চালু হচ্ছে না জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটির নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে প্রায় আট মাস আগে। কিন্তু জমি নিয়ে আইনি জটিলতার কারণে চালু হচ্ছে না হাসপাতালটি ।

 

স্বাস্থ্য বিভাগ, ভূমি অধিগ্রহণ কার্যালয় ও মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য ২০০৭-০৮ অর্থবছরে জুড়ী-বড়লেখা সড়কের পাশে পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের বাছিরপুর এলাকায় পাঁচ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়। ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্মাণকাজ শুরু হয়। ঢাকার এস আলী অ্যান্ড সন্স নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজটি পায়। কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি নির্মাণকাজ শুরুর পর অধিগ্রহণকৃত জমির মালিকদের একজন আব্দুল মান্নানের ছেলে শওকত আলী উচ্চ আদালতে মামলা করেন। এতে অভিযোগ করা হয়, অধিগ্রহণের বাইরে থাকা বেশ কিছু জমিও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সীমানার ভেতরে চলে গেছে। আদালত মামলাটি খারিজ করে দিলেও শওকত আলী আপিল করেন। সেটি এখনো বিচারাধীন রয়েছে।

 

এর মধ্যেই গত বছরের ডিসেম্বর মাসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়। মামলার বাদী শওকত আলী বলেন- স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য তাঁদের কাছ থেকে ৩ একর ৩৩ শতক জমি অধিগ্রহণ করা হয়। কিন্তু নির্মাণকাজ শুরুর সময় তাঁদের আরও প্রায় ১৮ শতক জমি দখল হয়। তখন আপত্তি দিলেও ঠিকাদারের লোকজন তা মানেননি। এ কারণে তাঁরা আদালতের শরণাপন্ন হন। সরেজমিনে দেখা যায়- স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির সব কাজ শেষ হয়েছে। সীমানাপ্রাচীর দিয়ে ঘেরা হয়েছে হাসপাতালটি। তবে সীমানাপ্রাচীরের ভেতরেই টিন-বাঁশের তৈরি একটি পুরোনো বসতঘর রয়েছে। বাড়িতেই ছিলেন শওকত আলী, তাঁর স্ত্রীসহ পরিবারের অন্যরা। কমপ্লেক্সটি দেখভালের দায়িত্বে থাকা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কয়েকজনকেও ভেতরে পাওয়া গেল। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক তাহের আলী বলেন, তাঁরা কেবল নির্মাণকাজ করেছেন। সীমানা নির্ধারণের বিষয়টি প্রশাসনের কাজ। তারা যে সীমানা নির্ধারণ করে দিয়েছিল, সে অনুযায়ীই ভবন নির্মাণ ও অন্যান্য কাজ করা হয়েছে।

 

এদিকে সমস্যাটি স্থানীয়ভাবে সমাধানের জন্য জাতীয় সংসদের হুইপ ও মৌলভীবাজার-১ আসনের সাংসদ মো. শাহাব উদ্দিন উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তিনি গত জুন মাসের প্রথম দিকে শওকতকে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে বৈঠক করেন। এ সময় হুইপ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশে ১৮ শতকের একটি খাসজমি দেওয়ার কথা বলে শওকতকে ওই বসতভিটা ছাড়ার প্রস্তাব দেন। কিন্তু জমিটি নিচু ও জলমগ্ন হওয়ায় শওকত সেই প্রস্তাবে রাজি হননি।

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

সর্বশেষ আপডেট



» দুর্নীতিতে বালিশ পর্দাকে হারিয়েছে মোবাইল চার্জার

» নাইক্ষ্যংছড়ির শান্তিপূর্ন পরিবেশ চলছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন

» নাইজেরিয়ায় একসঙ্গে ৪০০ জনের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

» রেকর্ড গড়ে বিয়ে করলে প্রেমিকা

» আবরার হ’ত্যা: আলোচিত অমিত সাহাকে ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার

» পদ্মা সেতুতে বসছে ১৫ তম স্প্যান

» পুলিশ বাহিনীর অবদানের গল্পে মৌসুমী

» ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাঙ্গাবালীর চরমোন্তাজে ভবন উদ্বোধন করলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী

» ইকুয়েডরকে গোলবন্যায় ভাসাল আর্জেন্টিনা

» তুর্কি হামলায় সিরিয়া থেকে পালাচ্ছে মার্কিন বাহিনী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ২৯শে আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চালু হচ্ছে না জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

মশাহিদ আহমদ, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটির নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে প্রায় আট মাস আগে। কিন্তু জমি নিয়ে আইনি জটিলতার কারণে চালু হচ্ছে না হাসপাতালটি ।

 

স্বাস্থ্য বিভাগ, ভূমি অধিগ্রহণ কার্যালয় ও মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য ২০০৭-০৮ অর্থবছরে জুড়ী-বড়লেখা সড়কের পাশে পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের বাছিরপুর এলাকায় পাঁচ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়। ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্মাণকাজ শুরু হয়। ঢাকার এস আলী অ্যান্ড সন্স নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজটি পায়। কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি নির্মাণকাজ শুরুর পর অধিগ্রহণকৃত জমির মালিকদের একজন আব্দুল মান্নানের ছেলে শওকত আলী উচ্চ আদালতে মামলা করেন। এতে অভিযোগ করা হয়, অধিগ্রহণের বাইরে থাকা বেশ কিছু জমিও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সীমানার ভেতরে চলে গেছে। আদালত মামলাটি খারিজ করে দিলেও শওকত আলী আপিল করেন। সেটি এখনো বিচারাধীন রয়েছে।

 

এর মধ্যেই গত বছরের ডিসেম্বর মাসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়। মামলার বাদী শওকত আলী বলেন- স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য তাঁদের কাছ থেকে ৩ একর ৩৩ শতক জমি অধিগ্রহণ করা হয়। কিন্তু নির্মাণকাজ শুরুর সময় তাঁদের আরও প্রায় ১৮ শতক জমি দখল হয়। তখন আপত্তি দিলেও ঠিকাদারের লোকজন তা মানেননি। এ কারণে তাঁরা আদালতের শরণাপন্ন হন। সরেজমিনে দেখা যায়- স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির সব কাজ শেষ হয়েছে। সীমানাপ্রাচীর দিয়ে ঘেরা হয়েছে হাসপাতালটি। তবে সীমানাপ্রাচীরের ভেতরেই টিন-বাঁশের তৈরি একটি পুরোনো বসতঘর রয়েছে। বাড়িতেই ছিলেন শওকত আলী, তাঁর স্ত্রীসহ পরিবারের অন্যরা। কমপ্লেক্সটি দেখভালের দায়িত্বে থাকা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কয়েকজনকেও ভেতরে পাওয়া গেল। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক তাহের আলী বলেন, তাঁরা কেবল নির্মাণকাজ করেছেন। সীমানা নির্ধারণের বিষয়টি প্রশাসনের কাজ। তারা যে সীমানা নির্ধারণ করে দিয়েছিল, সে অনুযায়ীই ভবন নির্মাণ ও অন্যান্য কাজ করা হয়েছে।

 

এদিকে সমস্যাটি স্থানীয়ভাবে সমাধানের জন্য জাতীয় সংসদের হুইপ ও মৌলভীবাজার-১ আসনের সাংসদ মো. শাহাব উদ্দিন উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তিনি গত জুন মাসের প্রথম দিকে শওকতকে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে বৈঠক করেন। এ সময় হুইপ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশে ১৮ শতকের একটি খাসজমি দেওয়ার কথা বলে শওকতকে ওই বসতভিটা ছাড়ার প্রস্তাব দেন। কিন্তু জমিটি নিচু ও জলমগ্ন হওয়ায় শওকত সেই প্রস্তাবে রাজি হননি।

সংবাদটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited