সোনারগাঁয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় সক্রি” জাপার খোকা, আ’লীগের বিরু, কায়সার ও কালাম

Spread the love

মোঃ জাহিদ খন্দকার, নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁ :- চলতি বছরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে রাজনৈতিক দলগুলো এখন প্রকাশ্যে ও গোপনে যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তাই বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এখন নিজ নিজ এলাকায় জনসেবা ও গণসংযোগের মাধ্যমে মাঠ গোছানোর পাশাপাশি দলীয় হাইকমান্ডের কাছে নিজের যোগ্যতা প্রমাণে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। দেশের অন্যান্য এলাকার ন্যায় নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনেও এখন নির্বাচনী আমেজ বিরাজ করছে।

 

জানা যায়, ভৌগলিক কারণে প্রাচীন বাংলার রাজধানী সোনারগাঁ একটি গুরুত্বপূর্ণ আসন। এ আসনটিকে ঢাকার প্রবেশ দ্বার বলা হয়। এ আসনে পঞ্চম, ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল কায়সার এমপি নির্বাচিত হন। পরে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এ আসন থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি নির্বাচিত হন।

 

সম্প্রতি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ আসন থেকে বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা জনসেবার পাশাপাশি ব্যাপকভাবে গণসংযোগ, সভা-সমাবেশ ও উঠান বৈঠক করছেন। এছাড়া বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় ও দলীয় কর্মসূচী পালনসহ উপজেলা জুড়ে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন ও বিলবোর্ডের মাধ্যমে নিজ নিজ প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এ আসনে বর্তমান এমপি ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা অতি অল্প সময়ে ব্যাপক উন্নয়ণমূলক কাজ করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। তিনি ছাড়া এ আসনটিতে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে আরও যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ ও কেন্দ্রীয় মহিলা পার্টির সাধারণ সম্পাদক অনন্যা হুসেইন মৌসুমী।

 

গোলাম মসীহ ও অনন্যা হুসেইন মৌসুমী জাপার মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেও তারা দীর্ঘদিন যাবত মাঠের রাজনীতিতে নিষ্কৃয় থাকায় মনোনয়ন দৌড়ে লিয়াকত হোসেন খোকা তাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন। এছাড়া যেহেতু আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টির মহাজোটের সম্ভাবনা রয়েছে তাই জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা তার ক্লিন ইমেজ ও জনপ্রিয়তার দ্বারা আবারো এ আসনে মহাজোটের প্রার্থী হবেন এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

 

অন্যদিকে এ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিব) কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, সাবেক এমপি আব্দুল্লাহ আল কায়সার, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক এএইচএম মাসুদ দুলাল, সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও পুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞ আনোয়ারুল কবির ভূঁইয়া, শিল্পপতি বজলুর রহমান ও আওয়ামীলীগের উপকমিটির সদস্য লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম।

 

আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, আব্দুল্লাহ আল কায়সার ও মাহফুজুর রহমান কালাম মাঠের রাজনীতিতে সক্রিয় আছেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তারা বেশ আগে থেকেই গণসংযোগ, সভা-সমাবেশ ও বিভিন্ন কর্মসূচী পালনের পাশাপাশি উপজেলা জুড়ে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন ও বিলবোর্ডের মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এই তিন প্রার্থীর মধ্যে ক্লিন ইমেজ, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু এগিয়ে আছেন। তাই এ আসনটিতে যদি আওয়ামীলীগের প্রার্থী দেয়া হয় তাহলে ডা. আবু জাফর চৌধুরী মনোনয়ন পাবেন বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন।

 

তাদের মতে, নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনটিতে বিএনপির প্রার্থী ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিমকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল কায়সার এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। কিন্তু এরপর তার রাজনৈতিক অদক্ষতার কারণে উপজেলা আওয়ামীলীগে কোন্দল সৃষ্টি হয়। এছাড়া তিনি নানা কারণে বিতর্কিত হয়ে উঠায় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন বঞ্চিত করে তার চাচা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন দেয়া হয়। যদিও পরে এ আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেয়া হয়েছিলো।

 

আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক এএইচএম মাসুদ দুলালকে মাঠের রাজনীতিতে দেখা না গেলেও তারা গোপনে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া অর্থনীতিবিদ আনোয়ারুল কবির ভূঁইয়া, শিল্পপতি বজলুর রহমান ও লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম আওয়ামীলীগের মনোনয়নের প্রত্যাশা ব্যক্ত করলেও তাদেরকে মাঠের রাজনীতিতে দেখা যাচ্ছে না।

 

অপরদিকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম, উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম মান্নান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদ বিন ইমতিয়াজ বকুল ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক এস এম ওয়ালিউর রহমান আপেল। রাজনৈতিকভাবে বেকায়দায় থাকা দলটির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মাঠের রাজনীতিতে সুবিধা করতে না পারলেও মনোনয়নের প্রত্যাশায় নিজ নিজ বলয় নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

 

এদিকে ইসলামী দলগুলোর মধ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ইতিমধ্যে তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে। দলের নারায়ণগঞ্জ জেলার উপদেষ্টা ও জেলা মুজাহিদ কমিটির সভাপতি মাওলানা ছানাউল্লাহ নূরী এ আসন থেকে হাতপাখা প্রতীকে নির্বাচন করবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» আমরা তো ডুবেছিই, এবার বাংলাদেশকে ডুবাবো

» রেস্টুরেন্টের গোপন কক্ষে অসামাজিক কাজ, ৩ তরুণীসহ আটক ১১

» বুদ্ধির জোরে ৩ শতাধিক ট্রেনযাত্রীর প্রাণ বাঁচালেন শাহান মিয়া

» সম্মাননা ক্রেষ্ট হাতে পেয়ে খুশিতে কেঁদে দিলেন আওয়ামীলীগ প্রবীন নেতা রনধীর দত্ত

» কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা: নিহত ৫, আহত আড়াই শতাধিক

» রাজনৈতিক দল হিসাবে আওয়ামী লীগের ভবিষ্যৎ কি?

» বাংলাদেশের বিপুল খেলাপি ঋণ আদায় হচ্ছে না যে কারণে

» ২০২১ সাল থেকে বাধ্যতামূলক হবে কারিগরি শিক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী

» ঠাকুরগাঁওয়ে ৮ হাজার ইয়াবাসহ পুলিশের এসআই গ্রেফতার

» কলাপাড়া উপজেলা সমিতি ঢাকা’র উদ্যোগে ঈদ পূণর্মিলনী অনুষ্ঠিত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন





ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ১০ই আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় সক্রি” জাপার খোকা, আ’লীগের বিরু, কায়সার ও কালাম

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

মোঃ জাহিদ খন্দকার, নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁ :- চলতি বছরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এ নির্বাচনকে ঘিরে রাজনৈতিক দলগুলো এখন প্রকাশ্যে ও গোপনে যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তাই বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এখন নিজ নিজ এলাকায় জনসেবা ও গণসংযোগের মাধ্যমে মাঠ গোছানোর পাশাপাশি দলীয় হাইকমান্ডের কাছে নিজের যোগ্যতা প্রমাণে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। দেশের অন্যান্য এলাকার ন্যায় নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁ) আসনেও এখন নির্বাচনী আমেজ বিরাজ করছে।

 

জানা যায়, ভৌগলিক কারণে প্রাচীন বাংলার রাজধানী সোনারগাঁ একটি গুরুত্বপূর্ণ আসন। এ আসনটিকে ঢাকার প্রবেশ দ্বার বলা হয়। এ আসনে পঞ্চম, ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল কায়সার এমপি নির্বাচিত হন। পরে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এ আসন থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমপি নির্বাচিত হন।

 

সম্প্রতি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ আসন থেকে বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা জনসেবার পাশাপাশি ব্যাপকভাবে গণসংযোগ, সভা-সমাবেশ ও উঠান বৈঠক করছেন। এছাড়া বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় ও দলীয় কর্মসূচী পালনসহ উপজেলা জুড়ে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন ও বিলবোর্ডের মাধ্যমে নিজ নিজ প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এ আসনে বর্তমান এমপি ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা অতি অল্প সময়ে ব্যাপক উন্নয়ণমূলক কাজ করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। তিনি ছাড়া এ আসনটিতে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে আরও যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ ও কেন্দ্রীয় মহিলা পার্টির সাধারণ সম্পাদক অনন্যা হুসেইন মৌসুমী।

 

গোলাম মসীহ ও অনন্যা হুসেইন মৌসুমী জাপার মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেও তারা দীর্ঘদিন যাবত মাঠের রাজনীতিতে নিষ্কৃয় থাকায় মনোনয়ন দৌড়ে লিয়াকত হোসেন খোকা তাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন। এছাড়া যেহেতু আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টির মহাজোটের সম্ভাবনা রয়েছে তাই জাতীয় পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা তার ক্লিন ইমেজ ও জনপ্রিয়তার দ্বারা আবারো এ আসনে মহাজোটের প্রার্থী হবেন এমনটাই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

 

অন্যদিকে এ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিব) কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, সাবেক এমপি আব্দুল্লাহ আল কায়সার, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক এএইচএম মাসুদ দুলাল, সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও পুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞ আনোয়ারুল কবির ভূঁইয়া, শিল্পপতি বজলুর রহমান ও আওয়ামীলীগের উপকমিটির সদস্য লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম।

 

আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, আব্দুল্লাহ আল কায়সার ও মাহফুজুর রহমান কালাম মাঠের রাজনীতিতে সক্রিয় আছেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তারা বেশ আগে থেকেই গণসংযোগ, সভা-সমাবেশ ও বিভিন্ন কর্মসূচী পালনের পাশাপাশি উপজেলা জুড়ে ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন ও বিলবোর্ডের মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এই তিন প্রার্থীর মধ্যে ক্লিন ইমেজ, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু এগিয়ে আছেন। তাই এ আসনটিতে যদি আওয়ামীলীগের প্রার্থী দেয়া হয় তাহলে ডা. আবু জাফর চৌধুরী মনোনয়ন পাবেন বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন।

 

তাদের মতে, নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনটিতে বিএনপির প্রার্থী ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিমকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে আওয়ামীলীগের প্রার্থী আব্দুল্লাহ আল কায়সার এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। কিন্তু এরপর তার রাজনৈতিক অদক্ষতার কারণে উপজেলা আওয়ামীলীগে কোন্দল সৃষ্টি হয়। এছাড়া তিনি নানা কারণে বিতর্কিত হয়ে উঠায় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন বঞ্চিত করে তার চাচা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন দেয়া হয়। যদিও পরে এ আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেয়া হয়েছিলো।

 

আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক এএইচএম মাসুদ দুলালকে মাঠের রাজনীতিতে দেখা না গেলেও তারা গোপনে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া অর্থনীতিবিদ আনোয়ারুল কবির ভূঁইয়া, শিল্পপতি বজলুর রহমান ও লন্ডন প্রবাসী ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম আওয়ামীলীগের মনোনয়নের প্রত্যাশা ব্যক্ত করলেও তাদেরকে মাঠের রাজনীতিতে দেখা যাচ্ছে না।

 

অপরদিকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রেজাউল করিম, উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু জাফর, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম মান্নান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদ বিন ইমতিয়াজ বকুল ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক এস এম ওয়ালিউর রহমান আপেল। রাজনৈতিকভাবে বেকায়দায় থাকা দলটির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মাঠের রাজনীতিতে সুবিধা করতে না পারলেও মনোনয়নের প্রত্যাশায় নিজ নিজ বলয় নিয়ে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

 

এদিকে ইসলামী দলগুলোর মধ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ইতিমধ্যে তাদের প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে। দলের নারায়ণগঞ্জ জেলার উপদেষ্টা ও জেলা মুজাহিদ কমিটির সভাপতি মাওলানা ছানাউল্লাহ নূরী এ আসন থেকে হাতপাখা প্রতীকে নির্বাচন করবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited