শেরপুরে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে কলেজ ছাত্রীর অনশন

শেরপুরে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে আরিফুজ্জামান নামে পুলিশের এক এএসআই ‘র বাড়িতে আমরণ অনশন করছেন মাস্টার্সপড়ুয়া এক তরুণী। জেলার সদর উপজেলার পূর্ব আলিনাপাড়া গ্রামের আরিফুজ্জামানের বাড়িতে শুক্রবার থেকে অনশন করছেন পার্শ্ববর্তী আন্ধারিয়া নয়াপাড়া গ্রামের মরিয়ম আক্তার মেরী নামের ওই তরুণী।

 

অনশনের আগে স্ত্রীর দাবি আদায়ের জন্য ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি), ডিআইজি (ডিসিপ্লিন) ও এডিশনাল আইজি (এসবি), বাংলাদেশ পুলিশ, পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স বরাবর অভিযোগ করেছেন ওই তরুণী। মেরীর অভিযোগ, উপজেলার পূর্ব আলিনাপাড়া (খালপাড়) গ্রামের মৃত আনিছুর রহমান দুলালের ছেলে পুলিশের এএসআই  আরিফুজ্জামান সোহাগ (এসবি ঢাকা, বিপি-৮৮০৭১২৮৭৪৭)  প্রেমের ফাঁদে ফেলে ।

 

মিজানুর রহমানের কন্যা মরিয়ম আক্তার মেরীকে টাঙ্গাইলে এক আত্মীয়ের বাড়িতে নিয়ে গোপনে বিয়ে করেন। কিন্তু আরিফুজ্জামানের ছোট বোনের বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখার শর্তে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে মেলামেশা করেন তারা।ওই শিক্ষার্থী শেরপুর সরকারি কলেজে পড়ার কারণে তার মা-বাবা শহরের নবীনগর মহল্লায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করত।

 

ওই বাসায় তার বাবা-মা’র অনুপস্থিতিতে আরিফুজ্জামানের সঙ্গে মেলামেশা করত এবং স্ত্রী হিসেবে বিভিন্ন স্থানে অবাধে বেড়াতে যেত। সম্প্রতি বিভিন্ন স্থান থেকে ওই শিক্ষার্থী’র বিয়ের প্রস্তাব এলে মেরী আরিফুজ্জামানকে তাদের বিয়ের বিষয়টি সবাইকে জানাতে বলেন এবং  স্ত্রী হিসেবে তাকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে বলেন। এতে ওই এএসআই  রাগান্বিত হয়ে শিক্ষার্থী মেরীকে স্ত্রী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে মোবাইলফোনে অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ এসএমএস  পাঠান।

 

এদিকে এএসআই  সোহাগ জেলার নকলা উপজেলা শহরের কামারপট্টিতে নতুন করে বিয়ে করার জন্য মেয়ে দেখে বিয়ের দিনতারিখ ঠিক করেন। এ সংবাদ পেয়ে ওই শিক্ষার্থী মোবাইলের মাধ্যমে আরিফুজ্জামানকে বোঝালেও তা তিনি মানেননি। বরং বিয়ের নির্ধারিত তারিখের আগেই নকলার ওই মহল্লায় গোপনে গত ১৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিয়ে করতে যান এএসআই  আরিফুজ্জামান।

 

এদিকে ওই শিক্ষার্থী খবর পেয়ে শুক্রবার বিয়ের দিন হাজির হন বিয়েবাড়িতে এবং তার সঙ্গে বিয়ের বিষয়টি কনে পক্ষের লোকজনকে জানান। ফলে ওই বিয়ে ভেঙে যায় এবং কৌশলে ওই এএসআই সোহাগ বিয়েবাড়ি থেকে সটকে পড়েন।  পরে ওই শিক্ষার্থী আরিফুজ্জামানকে না পেয়ে শুক্রবার বিকাল থেকে তাদের গ্রামের বাড়িতে স্ত্রী’র মর্যাদার দাবিতে আমরণ অনশন শুরু করেছেন।

 

এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে জানতে এএসআই  সোহাগের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও সাজানো। আমাকে হেয় করার জন্য মেয়েটি নাটক করছে। কেবল আমার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দেয়া একটি আবেদনপত্র ছাড়া আর কোনো প্রমাণ দিতে পারবে না যে আমি তাকে বিয়ে করেছি। দিতে পারলে আমি তার অভিযোগ মেনে নেব।

 

এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার ওসি মো. নজরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি। তবে বিষয়টি জানার পর অনশনরত ওই শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ঘটনা জানতে তাকে নিয়ে আসার জন্য থানার ওসি তদন্তকে পূর্ব আলিনাপাড়ায় পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



» গলাচিপায় মেয়র কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

» আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে- জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের র‌্যালী ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ মানবাধিকারের মূলনীতি বাংলাদেশ সংবিধানে আছে, বাস্তবে কিছুই নেই – মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসান

» আত্রাইয়ে বেগম রোকেয়া দিবস পালিত

» সমুদ্রের মঝে নয়নাভিরাম অপরূপ সৌন্দর্যের হাতছানি।। পাখির কোলাহল আর লাল কাকড়ার লুকোচুরিতে মুখরিত চর বিজয়

» বেনাপোলে শত্রুতা জেরে চাষির ক্ষেতের ফসল আগুনে পুড়ালো দূর্বত্তরা

» বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার-১

» কলাপাড়ায় রোকেয়া দিবস উদযাপন।। পাঁচ জয়ীতাকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান

» কলাপাড়ায় দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালন

» মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক দুর্ণীতি বিরোধী দিবস- ২০১৯ পালিত

» সবুজ সংকেত পেলেই তবে দিবারাত্রির টেস্ট নিয়ে সিদ্ধান্ত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে কলেজ ছাত্রীর অনশন

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

শেরপুরে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে আরিফুজ্জামান নামে পুলিশের এক এএসআই ‘র বাড়িতে আমরণ অনশন করছেন মাস্টার্সপড়ুয়া এক তরুণী। জেলার সদর উপজেলার পূর্ব আলিনাপাড়া গ্রামের আরিফুজ্জামানের বাড়িতে শুক্রবার থেকে অনশন করছেন পার্শ্ববর্তী আন্ধারিয়া নয়াপাড়া গ্রামের মরিয়ম আক্তার মেরী নামের ওই তরুণী।

 

অনশনের আগে স্ত্রীর দাবি আদায়ের জন্য ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি), ডিআইজি (ডিসিপ্লিন) ও এডিশনাল আইজি (এসবি), বাংলাদেশ পুলিশ, পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স বরাবর অভিযোগ করেছেন ওই তরুণী। মেরীর অভিযোগ, উপজেলার পূর্ব আলিনাপাড়া (খালপাড়) গ্রামের মৃত আনিছুর রহমান দুলালের ছেলে পুলিশের এএসআই  আরিফুজ্জামান সোহাগ (এসবি ঢাকা, বিপি-৮৮০৭১২৮৭৪৭)  প্রেমের ফাঁদে ফেলে ।

 

মিজানুর রহমানের কন্যা মরিয়ম আক্তার মেরীকে টাঙ্গাইলে এক আত্মীয়ের বাড়িতে নিয়ে গোপনে বিয়ে করেন। কিন্তু আরিফুজ্জামানের ছোট বোনের বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখার শর্তে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে মেলামেশা করেন তারা।ওই শিক্ষার্থী শেরপুর সরকারি কলেজে পড়ার কারণে তার মা-বাবা শহরের নবীনগর মহল্লায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করত।

 

ওই বাসায় তার বাবা-মা’র অনুপস্থিতিতে আরিফুজ্জামানের সঙ্গে মেলামেশা করত এবং স্ত্রী হিসেবে বিভিন্ন স্থানে অবাধে বেড়াতে যেত। সম্প্রতি বিভিন্ন স্থান থেকে ওই শিক্ষার্থী’র বিয়ের প্রস্তাব এলে মেরী আরিফুজ্জামানকে তাদের বিয়ের বিষয়টি সবাইকে জানাতে বলেন এবং  স্ত্রী হিসেবে তাকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে বলেন। এতে ওই এএসআই  রাগান্বিত হয়ে শিক্ষার্থী মেরীকে স্ত্রী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে মোবাইলফোনে অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ এসএমএস  পাঠান।

 

এদিকে এএসআই  সোহাগ জেলার নকলা উপজেলা শহরের কামারপট্টিতে নতুন করে বিয়ে করার জন্য মেয়ে দেখে বিয়ের দিনতারিখ ঠিক করেন। এ সংবাদ পেয়ে ওই শিক্ষার্থী মোবাইলের মাধ্যমে আরিফুজ্জামানকে বোঝালেও তা তিনি মানেননি। বরং বিয়ের নির্ধারিত তারিখের আগেই নকলার ওই মহল্লায় গোপনে গত ১৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিয়ে করতে যান এএসআই  আরিফুজ্জামান।

 

এদিকে ওই শিক্ষার্থী খবর পেয়ে শুক্রবার বিয়ের দিন হাজির হন বিয়েবাড়িতে এবং তার সঙ্গে বিয়ের বিষয়টি কনে পক্ষের লোকজনকে জানান। ফলে ওই বিয়ে ভেঙে যায় এবং কৌশলে ওই এএসআই সোহাগ বিয়েবাড়ি থেকে সটকে পড়েন।  পরে ওই শিক্ষার্থী আরিফুজ্জামানকে না পেয়ে শুক্রবার বিকাল থেকে তাদের গ্রামের বাড়িতে স্ত্রী’র মর্যাদার দাবিতে আমরণ অনশন শুরু করেছেন।

 

এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ বিষয়ে জানতে এএসআই  সোহাগের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও সাজানো। আমাকে হেয় করার জন্য মেয়েটি নাটক করছে। কেবল আমার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দেয়া একটি আবেদনপত্র ছাড়া আর কোনো প্রমাণ দিতে পারবে না যে আমি তাকে বিয়ে করেছি। দিতে পারলে আমি তার অভিযোগ মেনে নেব।

 

এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার ওসি মো. নজরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি। তবে বিষয়টি জানার পর অনশনরত ওই শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ঘটনা জানতে তাকে নিয়ে আসার জন্য থানার ওসি তদন্তকে পূর্ব আলিনাপাড়ায় পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited