৯০-এর দশকে ভারতের প্রথম সারির বিখ্যাত মডেল এখন দেহব্যবসায়ী!

Spread the love

৯০-এর দশকে ভারতের প্রথম সারির মডেলদের মধ্যে আলোচিত নাম গীতাঞ্জলি নাগপাল। ক্যারিয়ারের সুবর্ণ সময়ে তার রূপের চর্চা চলত বলিউডের অলি-গলিতে। জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে তার তুলনা করা হতো। নামজাদা ডিজাইনার থেকে ফটোগ্রাফার-প্রায় সবার সঙ্গেই কাজ করেছেন গীতাঞ্জলি নাগপাল। গ্ল্যামার জগতের চাকচিক্যে চোখ ধাঁধিয়ে গেলেও শেষ জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। আর সেই অন্ধকারেই হারিয়ে যাওয়া এক জীবনের উদাহরণ গীতাঞ্জলি।

 

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, দিল্লির লেডি শ্রীরাম কলেজ থেকে পাশ করা গীতাঞ্জলি মডেলিং শুরুর প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই সাফল্যের শিখরে পৌঁছে যান। সাবেক বিশ্ব সুন্দরী সুস্মিতা সেনের মতো অভিনেত্রীদের সঙ্গে র‌্যাম্পে হেঁটেছেন তিনি। কিন্তু শীর্ষ মডেল থাকা অবস্থায় জড়িয়ে পড়েন মাদকের জালে। সে সময় নিজের কাজের থেকেও নেশার জন্যই খবরের শিরোনামে থাকতেন তিনি। এরপর পরিবারের অমতে বিয়ে করেন রবার্ট নামের এক জার্মান নাগরিককে। তবে কিছুদিনের মধ্যেই সেই বিয়ে ভেঙে যায়।

 

এরপর এক ব্রিটিশ নাগরিকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। সেই সম্পর্কে থাকাকালীনই গীতাঞ্জলি মডেলিং থেকে দূরে সরে যান। বেশ কয়েকবছর পর ২০০৭ সালে এক ফটোগ্রাফার তাকে দিল্লির রাস্তায় ভিক্ষা করতে দেখেন। দিল্লির মহিলা কমিশন তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান এবং তার দেখভালের দায়িত্ব নেন। প্রাথমিক চিকিৎসার পর গীতাঞ্জলির ঠাঁই হয় ‘বিদ্যাসাগর ইন্সটিটিউট অব নিউরো সায়েন্সে’।

 

তিনি বলেন, খাবারের টাকা রোজগারের জন্য ভিক্ষা থেকে দেহব্যবসা-সবই করেছি। ২০১৩ সালে গীতাঞ্জলির মৃত্যু হয়। জাঁকজমকপূর্ণ জীবন থেকে অবহেলায় মৃত্যুর পুরোটাই যেন সিনেমার মতো ছিল তার বাস্তব। গীতাঞ্জলি লাইম লাইট থেকে সরে গেলেও বিতর্ক তার পিছু ছাড়েনি। ২০০৮ সালে মধুর ভান্ডারকরের ‘ফ্যাশন’ সিনেমাটির একটি চরিত্র গীতাঞ্জলির জীবনের উপর ভিত্তি করেই তৈরি হয়েছিল।

 

দিল্লি মহিলা কমিশন এই সিনেমাটি বন্ধের দাবি নিয়ে কোর্টে গেলেও কোনো ফল মেলেনি। পরবর্তী সময়ে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত স্বীকার করেন যে ‘ফ্যাশন’-এ তার চরিত্রটি মিস নাগপালের উপর ভিত্তি করেই হয়েছিল। এই চরিত্রে অভিনয় তাকে পরিচালকদের নজরে নিয়ে আসে এবং সেরা পার্শ্ব-অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতে নিতে সাহায্য করে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন জিএম কাদের

» পটুয়াখালীর গলাচিপায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ পালিত

» যশোরের শার্শা উপজেলায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ পালিত

» রাংঙ্গাবালী উপজেলায় বর্জ্রপাতে এক জনের মৃত্যু

» মৎস্য বন্দর মহিপুরে চলছে খাস জমি দখলের মাহোৎসব; যেন দেখার কেউ নেই

» জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ/১৯ উপলক্ষে দশমিনায় সংবাদ সম্মেলন

» কলাপাড়ায় মৎস্য কর্মকর্তার সাথে সংবাদকর্মীদের মতবিনিময়

» মাদরাসা বোর্ডে পাসের হার ৮৮.৫৬ শতাংশ

» ৪১ প্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করেনি

» রিফাত হত্যা মামলায় ৫ দিনের রিমান্ডে আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৩রা শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

৯০-এর দশকে ভারতের প্রথম সারির বিখ্যাত মডেল এখন দেহব্যবসায়ী!

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

৯০-এর দশকে ভারতের প্রথম সারির মডেলদের মধ্যে আলোচিত নাম গীতাঞ্জলি নাগপাল। ক্যারিয়ারের সুবর্ণ সময়ে তার রূপের চর্চা চলত বলিউডের অলি-গলিতে। জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে তার তুলনা করা হতো। নামজাদা ডিজাইনার থেকে ফটোগ্রাফার-প্রায় সবার সঙ্গেই কাজ করেছেন গীতাঞ্জলি নাগপাল। গ্ল্যামার জগতের চাকচিক্যে চোখ ধাঁধিয়ে গেলেও শেষ জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। আর সেই অন্ধকারেই হারিয়ে যাওয়া এক জীবনের উদাহরণ গীতাঞ্জলি।

 

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, দিল্লির লেডি শ্রীরাম কলেজ থেকে পাশ করা গীতাঞ্জলি মডেলিং শুরুর প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই সাফল্যের শিখরে পৌঁছে যান। সাবেক বিশ্ব সুন্দরী সুস্মিতা সেনের মতো অভিনেত্রীদের সঙ্গে র‌্যাম্পে হেঁটেছেন তিনি। কিন্তু শীর্ষ মডেল থাকা অবস্থায় জড়িয়ে পড়েন মাদকের জালে। সে সময় নিজের কাজের থেকেও নেশার জন্যই খবরের শিরোনামে থাকতেন তিনি। এরপর পরিবারের অমতে বিয়ে করেন রবার্ট নামের এক জার্মান নাগরিককে। তবে কিছুদিনের মধ্যেই সেই বিয়ে ভেঙে যায়।

 

এরপর এক ব্রিটিশ নাগরিকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। সেই সম্পর্কে থাকাকালীনই গীতাঞ্জলি মডেলিং থেকে দূরে সরে যান। বেশ কয়েকবছর পর ২০০৭ সালে এক ফটোগ্রাফার তাকে দিল্লির রাস্তায় ভিক্ষা করতে দেখেন। দিল্লির মহিলা কমিশন তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান এবং তার দেখভালের দায়িত্ব নেন। প্রাথমিক চিকিৎসার পর গীতাঞ্জলির ঠাঁই হয় ‘বিদ্যাসাগর ইন্সটিটিউট অব নিউরো সায়েন্সে’।

 

তিনি বলেন, খাবারের টাকা রোজগারের জন্য ভিক্ষা থেকে দেহব্যবসা-সবই করেছি। ২০১৩ সালে গীতাঞ্জলির মৃত্যু হয়। জাঁকজমকপূর্ণ জীবন থেকে অবহেলায় মৃত্যুর পুরোটাই যেন সিনেমার মতো ছিল তার বাস্তব। গীতাঞ্জলি লাইম লাইট থেকে সরে গেলেও বিতর্ক তার পিছু ছাড়েনি। ২০০৮ সালে মধুর ভান্ডারকরের ‘ফ্যাশন’ সিনেমাটির একটি চরিত্র গীতাঞ্জলির জীবনের উপর ভিত্তি করেই তৈরি হয়েছিল।

 

দিল্লি মহিলা কমিশন এই সিনেমাটি বন্ধের দাবি নিয়ে কোর্টে গেলেও কোনো ফল মেলেনি। পরবর্তী সময়ে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত স্বীকার করেন যে ‘ফ্যাশন’-এ তার চরিত্রটি মিস নাগপালের উপর ভিত্তি করেই হয়েছিল। এই চরিত্রে অভিনয় তাকে পরিচালকদের নজরে নিয়ে আসে এবং সেরা পার্শ্ব-অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতে নিতে সাহায্য করে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited