২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাড়া বোমা হামলায় নিহত ২০”পরিচয় মিলেনি ১ জনের

Spread the love

মোঃ খোকন প্রধান -নাঃগঞ্জের চাষাড়াস্হ আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলার নিহত ২০জনের মধ্যে একজন নারীর পরিচয় ১৬ বছরেও পাওয়া যায় নি । জানা যায়নি কে সেই নারী যিনি ২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাড়া আঃলীগ অফিসে বোমা হামলায় ঘটনায় নিহত হয়েছিলেন জনমনে প্রশ্ন এই নারী কি তবে হামলাকারীদের দলের কেউ .? সেইদিনের ঘটনায় নাঃগঞ্জ সদর, ফতুল্লার আঃ লীগের নেতা-কর্মীসহ কয়েকজন সাধারন মানুষ নিহত হয়েছিলেন, পরে একে একে নিহতের পরিচয় সনাক্ত করা হয় কিন্তুু নিহতদের মধ্যে একজন নারীও ছিলো যাকে ১৬ বছরের মধ্যে কেউ ই সনাক্ত করতে পারে নি

 

। অনেকের অভিযোগ সেই নারীর পরিচয় নিশ্চিত করতে প্রশাসনই কার্যকরী কোনো উদ্যোগ নেয় নি, আর এই কারনেই আজো সনাক্ত করা হয় নি সেই নারীর পরিচয়, আর এটা যে ভবিষ্যতেও হবে না এই কথা নিশ্চিত করে বললেও দোষ হবে না ।  উল্লেখ্য যে, গত ২০০১ সালের ১৬ জুন নাঃগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাধারন সম্পাদক এবং নাঃগঞ্জ (৪) আসনের সরকার দলীয় তৎকালীন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান শহরের চাষাড়াস্হ আঃ লীগের অফিসে নেতা-কর্মীদের নিয়ে মিটিং করতেছিলেন । ঠিক সেই মুর্হুতেই ঘটনাস্হলে ভয়াবহ বোমা হামলা করেন আততীয়ারা , সেই হামলায় সদর থানা আঃলীগের সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ফতুল্লা থানা আঃ লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ভাসানী, শহর ছাএলীগের সভাপতি সাইদুল হাসান বাপ্পি, তোলারাম কলেজের জিএস আক্তার হোসেন, তার ভাই কন্ঠ শিল্পী মোশারফ হোসেন মশু, মহিলা আঃ লীগ নেএী পলি বেগম, আঃ সাক্তার, আবু হানিফ, আবদুল আলীম, স্বপন দাস, নিধু রাম, শওকত হোসেন মোক্তার, নজরুল ইসলাম বাচ্চু, সাইদুর রহমান সবুজ মোল্লা, স্বপন রায়, এনায়েত উল্ল্যাহ স্বপন,চা বিক্রেতা হালিমা খাতুন,রাজিয়া বেগম, শুক্কুর আলী সহ একজন নারী যার পরিচয় আজো পাওয়া যায়নি ।

 

আর গুরুত্বর আহত হন শামীম ওসমানের পিএস চন্দন শীল, এমপি শামীম ওসমান সহ আরো অনেকেই । ঘটনার পর দিন শহর আঃলীগের তৎকালীন সাধারন সম্পাদক এডভোকেট খোকন সাহা তৎকালীন বিএনপির জেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার কে প্রধান করে বিএনপির ২৭ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক ও হত্যা আইনে নাঃগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিলেন । এদিকে  আঃলীগের ২০ জন নেতা-কর্মী হত্যার ঘটনা ১৬বছর পেরিঁয়ে গেলেও এখনো বিচার কার্য শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন নিহত-আহতদের পরিবারের লোকজন, তাদের অভিযোগ এঘটনা নিয়ে শুধুই রাজনীতি ই করা হচ্ছে এখনো বিচারের মুখোমুখি কাউকে করানো হয়নি , তবে মামলার সর্বশেষ চার্জশীটে অভিযুক্ত আসামী মুফতি আব্দুল হান্নানের অন্য একটি মামলায় ফাসিঁর রায় হলেও এই মামলায় অভিযুক্ত কারো বিচার হয়নি, মামলার আসামী আমিনূর মোঃ মোরসালিন ও তার ভাই মুক্তাকিন ভারতের একটি কারাগারে বন্দী রয়েছে বর্তমানে, শাহাদাত উল্ল্যাহ্ জুয়েল কারাগারে থাকলেও সিআইডির দেওয়া চার্জশীটের আসামী কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু ও এবায়দুল্লাহ্ রহমান বর্তমানে জামিনে রয়েছে  বলে জানা গেছে ।

 

উল্লেখ্য বিগত বিএনপি জামাত জোট সরকারের আমলে এই বোমা হামলার মামলাটিতে এডভোকেট খোকন সাহার দায়ের কৃত মামলার আসামী তৈমুর আলম খন্দকার সহ বিএনপির ২৭ জন নেতা-কর্মী এঘটনায় জড়িত নয় মর্মে একটি সম্পূরক চার্জশীট আদালতে প্রেরন করেন পুলিশ । এবং ঘটনায় নিহত চা বিক্রেতা হালিমা বেগমের ছেলে আবু কালাম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন সেখানে আসামী করা হয় শামীম ওসমান, নাসিম ওসমান সহ আঃ লীগ ও জাতীয় পার্টির ৫৮জন নেতা-কর্মী কে । পরে আদালত হালিমা বেগমের ছেলে আবুল কালামের মামলাটি বাতিল করে দেন । ২০০৯ সালে নাঃগঞ্জ জেলা সিআইডির প্রধান এহসান উদ্দীন চৌধুরীর মামলাটি পুনঃতদন্তের আবেদন করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এবং সেই আবেদন গ্রহন করলে পরে সিআইডি খোকন সাহার মামলার ৬জন কে অভিযুক্ত করে তৈমুর আলম সহ ২১ জন কে অব্যাহতুি দিয়ে সম্পূরক চার্জশীট আদালতে দাখিল করেন আর এতে আসামী হলেন মুফতি হান্নান, শাহাদাত উল্ল্যাহ্ জুয়েল, শওকত হাশেম শকু, আমিনুর মোরসালিন, মুক্তাকিন, এবায়দুল্লাহ্ রহমান  ।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» মৌলভীবাজারে ১৬৪৬ টি কেন্দ্রে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে

» ইন্ডাষ্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিল-আইবিসি এর উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলন

» বান্দরবানে সাঙ্গু নদীতে নিখোঁজ মানসিক প্রতিবন্ধীকে উদ্ধারে নেমেছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স বিশেষ টিম

» গলাচিপায় জোলেখার বাজারে বেহাল দশা

» ফতুল্লায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে নগদ টাকা ও ঢেউটিন বিতরণ

» শরীয়তপুরে নদীতে গোসল করতে নেমে যুবক নিখোঁজ

» চিত্রনায়িকা পরীমনিকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন চিত্রনায়ক আলমগীর

» ভারতের পেট্রাপোলে হুন্ডির টাকাসহ আটক বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ৩ কনস্টেবল অবশেষে মুক্ত।। ইমিগ্রেশনের কর্মচারী রুহুল কারাগারে

» ঝিনাইদহে তথ্য অধিকার আইন বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা

» ঝিনাইদহে জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার স্ক্র্যাচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন





ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাড়া বোমা হামলায় নিহত ২০”পরিচয় মিলেনি ১ জনের

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

মোঃ খোকন প্রধান -নাঃগঞ্জের চাষাড়াস্হ আওয়ামী লীগ অফিসে বোমা হামলার নিহত ২০জনের মধ্যে একজন নারীর পরিচয় ১৬ বছরেও পাওয়া যায় নি । জানা যায়নি কে সেই নারী যিনি ২০০১ সালের ১৬ জুন চাষাড়া আঃলীগ অফিসে বোমা হামলায় ঘটনায় নিহত হয়েছিলেন জনমনে প্রশ্ন এই নারী কি তবে হামলাকারীদের দলের কেউ .? সেইদিনের ঘটনায় নাঃগঞ্জ সদর, ফতুল্লার আঃ লীগের নেতা-কর্মীসহ কয়েকজন সাধারন মানুষ নিহত হয়েছিলেন, পরে একে একে নিহতের পরিচয় সনাক্ত করা হয় কিন্তুু নিহতদের মধ্যে একজন নারীও ছিলো যাকে ১৬ বছরের মধ্যে কেউ ই সনাক্ত করতে পারে নি

 

। অনেকের অভিযোগ সেই নারীর পরিচয় নিশ্চিত করতে প্রশাসনই কার্যকরী কোনো উদ্যোগ নেয় নি, আর এই কারনেই আজো সনাক্ত করা হয় নি সেই নারীর পরিচয়, আর এটা যে ভবিষ্যতেও হবে না এই কথা নিশ্চিত করে বললেও দোষ হবে না ।  উল্লেখ্য যে, গত ২০০১ সালের ১৬ জুন নাঃগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাধারন সম্পাদক এবং নাঃগঞ্জ (৪) আসনের সরকার দলীয় তৎকালীন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান শহরের চাষাড়াস্হ আঃ লীগের অফিসে নেতা-কর্মীদের নিয়ে মিটিং করতেছিলেন । ঠিক সেই মুর্হুতেই ঘটনাস্হলে ভয়াবহ বোমা হামলা করেন আততীয়ারা , সেই হামলায় সদর থানা আঃলীগের সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ফতুল্লা থানা আঃ লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন ভাসানী, শহর ছাএলীগের সভাপতি সাইদুল হাসান বাপ্পি, তোলারাম কলেজের জিএস আক্তার হোসেন, তার ভাই কন্ঠ শিল্পী মোশারফ হোসেন মশু, মহিলা আঃ লীগ নেএী পলি বেগম, আঃ সাক্তার, আবু হানিফ, আবদুল আলীম, স্বপন দাস, নিধু রাম, শওকত হোসেন মোক্তার, নজরুল ইসলাম বাচ্চু, সাইদুর রহমান সবুজ মোল্লা, স্বপন রায়, এনায়েত উল্ল্যাহ স্বপন,চা বিক্রেতা হালিমা খাতুন,রাজিয়া বেগম, শুক্কুর আলী সহ একজন নারী যার পরিচয় আজো পাওয়া যায়নি ।

 

আর গুরুত্বর আহত হন শামীম ওসমানের পিএস চন্দন শীল, এমপি শামীম ওসমান সহ আরো অনেকেই । ঘটনার পর দিন শহর আঃলীগের তৎকালীন সাধারন সম্পাদক এডভোকেট খোকন সাহা তৎকালীন বিএনপির জেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক এডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার কে প্রধান করে বিএনপির ২৭ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক ও হত্যা আইনে নাঃগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছিলেন । এদিকে  আঃলীগের ২০ জন নেতা-কর্মী হত্যার ঘটনা ১৬বছর পেরিঁয়ে গেলেও এখনো বিচার কার্য শুরু না হওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন নিহত-আহতদের পরিবারের লোকজন, তাদের অভিযোগ এঘটনা নিয়ে শুধুই রাজনীতি ই করা হচ্ছে এখনো বিচারের মুখোমুখি কাউকে করানো হয়নি , তবে মামলার সর্বশেষ চার্জশীটে অভিযুক্ত আসামী মুফতি আব্দুল হান্নানের অন্য একটি মামলায় ফাসিঁর রায় হলেও এই মামলায় অভিযুক্ত কারো বিচার হয়নি, মামলার আসামী আমিনূর মোঃ মোরসালিন ও তার ভাই মুক্তাকিন ভারতের একটি কারাগারে বন্দী রয়েছে বর্তমানে, শাহাদাত উল্ল্যাহ্ জুয়েল কারাগারে থাকলেও সিআইডির দেওয়া চার্জশীটের আসামী কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকু ও এবায়দুল্লাহ্ রহমান বর্তমানে জামিনে রয়েছে  বলে জানা গেছে ।

 

উল্লেখ্য বিগত বিএনপি জামাত জোট সরকারের আমলে এই বোমা হামলার মামলাটিতে এডভোকেট খোকন সাহার দায়ের কৃত মামলার আসামী তৈমুর আলম খন্দকার সহ বিএনপির ২৭ জন নেতা-কর্মী এঘটনায় জড়িত নয় মর্মে একটি সম্পূরক চার্জশীট আদালতে প্রেরন করেন পুলিশ । এবং ঘটনায় নিহত চা বিক্রেতা হালিমা বেগমের ছেলে আবু কালাম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন সেখানে আসামী করা হয় শামীম ওসমান, নাসিম ওসমান সহ আঃ লীগ ও জাতীয় পার্টির ৫৮জন নেতা-কর্মী কে । পরে আদালত হালিমা বেগমের ছেলে আবুল কালামের মামলাটি বাতিল করে দেন । ২০০৯ সালে নাঃগঞ্জ জেলা সিআইডির প্রধান এহসান উদ্দীন চৌধুরীর মামলাটি পুনঃতদন্তের আবেদন করেন জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এবং সেই আবেদন গ্রহন করলে পরে সিআইডি খোকন সাহার মামলার ৬জন কে অভিযুক্ত করে তৈমুর আলম সহ ২১ জন কে অব্যাহতুি দিয়ে সম্পূরক চার্জশীট আদালতে দাখিল করেন আর এতে আসামী হলেন মুফতি হান্নান, শাহাদাত উল্ল্যাহ্ জুয়েল, শওকত হাশেম শকু, আমিনুর মোরসালিন, মুক্তাকিন, এবায়দুল্লাহ্ রহমান  ।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited