জিয়ার মৃত্যুতে সবচেয়ে বেনিফিসিয়ারী বেগম জিয়া; ড. হাছান মাহমুদ এম.পি

জিয়াউর রহমানের হত্যাকাণ্ডে কারণে সবচাইতে লাভবান ব্যক্তিটি হচ্ছে তারেক রহমানের মা বেগম খালেদা জিয়া বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর কারণে দেশে দুইবার প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। আর বিএনপির মতো একটি দলের চেয়াপারসনের পদ পেয়েছেন। জিয়াউর রহমানের হত্যাকা-ের কারণে সবচাইতে বেনিফিসিয়ারী বেগম খালেদা জিয়া।

 

১৩ জুলাই ২০১৯ শনিবার সকাল ১১.০০টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে “জননেত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্দী দিবস পালন” উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় মাননীয় তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার-প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এম.পি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। হাছান মাহমুদ বলেন, জিয়ার হত্যাকা-ের সঙ্গে বিএনপির উর্ধ্বতন নেতারা জড়িত কি-না সেটি খুঁজে বের করা দরকার। জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর আপনার দুই বার ক্ষমতায় ছিলেন জিয়া হত্যার মামলা করলেন না কেনো? মামলাটা চালালেন না কেনো। এই রহস্যটা খুঁজে বের করা দরকার।

 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান তার ক্ষমতাকে নিষ্কণ্টক করার জন্য হাজার হাজার সেনা অফিসারকে হত্যা করেছে। ছুটিতো থাকা সেনাবাহিনীর অফিসারকে ধরে এনে ফাঁসি দেয়া হলো। সে জানলো না কি কারণে তাকে ফাঁসি দেয়া হলো। এভাবে বিনাবিচারে শতশত সেনাবাহিনীর অফিসারকে বিনা বিচারের হত্যা করেছে। আওয়ামী লীগের মুখপাত্র বলেন, আমি মনে জিয়াউর রহমান ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট হত্যাকা-ের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। একটি কমিশন গঠন করে যারা ১৫ আগস্ট হত্যাকা-ের ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত তাদের বিচার করা প্রয়োজন। তাহলে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হবে। ন্যায় ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা হবে।

 

এসময় বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি দৈন্যদশা একজন নেতা খুঁজে পেলেন না। তাই তারা ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার দ-প্রাপ্ত আসামি এবং দুর্নীতি মামলার আসামি তারেক রহমানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করলেন। তিনি সাত সমুদ্র তেরো নদীর পাড়ে বসে নানা কথা বলেন। রাজনীতি করতে হলে সাহস থাকতে হয়। রাজনীতি করলে হলে বুলেটের সামনে দাঁড়াতে হয়। যে রাজনীতিবিদ দলের নেতৃত্ব দিলে পারে না। সে রাজনীতিবিদ সঠিক রাজনীতিবিদ নয়।

 

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কন্ঠশিল্পী রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এম.পি, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এড. শামসুল হক টুকু এমপি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আখতার হোসেন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় নেত্রী চিত্রনায়িকা শাহনুর, জেনিফার ফেরদৌস, আওয়ামী লীগ নেতা মোত্তাছিম বিল্লাহ, কামাল চৌধুরী, প্রমুখ।

 

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



» কলাপাড়ায় স্টুডেন্ড কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত

» কলাপাড়ায় বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতা প্রাপ্তির চূড়ান্ত বাছাই শেষ

» আগৈলঝাড়ায় স্বাস্থ্য সহকারীদের ৪ দফা দাবি আদায়ের লক্ষে কর্মবিরতি পালন

» আগৈলঝাড়ায় ভুলে ভরা বিদ্যালয়ের দাওয়াতপত্র: শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ

» আত্রাইয়ে ছাত্র দলের মতবিনিময় ও আলোচনা সভা

» আত্রাইয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিল

» আধুনিকতার ছোঁয়ায় বিলুপ্তির পথে আত্রাইয়ে মাটির ঘর

» আইসিটি খাতের উন্নয়নে সব রকমের সুযোগ সুবিধা দেওয়ার চেষ্টায় এগিয়ে এসেছে সরকার

» ঝিনাইদহে ৩ দিন ব্যাপী জাতীয় নজরুল সম্মেলন শুরু

» সারাদেশের ন্যায়ে সিড্যা উচ্চ বিদ্যালয় স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ, ১১ই মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জিয়ার মৃত্যুতে সবচেয়ে বেনিফিসিয়ারী বেগম জিয়া; ড. হাছান মাহমুদ এম.পি

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

জিয়াউর রহমানের হত্যাকাণ্ডে কারণে সবচাইতে লাভবান ব্যক্তিটি হচ্ছে তারেক রহমানের মা বেগম খালেদা জিয়া বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর কারণে দেশে দুইবার প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। আর বিএনপির মতো একটি দলের চেয়াপারসনের পদ পেয়েছেন। জিয়াউর রহমানের হত্যাকা-ের কারণে সবচাইতে বেনিফিসিয়ারী বেগম খালেদা জিয়া।

 

১৩ জুলাই ২০১৯ শনিবার সকাল ১১.০০টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে “জননেত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্দী দিবস পালন” উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় মাননীয় তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার-প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এম.পি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। হাছান মাহমুদ বলেন, জিয়ার হত্যাকা-ের সঙ্গে বিএনপির উর্ধ্বতন নেতারা জড়িত কি-না সেটি খুঁজে বের করা দরকার। জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর আপনার দুই বার ক্ষমতায় ছিলেন জিয়া হত্যার মামলা করলেন না কেনো? মামলাটা চালালেন না কেনো। এই রহস্যটা খুঁজে বের করা দরকার।

 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমান তার ক্ষমতাকে নিষ্কণ্টক করার জন্য হাজার হাজার সেনা অফিসারকে হত্যা করেছে। ছুটিতো থাকা সেনাবাহিনীর অফিসারকে ধরে এনে ফাঁসি দেয়া হলো। সে জানলো না কি কারণে তাকে ফাঁসি দেয়া হলো। এভাবে বিনাবিচারে শতশত সেনাবাহিনীর অফিসারকে বিনা বিচারের হত্যা করেছে। আওয়ামী লীগের মুখপাত্র বলেন, আমি মনে জিয়াউর রহমান ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট হত্যাকা-ের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। একটি কমিশন গঠন করে যারা ১৫ আগস্ট হত্যাকা-ের ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত তাদের বিচার করা প্রয়োজন। তাহলে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হবে। ন্যায় ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা হবে।

 

এসময় বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি দৈন্যদশা একজন নেতা খুঁজে পেলেন না। তাই তারা ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার দ-প্রাপ্ত আসামি এবং দুর্নীতি মামলার আসামি তারেক রহমানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করলেন। তিনি সাত সমুদ্র তেরো নদীর পাড়ে বসে নানা কথা বলেন। রাজনীতি করতে হলে সাহস থাকতে হয়। রাজনীতি করলে হলে বুলেটের সামনে দাঁড়াতে হয়। যে রাজনীতিবিদ দলের নেতৃত্ব দিলে পারে না। সে রাজনীতিবিদ সঠিক রাজনীতিবিদ নয়।

 

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কন্ঠশিল্পী রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এম.পি, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এড. শামসুল হক টুকু এমপি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আখতার হোসেন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় নেত্রী চিত্রনায়িকা শাহনুর, জেনিফার ফেরদৌস, আওয়ামী লীগ নেতা মোত্তাছিম বিল্লাহ, কামাল চৌধুরী, প্রমুখ।

 

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited