে হয়তো কারো বেশি ভালো বা কম হয়েছে। কিন্তু তাতে আনন্দের উচ্ছ্বাসে কমতি পড়েনি এতোটুকু। এই চড়ুইভাতি, টুপা টুপি আয়োজনকে প্রাণবন্ত করতে স্থানীয় দুর্লভপুর গ্রামের লোকজন যে যার মত মনে প্রাণে সহযোগী করেন। সেখানে উপস্থিত গন্যমান্য লোকজনদের মতে, দেশীয় সংস্কৃতি ও গ্রামবাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। না হলে এক সময় কালের গর্ভে হারিয়ে যাবে গ্রামবাংলার এসব উৎসব।

 

 

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



» এস এ গেমস আর্চারিতে দশে দশ বাংলাদেশ

» দশমিনায় দূর্নীতি বিরোধী মানববন্ধন ও সভা অনুষ্ঠিত

» জরাজীর্ণ বসতঘরে জীবন-যাপন দশমিনায় মিনারা’র

» যশোরের বেনাপোলে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিসব-২০১৯ উদযাপন

» যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতিতে পুনর্বাসনকারীদের বিচারের আওতায় আনার দাবিতে সমাবেশ ও মানববন্ধন

» বিপিএলের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

» জমকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

» ডাকসু ভিপি নুরের পদত্যাগ চায় ছাত্রলীগের ২৩ নেতা

» গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে রুম্পার কথিত প্রেমিককে

» প্রধানমন্ত্রী আজ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করবেন

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ২৫শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

হারিয়ে যাওয়া চড়ুইভাতি উৎসব

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার: শিশুবেলার চড়ুইভাতি খেলা কতোই না মজার। চড়ুইভাতি অথবা গ্রামীন জনগোষ্ঠীর হারিয়ে যাওয়া টুপা টুপি উৎসব সচরাচর দেখা না গেলেও আজ ৬ নভেম্বর মৌলভীবাজারে আওয়ার প্রাইড হোয়াটসআপ গ্র“প, দুর্লভপুর এর আয়োজনে আয়োজিত আনন্দঘন ও সৃষ্টিধর্মী চড়ুইভাতি উৎসব-২০১৯ আমন্ত্রিত অতিথিসহ দর্শনার্থীদের মন ছুঁয়ে যায়। যেনো ক্ষণেকের তরে হারিয়ে যান তাদের ফেলে আসা সেই সব অতীতের স্মৃতি রোমন্থনে। নস্টালজিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন সকলেই।

 

মনু নদীর তীরে খেয়া ঘাঠ এলাকায় রৌদ্রোজ্জ্বল পরিবেশে অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা ঘটে। শিশু কালে কাদা মাটির তৈরি ছোট ছোট হাড়িতে মিছেমিছি রান্না করা। একটিতে লতাপাতা দিয়ে সবজি। তার মধ্যে একটিতে ধুলা মাটির তৈরি ভাত। দিনভর খাওয়া-দাওয়া ভুলে চড়ৃইভাতি খেলায় শিশুদের আনন্দের শেষ নেই। বাড়ির পাশে কোন এক নিরিবিলি স্থানে গ্রামের শিশুদের শিশুরা প্রায় সময় এ খেলায় মেতে উঠে। বন্ধুদের সঙ্গে দল বেঁধে পুকুর, খাল-বিলে সাঁতার কাটা, মাছ ধরা এবং সেই মাছ দিয়ে বনভোজন, গোল¬াছুট, কানামাছি, হা-ডু-ডু, বৌছি, দাঁড়িয়াবান্ধা, কুত-কুত, সাতচারা, ডাংগুলি, এক্কা-দোক্কা, বদনসহ আরো কতো খেলা তার কোনো হিসেব সেই। কিন্তু এসব খেলার অনেকই এখন আধুনিকতার যুগে হারিয়ে যেতে বসেছে। ধুলাবালি মেখে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার পরে চলে মাযের বকুনি।

 

এমন দৃশ্য গ্রামে চোখে পড়লেও এখন চড়ুইভাতি খেলা হারিয়ে গেছে বললেই চলে। দুর্লভপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর শিক্ষার্থীরাসহ স্থানীয় এলাকাবাসী তাবুতে বসে অনেক যতœ ও মমতায় চড়ইভাতির রান্না করা খাবার খান। অনেক কষ্টে করা রান্না খাবার তারা পরম তৃপ্তির সাথে ভোজন করে। বাড়ির প্রতিদিনের রান্নার চেয়ে হয়তো কারো বেশি ভালো বা কম হয়েছে। কিন্তু তাতে আনন্দের উচ্ছ্বাসে কমতি পড়েনি এতোটুকু। এই চড়ুইভাতি, টুপা টুপি আয়োজনকে প্রাণবন্ত করতে স্থানীয় দুর্লভপুর গ্রামের লোকজন যে যার মত মনে প্রাণে সহযোগী করেন। সেখানে উপস্থিত গন্যমান্য লোকজনদের মতে, দেশীয় সংস্কৃতি ও গ্রামবাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। না হলে এক সময় কালের গর্ভে হারিয়ে যাবে গ্রামবাংলার এসব উৎসব।

 

 

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited