ফতুল্লায় আলোচিত নাঈম হত্যা মামলার আসামী সুমন গ্রেপ্তার”বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবান বন্দি প্রদান

Spread the love

এ.আর.কুতুবে আলম : ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে গত ২৭ নভেম্বর রাতে নন্দলালপুর এলাকা থেকে মাদ্রাসার ছাত্র আলোচিত নাঈম হত্যা মামলার আসামী সুমন ওরফে রাফাকে গ্রেপ্তার করেছে। এই আসামীকে নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করলে আহম্মেদ হুমায়ুন কবিরের ১ম আদালতে সেচ্ছায় ঘটনার সত্যতা স্বীকার বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবান বন্দি প্রদান করেছে। আসামীর দেয়া তথ্য মোতাবেক মামলার আলামত মোবাইল, চাকু উদ্ধারসহ অন্যান্য সহযোগি আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

 

২৮ নভেম্বর বিকেলে ফতুল্লার মডেল থানায় সাংবাদিক সম্মেলনে অফিসার ইনচার্জ মো. কামাল উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যা নন্দলালপুর কাকুলি ডাইংয়ের পাশে অজ্ঞাতনামা যুবক (২২) এর একটি লাশ রক্তাক্ত একটি লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ । পরে আমি ও আমার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনা স্থলে গিয়ে তদন্ত করি। পরে লাশটি উদ্ধার করে তার ছবি থানার ফেসবুকে দেয়া হয়। পরে ঐ লাশের ছবি দেখে তার আত্মীয় স¦জনরা হাসপাতালের মর্গে গিয়ে লাশটি সনাক্ত করে এবং তার পরিচয় জানাযায়। এরপর মুনসুর আহম্মেদ থানায় এসে পুলিশের কাছে বলেন আমার ছেলে আবু নাঈম । তাকে যারা হত্যা করেছে । আমি তাদের চিনতে পারিনি। তারপর সে ২০ নভেম্বর পুত্র হত্যার বিচার দাবী করে আমার থানায় ৩০২/৩৪ দ:বি ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছে। যার মামলা নং ৮৮(১১)১৭।

 

এই মামলা জুরু হওয়ার পর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় এবং থানার অফিসার ইনচার্জ কামাল উদ্দিনের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত টীমের সহায়তায় মামলার তদন্ত কারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর (আই.সি.পি) মো. গোলাম মোস্তফা উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বল্প সময়ের মধ্যে মামলার ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত মো. সুমন ওরফে রাফা (১৮) কে ২৭ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টায় নন্দলালপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে আসামী রাফা জানায় , পিলকুনি গ্রামের জনি(১৮),হৃদয় (১৮)সহ অজ্ঞাতনামা সহযোগিরা বেশ কিছুদিন যাবৎ ফেসবুকে বিভিন্ন মেয়েদের নামে ভূ আইডি খুলে লোকজনদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাক মেইল করে আসছে। ইতিমধ্যে জনি “সিনথিয়া জাহান তোরা (এন.টি) ” নামে একটি ফেসবুক ভূয়া আইডি খুলে। ঐ আইডিতে ব্ল্যাকমেইল করার উদ্দেশ্যে ভিকটিম মো.আবু নাঈম কে এ্যাড করে। জনি ও তার সহযোগিরা ঐ ভূয়া আইডির মাধ্যমে ভিকটিম আবু নাইম এর সাথে দীর্ঘ যাবৎ চ্যাটিং করে আসছিল। গত ১৬ নভেম্বর বিকেল সাড়ে তিনটায় জনি, তুরাব (২২),হৃদয়,সুমন ওরফে রাফার সাথে আবু নাঈম এর কাছ থেকে তার মোবাইল ও টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করে। একপর্যায় গ্রেপ্তারকৃত আসামী সুমন ওরফে রাফা তাদের প্রস্তাবে রাজি হয়। তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ১৯ নভেম্বর নাঈম কে নন্দলালপুর কাকুলি ডাইংয়ের পাশে আনার জন্য তাদের হৃদয় কে পাঠায়। এদিকে, পরিকল্পনা অনুযায়ী ঐ ডাইংয়ের গলিতে আসামী সুমন ওরফে রাফাসহ ২০/২২ জনসহযোগি অবস্থান করেছিল। ঐ দিন সন্ধ্যা ৬টায় আসামী রাফা সহযোগি হৃদয় , ভিকটিম মো. আবু নাঈম কে ঐ গতিতে নিয়ে আসে। আনার সাথে সাথেই তাকে সবাই ঘিরে ধরে। এলোপাথারীভাবে কিল ঘুষি লাথি মারতে থাকে নাঈম মাটিতে পরে যায়। রাফার স্বীকারোক্তি মতে সিফাত নামের এক যুবক তার হাতে থাকা ধারালো ছোড়া দিয়ে বুকে-পিঠে এলোপাথারী আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। এতে মো. আবু নাঈম ঘটনা স্থলেই মারা যায়। এসময় আসামীগন ভিকটিমের মোবাইল নিয়ে দ্রুত ঘটনা স্থল ত্যাগ করে। রাফার তার স্বীকারোক্তিমূলক জবান বন্দিতে এমনটাই বললো ।

 

এই সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত ) মো. শাহজাল , থানার চৌকশ ইন্সপেক্টর (অপারেশন) মো. মজিবুর রহমান, এই মামলার তদন্তকারী অফিসার, ইন্সপেক্টর মো. গোলাম মোস্তফা । এছাড়া ফতুল্লা রিপোর্টার্স ক্লাব,ফতুল্লা রিপোটার্স ইউনিটি এবং ফতুল্লা প্রেস ক্লাব’র সাংবাদিক ছাড়াও ইলেট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরাও উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» চুল পড়া বন্ধ করবে যে ফলের রস

» ছেলেধরা সন্দেহে কুড়িগ্রামে মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে গণপিটুনি

» সীমান্তে পাকবাহিনীর গুলিতে ৬ ভারতীয় সেনা নিহত

» নিখোঁজের ৪ দিন পর গৃহবধূর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

» রাংঙ্গাবালীতে বন্ধ হওয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় সংস্কার ও চালুর দাবীতে এলাকাবাসীর পাশে শিক্ষাবান্ধব তরুণ নেতা রনি মাহমুদ

» বাংলাদেশ-ভারতের পানি বণ্টনে আমরা প্রস্তুত: জয়শঙ্কর

» হুইল চেয়ারে বসে চিরুনি অভিযানে মাঠে মেয়র আতিকুল ইসলাম

» রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পুলিশ হেফাজতে বাসর রাত কাটলেও ভেঙ্গে গেল বিয়ে

» এবার বাগেরহাটে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদরাসা সুপারের বিরুদ্ধে মামলা

» বেনাপোলে ৩টি পিস্তল,৬৬ রাউন্ড গুলি,৩টি ম্যাগজিন ও ১কেজি গান পাউডার সহ গ্রেপ্তার-১

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ফতুল্লায় আলোচিত নাঈম হত্যা মামলার আসামী সুমন গ্রেপ্তার”বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবান বন্দি প্রদান

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

এ.আর.কুতুবে আলম : ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে গত ২৭ নভেম্বর রাতে নন্দলালপুর এলাকা থেকে মাদ্রাসার ছাত্র আলোচিত নাঈম হত্যা মামলার আসামী সুমন ওরফে রাফাকে গ্রেপ্তার করেছে। এই আসামীকে নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করলে আহম্মেদ হুমায়ুন কবিরের ১ম আদালতে সেচ্ছায় ঘটনার সত্যতা স্বীকার বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবান বন্দি প্রদান করেছে। আসামীর দেয়া তথ্য মোতাবেক মামলার আলামত মোবাইল, চাকু উদ্ধারসহ অন্যান্য সহযোগি আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে ।

 

২৮ নভেম্বর বিকেলে ফতুল্লার মডেল থানায় সাংবাদিক সম্মেলনে অফিসার ইনচার্জ মো. কামাল উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যা নন্দলালপুর কাকুলি ডাইংয়ের পাশে অজ্ঞাতনামা যুবক (২২) এর একটি লাশ রক্তাক্ত একটি লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ । পরে আমি ও আমার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনা স্থলে গিয়ে তদন্ত করি। পরে লাশটি উদ্ধার করে তার ছবি থানার ফেসবুকে দেয়া হয়। পরে ঐ লাশের ছবি দেখে তার আত্মীয় স¦জনরা হাসপাতালের মর্গে গিয়ে লাশটি সনাক্ত করে এবং তার পরিচয় জানাযায়। এরপর মুনসুর আহম্মেদ থানায় এসে পুলিশের কাছে বলেন আমার ছেলে আবু নাঈম । তাকে যারা হত্যা করেছে । আমি তাদের চিনতে পারিনি। তারপর সে ২০ নভেম্বর পুত্র হত্যার বিচার দাবী করে আমার থানায় ৩০২/৩৪ দ:বি ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছে। যার মামলা নং ৮৮(১১)১৭।

 

এই মামলা জুরু হওয়ার পর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় এবং থানার অফিসার ইনচার্জ কামাল উদ্দিনের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত টীমের সহায়তায় মামলার তদন্ত কারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর (আই.সি.পি) মো. গোলাম মোস্তফা উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বল্প সময়ের মধ্যে মামলার ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত মো. সুমন ওরফে রাফা (১৮) কে ২৭ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টায় নন্দলালপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে আসামী রাফা জানায় , পিলকুনি গ্রামের জনি(১৮),হৃদয় (১৮)সহ অজ্ঞাতনামা সহযোগিরা বেশ কিছুদিন যাবৎ ফেসবুকে বিভিন্ন মেয়েদের নামে ভূ আইডি খুলে লোকজনদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে ব্ল্যাক মেইল করে আসছে। ইতিমধ্যে জনি “সিনথিয়া জাহান তোরা (এন.টি) ” নামে একটি ফেসবুক ভূয়া আইডি খুলে। ঐ আইডিতে ব্ল্যাকমেইল করার উদ্দেশ্যে ভিকটিম মো.আবু নাঈম কে এ্যাড করে। জনি ও তার সহযোগিরা ঐ ভূয়া আইডির মাধ্যমে ভিকটিম আবু নাইম এর সাথে দীর্ঘ যাবৎ চ্যাটিং করে আসছিল। গত ১৬ নভেম্বর বিকেল সাড়ে তিনটায় জনি, তুরাব (২২),হৃদয়,সুমন ওরফে রাফার সাথে আবু নাঈম এর কাছ থেকে তার মোবাইল ও টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করে। একপর্যায় গ্রেপ্তারকৃত আসামী সুমন ওরফে রাফা তাদের প্রস্তাবে রাজি হয়। তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ১৯ নভেম্বর নাঈম কে নন্দলালপুর কাকুলি ডাইংয়ের পাশে আনার জন্য তাদের হৃদয় কে পাঠায়। এদিকে, পরিকল্পনা অনুযায়ী ঐ ডাইংয়ের গলিতে আসামী সুমন ওরফে রাফাসহ ২০/২২ জনসহযোগি অবস্থান করেছিল। ঐ দিন সন্ধ্যা ৬টায় আসামী রাফা সহযোগি হৃদয় , ভিকটিম মো. আবু নাঈম কে ঐ গতিতে নিয়ে আসে। আনার সাথে সাথেই তাকে সবাই ঘিরে ধরে। এলোপাথারীভাবে কিল ঘুষি লাথি মারতে থাকে নাঈম মাটিতে পরে যায়। রাফার স্বীকারোক্তি মতে সিফাত নামের এক যুবক তার হাতে থাকা ধারালো ছোড়া দিয়ে বুকে-পিঠে এলোপাথারী আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। এতে মো. আবু নাঈম ঘটনা স্থলেই মারা যায়। এসময় আসামীগন ভিকটিমের মোবাইল নিয়ে দ্রুত ঘটনা স্থল ত্যাগ করে। রাফার তার স্বীকারোক্তিমূলক জবান বন্দিতে এমনটাই বললো ।

 

এই সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত ) মো. শাহজাল , থানার চৌকশ ইন্সপেক্টর (অপারেশন) মো. মজিবুর রহমান, এই মামলার তদন্তকারী অফিসার, ইন্সপেক্টর মো. গোলাম মোস্তফা । এছাড়া ফতুল্লা রিপোর্টার্স ক্লাব,ফতুল্লা রিপোটার্স ইউনিটি এবং ফতুল্লা প্রেস ক্লাব’র সাংবাদিক ছাড়াও ইলেট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরাও উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited