রাজধানীর মিরপুর এলাকা হতে সক্রিয় ৪ প্রতারক গ্রেফতার

Spread the love

মাসুদ হাসান রিদম,ঢাকা: রাজধানীর ঢাকার মিরপুর এলাকা হতে প্রতারক চক্রের ৪ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১) । বৃহস্পতিবার, (২৪ই নভেস্বর’১৬) রাতে সহকারী পরিচালক (মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর) র‌্যাব-১ পক্ষে অধিনায়ক এক মেইল প্রেস রিলিজ এর মাধ্যমে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

মেইল প্রেস রিলিজ এর মাধ্যমে বলা হয়,প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ২২ নভেম্বর ২০১৬ তারিখ সময় ২১০০ ঘটিকায় র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকার একটি আভিযানিক দল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আকরামুল হাসান এর নেতৃত্বে মিরপুর এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। একপর্যায়ে আভিযানিক দলটি মিরপুর থানাধীন, মিরপুর-৬ হইতে ২ জন মহিলাসহ প্রতারক চক্রের ০৪ জন সক্রিয় সদস্য (১) মোঃ মাহাবুব শরীফ ওরফে শামীম(৩০), পিতা-মৃত বাদশা শরীফ, সাং- রমজান কাঠি, থানা-ঝালকাঠি, জেলা-ঝালকাঠি বর্তমান ঠিকানা- বাসা নং-১৬ রোড নং-০১ ব্লক-বি, মিরপুর-৬, থানা- মিরপুর, ডিএমপি, ঢাকা (২) মোঃ রেজাউল কবীর ওরফে আঃ রাজ্জাক ওরফে রাজু (৫০), পিতা-ফজলুল হক, সাং-নওয়াবেঁকী, থানা-শ্যামনগর, জেলা-সাতক্ষীরা, বর্তমান ঠিকানা- বাসা নং-৩৩৫ টিনসেট কলোনী, ব্লক-এ, মিরপুর ১৩, থানা-কাফরুল, ডিএমপি, ঢাকা, (৩) আইরিন আক্তার ওরফে শাহানা ওরফে হিরা(২১), স্বামী আব্দুল হালিম, সাং-ভাসনডা, থানা-বেতাগী, জেলা-বরগুনা, (৪) মোছাঃ ফরিদা বেগম (৪৫), স্বামী মোঃ দেলোয়ার হোসেন, সাং পুর্ব চাদ কাঠি, থানা+জেলাঃ ঝালকাঠি উভয়ের বর্তমান ঠিকানা-বাসা নং-১৬, রোড নং-১, ব্লক-বি, সেকশন-৬, থানা- মিরপুর, ডিএমপি, ঢাকা গ্রেফতার করে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এই প্রতারক চক্রটি অভিনব পদ্ধতিতে ম্যারেজ মিডিয়ার আঁড়ালে সাধারণ মানুষকে ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করে আসছে। এরা প্রথমে প্রতিষ্ঠিত বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় “পাত্র চাই” শিরোনামে চটকদার বিজ্ঞাপন দেয়, যা সাধারন মানুষকে সহজেই আকৃষ্ট করে। এদের মূল টার্গেট হলো বিদেশগামী বেকার যুবক, বিপত্মীক এবং অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবি। বিজ্ঞাপনে লেখা থাকে-“শিল্পপতির কণ্যা আমেরিকান সিটিজেন (৩৭+র্৫-র্র্৪র্ ) বিধবা, মা সচিব, ঢাকায় গাড়ীর শোরুম ও যমুনা ফিউচার পার্কে দোকান গ্রামের বাড়ী খুলনা, ঈদের ছুটিতে ঢাকায় ফ্ল্যাট গুলশান-১, সড়ক-১৩৭, ঢাকা-১২১২ পাত্রীর জন্য ধার্মিক নামাজী ও ব্যবসায়ী পাত্র চাই” এবং যোগাযোগের জন্য মোবাইল নম্বর দেয়া থাকে। প্রতারণার শিকার ব্যক্তিরা উক্ত নম্বরসমূহে কল দিলে প্রথমে পাত্রীর মামা বা নিকট আত্মীয় পরিচয় দিয়ে কথা বলে এবং একটি রেস্টুরেন্টে দেখা করে। কথাবার্তার একপর্যায়ে পাত্রীর সাথে একটি তারিখ নির্দিষ্ট করে পাসপোর্ট করার জন্য পরামর্শ দিয়ে ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা হাতিয়ে নেয়।

পরবর্তীতে তাদের সুবিধা মতো একটি নির্দিষ্ট দিনে পাত্রীর সাথে পাত্রের সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে। কথাবার্তার একপর্যায়ে পাত্রী আগ্রহী প্রার্থীর সাথে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করে আনুসাঙ্গিক খরচের জন্য আনুমানিক লক্ষাধিক টাকা নিয়ে আসতে বলে। পাত্রকে পূর্ব থেকে নির্দিষ্ট করা ফ্ল্যাটে বা বাসায় নিয়ে প্রলোভনে ফেলে কৌশলে কথিত পাত্রীর সাথে একান্ত কিছু মুহুর্তের ছবি এবং ভিড়িও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইলিং করে। ফ্ল্যাটে নোটারী পাবলিকের সকল প্রকার সীল, জাল ফরম, ভূয়া কাবিননামা এবং ভূয়া সাক্ষী পূর্ব থেকে প্রস্তুত করা থাকতো। ভিকটিম’কে ফাঁদে ফেলে কথিত পাত্রীর সাথে ভূয়া কাবিননামা তৈরি করে পাত্রের সাথে বিয়ের খরচ বাবদ আনা টাকা পয়সা হাতিয়ে নিতো। এই চক্রের নাটেরগুরু শেখ হাফিজুর রহমান(৪৬), পিতা-মৃত লুৎফর রহমান, সাং-বুড়িয়ার ডাঙ্গা, থানা-ফুলতলা, জেলা-খুলনা, বর্তমান ঠিকানা-বাসা-১৬ রোড-১, ব্লক-বি, সেকশন-৬, থানা- মিরপুর, ডিএমপি ঢাকা কাজী হিসেবে কাজ করতো। উল্লিখিত চক্রের সাথে জড়িত আরো ১০/১২ জন জড়িত আছে বলে জানা যায়।

গত ২৭/০৬/২০১৬ ইং তারিখ “দৈনিক যুগান্তর” পত্রিকায় একটি বিজ্ঞাপন দেখে পঞ্চাশোর্ধ একজন অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবি বিজ্ঞাপনে প্রদত্ত মোবাইল ন¤¦রে যোগাযোগ করলে মাহাবুব নামে একজন পাত্রীর মামা পরিচয় দিয়ে জানায় যে, তার নিজের শ্বাশুড়ী মারা গ্েিয়ছে বলে তারা বর্তমানে বরিশালে অবস্থান করছে। এরপর হতে তাদের সহিত ভিকটিমের যোগাযোগ বন্ধ থাকে। পরবর্তীতে গত ০৬/১০/২০১৬ ইং তারিখে পুনরায় তার সাথে যোগযোগ হয়। এর ৪/৫ দিন পর ১নং আসামী মাহাবুব ভিকটিমের মোবাইল ন¤¦রে যোগাযোগ করে এবং ভিকটিমকে তাদের সাথে দেখা করতে বলে। গত ১১/১০/২০১৬ তারিখ ভিকটিম মিরপুর-১০ ন¤¦রের ডায়াবেটিস হাসপাতালের রিসিপসনে গ্রেফতারকৃত ১নং আসামী মোঃ মাহাবুব শরীফ ও ২নং আসামী রাজুর সহিত দেখা করে তখন আসামীদ্বয় ভিকটিমের পাসপোর্ট আছে কিনা জিজ্ঞাসাবাদ করলে ভিকটিম জানায় তার পাসপোর্ট নাই। এই কথা শোনার পর ১নং আসামী মাহাবুব তার মোবাইল ফোন দ্বারা ভিকটিমের দুটি ছবি তুলে দ্রুত পাসপোর্ট করে ভিকটিমকে আমেরিকা পাঠাবে বলে জানায়।

পরের দিন ১নং আসামী মাহাবুব ভিকটিমকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানায় যে, আমার ভাগিনী শাহানা ভিকটিমকে পছন্দ করেছে এবং বলে যে, শাহানা নিজেই ভিকটিমের সহিত যোগাযোগ করবে। পরবর্তীতে আবারও ১নং আসামী মাহাবুব মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পাসপোর্টের ব্যাপারে ভিকটিমকে দেখা করতে বলে। ইতিমধ্যে ৩নং আসামী শাহানা ও ৩নং আসামীর মা ৪ নং আসামী ফরিদা বেগমের সহিত ভিকটিমের কথাবার্তা চলতে থাকে। এক পর্যায়ে ৩নং আসামী শাহানা ভিকটিমকে বলে যে, প্রথম দেখায় আপনি আমাকে আংটি পরিয়ে যাবেন।

পরবর্তীতে ৩নং আসামী শাহানা আরো বলেন যে, বিবাহের অনুষ্ঠানে আমি দশ লক্ষ টাকা খরচ করব আর আপনি পাঁচ লক্ষ টাকা খরচ করবেন তখন ভিকঢিম ১/২ লক্ষ টাকা খরচ করতে পারবে বলে জানালে ৩নং আসামী বিষয়টি মেনে নেয়। এরপর গত ১৫/১১/২০১৬ ইং তারিখ আসামীদের সাথে ভিকটিমের দেখা করার কথা বলে, ভিকটিম দেখা করতে না গেলে আসামীরা একাধিকবার ভিকটিমের সাথে যোগাযোগ করে এবং দেখা করতে বলে।

বিষয়টি ভিকটিমের কাছে সন্দেহ হওয়ায় ভিকটিম র‌্যাব-১ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে র‌্যাব-১ এর নির্দেশনা মতে গত ২২/১১/২০১৬ ইং তারিখ রাতে মিরপুর থানাধীন মিরপুর-৬, রোড নং-৪, বাসা নং-২/এ সামনে ভিকটিম আসামীদের সাথে দেখা করতে গেলে পূর্ব হতে ওঁত পেতে থাকা র‌্যাব সদস্যরা উক্ত প্রতারক চক্রের ০৪ জন সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় এবং ০২ জন প্রতারক চক্রের সদস্য পালিয়ে যায়। ধৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে এবং বিদেশে নেওয়ার কথা বলে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» যশোরের বেনাপোল পুটখালী থেকে ইয়াবা ও ফেন্সিডিলসহ আটক-৩

» শ্রমিকদের জন্য হাসপাতল, আবাসন, রেশনিং, শিক্ষা, পরিবহনসহ গুরুত্বপূর্ন মৌলিক বিষয়ে বর্তমান বাজেটে বরাদ্দ রাখার দাবীতে। মাননীয় স্পিকারের বরাবর স্বারকলিপি প্রদান

» উলাশীর নীলকুঠি পার্কে-বোমা হামলা ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ১৫ লাখ টাকা

» ধামইরহাট মঙ্গল খাল পুনঃ খনন হওয়ায় খুশি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির উপকারভোগী কৃষকরা

» বেনাপোলে জয়যাত্রা টেলিভিশনের চেয়ারম্যান সিষ্টার হেলেনা জাহাঙ্গীরের সুস্থতা কামনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

» ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়া

» কলাপাড়ায় তেগাছিয়ার খেঁয়াঘাট টি যেন এখন মরণ ফাঁদ! যাত্রীদের চরম দুর্ভ্যোগ

» টাকা ছাড়াই ১৮ জন বেকার যুবককে পুলিশে চাকরি দিলেন এসপি মাহবুবুর রহমান

» প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বন্ধের পরিকল্পনা নেই: প্রতিমন্ত্রী

» এইচএসসির ফল ২০ থেকে ২২ জুলাইয়ের মধ্যে

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন





ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ১২ই আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রাজধানীর মিরপুর এলাকা হতে সক্রিয় ৪ প্রতারক গ্রেফতার

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

মাসুদ হাসান রিদম,ঢাকা: রাজধানীর ঢাকার মিরপুর এলাকা হতে প্রতারক চক্রের ৪ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১) । বৃহস্পতিবার, (২৪ই নভেস্বর’১৬) রাতে সহকারী পরিচালক (মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর) র‌্যাব-১ পক্ষে অধিনায়ক এক মেইল প্রেস রিলিজ এর মাধ্যমে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

মেইল প্রেস রিলিজ এর মাধ্যমে বলা হয়,প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ২২ নভেম্বর ২০১৬ তারিখ সময় ২১০০ ঘটিকায় র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকার একটি আভিযানিক দল সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আকরামুল হাসান এর নেতৃত্বে মিরপুর এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। একপর্যায়ে আভিযানিক দলটি মিরপুর থানাধীন, মিরপুর-৬ হইতে ২ জন মহিলাসহ প্রতারক চক্রের ০৪ জন সক্রিয় সদস্য (১) মোঃ মাহাবুব শরীফ ওরফে শামীম(৩০), পিতা-মৃত বাদশা শরীফ, সাং- রমজান কাঠি, থানা-ঝালকাঠি, জেলা-ঝালকাঠি বর্তমান ঠিকানা- বাসা নং-১৬ রোড নং-০১ ব্লক-বি, মিরপুর-৬, থানা- মিরপুর, ডিএমপি, ঢাকা (২) মোঃ রেজাউল কবীর ওরফে আঃ রাজ্জাক ওরফে রাজু (৫০), পিতা-ফজলুল হক, সাং-নওয়াবেঁকী, থানা-শ্যামনগর, জেলা-সাতক্ষীরা, বর্তমান ঠিকানা- বাসা নং-৩৩৫ টিনসেট কলোনী, ব্লক-এ, মিরপুর ১৩, থানা-কাফরুল, ডিএমপি, ঢাকা, (৩) আইরিন আক্তার ওরফে শাহানা ওরফে হিরা(২১), স্বামী আব্দুল হালিম, সাং-ভাসনডা, থানা-বেতাগী, জেলা-বরগুনা, (৪) মোছাঃ ফরিদা বেগম (৪৫), স্বামী মোঃ দেলোয়ার হোসেন, সাং পুর্ব চাদ কাঠি, থানা+জেলাঃ ঝালকাঠি উভয়ের বর্তমান ঠিকানা-বাসা নং-১৬, রোড নং-১, ব্লক-বি, সেকশন-৬, থানা- মিরপুর, ডিএমপি, ঢাকা গ্রেফতার করে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, এই প্রতারক চক্রটি অভিনব পদ্ধতিতে ম্যারেজ মিডিয়ার আঁড়ালে সাধারণ মানুষকে ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করে আসছে। এরা প্রথমে প্রতিষ্ঠিত বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকায় “পাত্র চাই” শিরোনামে চটকদার বিজ্ঞাপন দেয়, যা সাধারন মানুষকে সহজেই আকৃষ্ট করে। এদের মূল টার্গেট হলো বিদেশগামী বেকার যুবক, বিপত্মীক এবং অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবি। বিজ্ঞাপনে লেখা থাকে-“শিল্পপতির কণ্যা আমেরিকান সিটিজেন (৩৭+র্৫-র্র্৪র্ ) বিধবা, মা সচিব, ঢাকায় গাড়ীর শোরুম ও যমুনা ফিউচার পার্কে দোকান গ্রামের বাড়ী খুলনা, ঈদের ছুটিতে ঢাকায় ফ্ল্যাট গুলশান-১, সড়ক-১৩৭, ঢাকা-১২১২ পাত্রীর জন্য ধার্মিক নামাজী ও ব্যবসায়ী পাত্র চাই” এবং যোগাযোগের জন্য মোবাইল নম্বর দেয়া থাকে। প্রতারণার শিকার ব্যক্তিরা উক্ত নম্বরসমূহে কল দিলে প্রথমে পাত্রীর মামা বা নিকট আত্মীয় পরিচয় দিয়ে কথা বলে এবং একটি রেস্টুরেন্টে দেখা করে। কথাবার্তার একপর্যায়ে পাত্রীর সাথে একটি তারিখ নির্দিষ্ট করে পাসপোর্ট করার জন্য পরামর্শ দিয়ে ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা হাতিয়ে নেয়।

পরবর্তীতে তাদের সুবিধা মতো একটি নির্দিষ্ট দিনে পাত্রীর সাথে পাত্রের সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে। কথাবার্তার একপর্যায়ে পাত্রী আগ্রহী প্রার্থীর সাথে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করে আনুসাঙ্গিক খরচের জন্য আনুমানিক লক্ষাধিক টাকা নিয়ে আসতে বলে। পাত্রকে পূর্ব থেকে নির্দিষ্ট করা ফ্ল্যাটে বা বাসায় নিয়ে প্রলোভনে ফেলে কৌশলে কথিত পাত্রীর সাথে একান্ত কিছু মুহুর্তের ছবি এবং ভিড়িও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইলিং করে। ফ্ল্যাটে নোটারী পাবলিকের সকল প্রকার সীল, জাল ফরম, ভূয়া কাবিননামা এবং ভূয়া সাক্ষী পূর্ব থেকে প্রস্তুত করা থাকতো। ভিকটিম’কে ফাঁদে ফেলে কথিত পাত্রীর সাথে ভূয়া কাবিননামা তৈরি করে পাত্রের সাথে বিয়ের খরচ বাবদ আনা টাকা পয়সা হাতিয়ে নিতো। এই চক্রের নাটেরগুরু শেখ হাফিজুর রহমান(৪৬), পিতা-মৃত লুৎফর রহমান, সাং-বুড়িয়ার ডাঙ্গা, থানা-ফুলতলা, জেলা-খুলনা, বর্তমান ঠিকানা-বাসা-১৬ রোড-১, ব্লক-বি, সেকশন-৬, থানা- মিরপুর, ডিএমপি ঢাকা কাজী হিসেবে কাজ করতো। উল্লিখিত চক্রের সাথে জড়িত আরো ১০/১২ জন জড়িত আছে বলে জানা যায়।

গত ২৭/০৬/২০১৬ ইং তারিখ “দৈনিক যুগান্তর” পত্রিকায় একটি বিজ্ঞাপন দেখে পঞ্চাশোর্ধ একজন অবসরপ্রাপ্ত চাকুরীজীবি বিজ্ঞাপনে প্রদত্ত মোবাইল ন¤¦রে যোগাযোগ করলে মাহাবুব নামে একজন পাত্রীর মামা পরিচয় দিয়ে জানায় যে, তার নিজের শ্বাশুড়ী মারা গ্েিয়ছে বলে তারা বর্তমানে বরিশালে অবস্থান করছে। এরপর হতে তাদের সহিত ভিকটিমের যোগাযোগ বন্ধ থাকে। পরবর্তীতে গত ০৬/১০/২০১৬ ইং তারিখে পুনরায় তার সাথে যোগযোগ হয়। এর ৪/৫ দিন পর ১নং আসামী মাহাবুব ভিকটিমের মোবাইল ন¤¦রে যোগাযোগ করে এবং ভিকটিমকে তাদের সাথে দেখা করতে বলে। গত ১১/১০/২০১৬ তারিখ ভিকটিম মিরপুর-১০ ন¤¦রের ডায়াবেটিস হাসপাতালের রিসিপসনে গ্রেফতারকৃত ১নং আসামী মোঃ মাহাবুব শরীফ ও ২নং আসামী রাজুর সহিত দেখা করে তখন আসামীদ্বয় ভিকটিমের পাসপোর্ট আছে কিনা জিজ্ঞাসাবাদ করলে ভিকটিম জানায় তার পাসপোর্ট নাই। এই কথা শোনার পর ১নং আসামী মাহাবুব তার মোবাইল ফোন দ্বারা ভিকটিমের দুটি ছবি তুলে দ্রুত পাসপোর্ট করে ভিকটিমকে আমেরিকা পাঠাবে বলে জানায়।

পরের দিন ১নং আসামী মাহাবুব ভিকটিমকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানায় যে, আমার ভাগিনী শাহানা ভিকটিমকে পছন্দ করেছে এবং বলে যে, শাহানা নিজেই ভিকটিমের সহিত যোগাযোগ করবে। পরবর্তীতে আবারও ১নং আসামী মাহাবুব মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পাসপোর্টের ব্যাপারে ভিকটিমকে দেখা করতে বলে। ইতিমধ্যে ৩নং আসামী শাহানা ও ৩নং আসামীর মা ৪ নং আসামী ফরিদা বেগমের সহিত ভিকটিমের কথাবার্তা চলতে থাকে। এক পর্যায়ে ৩নং আসামী শাহানা ভিকটিমকে বলে যে, প্রথম দেখায় আপনি আমাকে আংটি পরিয়ে যাবেন।

পরবর্তীতে ৩নং আসামী শাহানা আরো বলেন যে, বিবাহের অনুষ্ঠানে আমি দশ লক্ষ টাকা খরচ করব আর আপনি পাঁচ লক্ষ টাকা খরচ করবেন তখন ভিকঢিম ১/২ লক্ষ টাকা খরচ করতে পারবে বলে জানালে ৩নং আসামী বিষয়টি মেনে নেয়। এরপর গত ১৫/১১/২০১৬ ইং তারিখ আসামীদের সাথে ভিকটিমের দেখা করার কথা বলে, ভিকটিম দেখা করতে না গেলে আসামীরা একাধিকবার ভিকটিমের সাথে যোগাযোগ করে এবং দেখা করতে বলে।

বিষয়টি ভিকটিমের কাছে সন্দেহ হওয়ায় ভিকটিম র‌্যাব-১ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে র‌্যাব-১ এর নির্দেশনা মতে গত ২২/১১/২০১৬ ইং তারিখ রাতে মিরপুর থানাধীন মিরপুর-৬, রোড নং-৪, বাসা নং-২/এ সামনে ভিকটিম আসামীদের সাথে দেখা করতে গেলে পূর্ব হতে ওঁত পেতে থাকা র‌্যাব সদস্যরা উক্ত প্রতারক চক্রের ০৪ জন সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় এবং ০২ জন প্রতারক চক্রের সদস্য পালিয়ে যায়। ধৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে এবং বিদেশে নেওয়ার কথা বলে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited