অস্ট্রেলিয়াকে কাঁদিয়ে ২৭ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

Spread the love

সেই ১৯৯২। গুনে গুনে ২৭ বছর। সবশেষ সেবারই বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল ইংল্যান্ড। অবশেষে ভাগ্যের শিকে ছিড়লো। চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে বীরদর্পে ফাইনালে পা রাখলো ইংলিশরা। অথচ একটা সময় সেমিতে তাদের সেমিতে উঠা নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছিল। সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া পা রাখা মানেই বিশ্বকাপের রঙ হলুদ। এতদিনের এই অঘোষিত রীতি বদলে দিলো ইংলিশরা। এখন পর্যন্ত ৭ বার সেমিতে পা রেখে শুধুমাত্র ১৯৭৫ সালের প্রথম বিশ্বকাপে এবং ১৯৯৬ সালের আসরে শিরোপা জিততে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। তবে সেমিতে কখনোই হারেরি। এবার অজিদের সেই দম্ভ এবার চূর্ণ হলো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের কাছে ৮ উইকেটের হারে।

 

এর আগে মোট তিন বার (১৯৭৯, ১৯৮৭, ১৯৯২) ফাইনালে উঠলেও চ্যাম্পিয়নের ট্রফিটা ঘরে তুলতে পারেনি ক্রিকেটের জনকরা। ঘরের মাটিতে এবার তাই বড় সুযোগ ইংলিশদের। রোববার (১৪ জুলাই) লর্ডসে তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। সবশেষ ২০১৫ সালে ফাইনালে উঠলেও শিরোপা জিততে পারেনি কিউইরা। এবার তাই প্রথম শিরোপা জয়ের সুযোগ তাদের সামনেও।বার্মিংহামে এদিন আগ্নেয়গিরির মতো জ্বলে উঠেছিলো মরগান বাহিনী। টস হারলেও তার কোনো প্রভাব পড়তে দেননি বোলারা। শুরু থেকেই অস্ট্রেলিয়াকে চেপে ধরে অলআউট করে দেয় মাত্র ২২৩ রানে। সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে তেমন ঘামই ঝরাতে হয়নি স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের। দুই ওপেনারের ১২৪ রানের জুটিই ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয় অস্ট্রেলিয়াকে। জনি বেয়ারস্টোকে তুলে নিয়ে স্বদেশি গ্লেন ম্যাকগ্রাথকে ছাড়িয়ে এক আসরে সবেচেয়ে বেশি (২৭) উইকেট শিকারের রেকর্ড গড়লেও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি মিচেল স্টার্ক।

 

কি দারুন ব্যাটিংটাই না করছিলন! স্কোরকার্ডে জেসন রয়ের নামের পাশে ৮৫ রান। তার সেঞ্চুরিরর অপেক্ষায় থাকা সমর্থকদের বুকটা হঠাৎ কেঁপে উঠলো প্যাট কামিন্সের বাউন্সে। রয় ফিরে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার দিকে তাকিয়ে অবাক হয়ে দেখতে হলো তার আঙুল তোলা। মুখভঙিতে ঘোর আপত্তি জানালেও রিভিউ না থাকায় তাকে বিদায় নিতে হলো। পরে অবশ্য টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, উইকেটের পেছনে অ্যালেক্স কারির গ্লাভসে যাওয়ার আগে রয়ের ব্যাট ছোঁয়নি বলটি। ২ উইকেট তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়া শিবিরে সাময়ীক স্বস্তি ফিরলেও তা দীর্ঘস্থায়ী হতে দেননি অধিনায়ক ইয়ন মরগান এবং জো রুট। এ দুজনের সাবলীল ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ড জয়ের বন্দরে পৌঁছে ১০৭ বল হাতে রেখেই।

 

এর আগে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের মতো মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ইংল্যান্ডের সামনে মামুলি টার্গেট দাঁড় করায় অস্ট্রেলিয়া। আগে ব্যাট করতে নেমে ২২৩ রানে অলআউট হয় অজিরা। টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। নিজের সিদ্ধান্তকে নিজেই ভুল প্রমাণিত করে শূন্য রানে বিদায় নিলেন ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারেই। অধিনায়কের পথ ধরলেন আরেক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারও। ক্রিস ওকসের বাউন্সার সামলাতে না পেরে উইকেটের পেছনে জনি বেয়ারস্টোর হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন মাত্র ৯ রানে। উসমান খাজার ইনজুরির সুবাদে বিশ্বকাপে অভিষেক হওয়া পিটার হ্যান্ডসকম্বের বিদায়ে সংকটের অথৈ সাগরে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। ৬ ওভারে ১৪ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর অ্যালেক্স কারিকে নিয়ে হাল ধরেন স্টিভ স্মিথ। তাদের ১০৩ রানের জুটি ভাঙে ৪৬ রানে কারির বিদায়ে। স্মিথ হাত খুলতে শুরু করলেও আবার খোলসের মধ্যে ধুকে পড়তে হয় মার্কাস স্টইনিশ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং প্যাট কামিন্সদের দ্রুত বিদায়ে।

 

শেষ দিকে মিচেল স্টার্ককে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকায় গতি আনছিলেন। কিন্তু তিন ওভার বাকি থাকতে স্মিথ যখন রান আউটের ফাঁদে পড়েন তখন তার সেঞ্চুরি পূরণ হতে বাকি ১৫ রান। ১১৯ বলে ৮৫ রানের লড়াকু ইনিংসটিতে মাত্র ৬টি বাউন্ডারি হাঁকান অজিদের সাবেক অধিনায়ক। স্মিথের বিদায়ের পর নির্ধারিত ৫০ ওভার খেলতেই পারেনি পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এক ওভার বাকি থাকতেই ২২৩ অলআউট হয় তারা। বল হাতে ৩টি করে উইকেট তুলে নেন ক্রিস ওকস এবং আদিল রশিদ। এছাড়া জোফরে আর্চার ২টি এবং ১টি উইকেট নেন মার্ক উড।

 

ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে মৌলভীবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবে নবারুন বই উপহার

» নিরাপত্তা ঝুঁকি পাল্টে দেবে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব; রুয়েটে বক্তারা

» কমলগঞ্জে বন্যাদুর্গত ৪০ পরিবার এর মধ্যে ত্রান বিতরণ

» রহিমপুর ইউনিয়নে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

» ঝালকাঠিতে ইস্পাহানী ইসলামিয়া চক্ষু ইনষ্টিটিউট ও হাসপাতালের উদ্বোধন

» নওগাঁর আত্রাইয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে মূল্যায়ন ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান

» পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ছেলেধরা সন্দেহে এক নারী আটক

» পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় চার দিন ধরে মাদ্রাসা ছাত্র সিয়াম (১৪) নিখোঁজ

» গুজব প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের লিফলেট বিতরণ

» ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৮ই শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অস্ট্রেলিয়াকে কাঁদিয়ে ২৭ বছর পর ফাইনালে ইংল্যান্ড

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

সেই ১৯৯২। গুনে গুনে ২৭ বছর। সবশেষ সেবারই বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল ইংল্যান্ড। অবশেষে ভাগ্যের শিকে ছিড়লো। চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে বীরদর্পে ফাইনালে পা রাখলো ইংলিশরা। অথচ একটা সময় সেমিতে তাদের সেমিতে উঠা নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছিল। সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া পা রাখা মানেই বিশ্বকাপের রঙ হলুদ। এতদিনের এই অঘোষিত রীতি বদলে দিলো ইংলিশরা। এখন পর্যন্ত ৭ বার সেমিতে পা রেখে শুধুমাত্র ১৯৭৫ সালের প্রথম বিশ্বকাপে এবং ১৯৯৬ সালের আসরে শিরোপা জিততে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। তবে সেমিতে কখনোই হারেরি। এবার অজিদের সেই দম্ভ এবার চূর্ণ হলো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের কাছে ৮ উইকেটের হারে।

 

এর আগে মোট তিন বার (১৯৭৯, ১৯৮৭, ১৯৯২) ফাইনালে উঠলেও চ্যাম্পিয়নের ট্রফিটা ঘরে তুলতে পারেনি ক্রিকেটের জনকরা। ঘরের মাটিতে এবার তাই বড় সুযোগ ইংলিশদের। রোববার (১৪ জুলাই) লর্ডসে তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। সবশেষ ২০১৫ সালে ফাইনালে উঠলেও শিরোপা জিততে পারেনি কিউইরা। এবার তাই প্রথম শিরোপা জয়ের সুযোগ তাদের সামনেও।বার্মিংহামে এদিন আগ্নেয়গিরির মতো জ্বলে উঠেছিলো মরগান বাহিনী। টস হারলেও তার কোনো প্রভাব পড়তে দেননি বোলারা। শুরু থেকেই অস্ট্রেলিয়াকে চেপে ধরে অলআউট করে দেয় মাত্র ২২৩ রানে। সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে তেমন ঘামই ঝরাতে হয়নি স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের। দুই ওপেনারের ১২৪ রানের জুটিই ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয় অস্ট্রেলিয়াকে। জনি বেয়ারস্টোকে তুলে নিয়ে স্বদেশি গ্লেন ম্যাকগ্রাথকে ছাড়িয়ে এক আসরে সবেচেয়ে বেশি (২৭) উইকেট শিকারের রেকর্ড গড়লেও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি মিচেল স্টার্ক।

 

কি দারুন ব্যাটিংটাই না করছিলন! স্কোরকার্ডে জেসন রয়ের নামের পাশে ৮৫ রান। তার সেঞ্চুরিরর অপেক্ষায় থাকা সমর্থকদের বুকটা হঠাৎ কেঁপে উঠলো প্যাট কামিন্সের বাউন্সে। রয় ফিরে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার দিকে তাকিয়ে অবাক হয়ে দেখতে হলো তার আঙুল তোলা। মুখভঙিতে ঘোর আপত্তি জানালেও রিভিউ না থাকায় তাকে বিদায় নিতে হলো। পরে অবশ্য টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, উইকেটের পেছনে অ্যালেক্স কারির গ্লাভসে যাওয়ার আগে রয়ের ব্যাট ছোঁয়নি বলটি। ২ উইকেট তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়া শিবিরে সাময়ীক স্বস্তি ফিরলেও তা দীর্ঘস্থায়ী হতে দেননি অধিনায়ক ইয়ন মরগান এবং জো রুট। এ দুজনের সাবলীল ব্যাটিংয়ে ইংল্যান্ড জয়ের বন্দরে পৌঁছে ১০৭ বল হাতে রেখেই।

 

এর আগে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের মতো মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ইংল্যান্ডের সামনে মামুলি টার্গেট দাঁড় করায় অস্ট্রেলিয়া। আগে ব্যাট করতে নেমে ২২৩ রানে অলআউট হয় অজিরা। টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। নিজের সিদ্ধান্তকে নিজেই ভুল প্রমাণিত করে শূন্য রানে বিদায় নিলেন ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারেই। অধিনায়কের পথ ধরলেন আরেক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারও। ক্রিস ওকসের বাউন্সার সামলাতে না পেরে উইকেটের পেছনে জনি বেয়ারস্টোর হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন মাত্র ৯ রানে। উসমান খাজার ইনজুরির সুবাদে বিশ্বকাপে অভিষেক হওয়া পিটার হ্যান্ডসকম্বের বিদায়ে সংকটের অথৈ সাগরে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। ৬ ওভারে ১৪ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর অ্যালেক্স কারিকে নিয়ে হাল ধরেন স্টিভ স্মিথ। তাদের ১০৩ রানের জুটি ভাঙে ৪৬ রানে কারির বিদায়ে। স্মিথ হাত খুলতে শুরু করলেও আবার খোলসের মধ্যে ধুকে পড়তে হয় মার্কাস স্টইনিশ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং প্যাট কামিন্সদের দ্রুত বিদায়ে।

 

শেষ দিকে মিচেল স্টার্ককে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকায় গতি আনছিলেন। কিন্তু তিন ওভার বাকি থাকতে স্মিথ যখন রান আউটের ফাঁদে পড়েন তখন তার সেঞ্চুরি পূরণ হতে বাকি ১৫ রান। ১১৯ বলে ৮৫ রানের লড়াকু ইনিংসটিতে মাত্র ৬টি বাউন্ডারি হাঁকান অজিদের সাবেক অধিনায়ক। স্মিথের বিদায়ের পর নির্ধারিত ৫০ ওভার খেলতেই পারেনি পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এক ওভার বাকি থাকতেই ২২৩ অলআউট হয় তারা। বল হাতে ৩টি করে উইকেট তুলে নেন ক্রিস ওকস এবং আদিল রশিদ। এছাড়া জোফরে আর্চার ২টি এবং ১টি উইকেট নেন মার্ক উড।

 

ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে জয়ী।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited