বিএনপিকে বাদ দিয়ে দেশে কোনো নির্বাচন হবে না,হতে দেওয়া হবে না-বিএনপি চেয়ারপারসন

Spread the love

মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম, ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন,‘আমরা ভিশন ২০৩০ দিয়েছি। আওয়ামী লীগ বলে তাদের ভিশন নাকি বিএনপি চুরি করেছে। তাদের তো কোনো ভিশন নেই। তারা চুরির চিন্তায়থাকে। আমাদের ভিশন আর তাদের ভিশন এক হতেপারে না। আমাদের চিন্তা আর তাদের চিন্তা এক নয়।’

রবিবার গুলশান-১ এর ইমানুয়েল কনভেনশন সেন্টারে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সময় শেষ। তারা জানে সুষ্ঠু ভোট হলে পালাতে হবে। কিন্ত তারা এতো বেশি লুট করেছে যে পালানোরও সুযোগ পাবে না। সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে, হাসিনার অধীনে নয়। ইনশাল্লাহ২০১৮ সালে দেশের জনগণের বছর হবে, গণতন্ত্র, উন্ণয়ন ও শান্তি বছর হবে।’
আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্যে জিয়া বলেন, ‘কেন তারা ১০ টাকা কেজি চাল খাওয়াবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। আজকে কেন ৭০ টাকা কেজি চাল খেতে হয়। এদেশের মানুষ আওয়ামী লীগ সরকারের সময় দুই বেলা পেট পুড়ে খেতে পারে না।  তারারিলিফ পযর্ন্ত দেয় না। রিলিফ চুরির অভ্যাস আওয়ামী লীগের স্বাধীনতার পর থেকে। তাদের এই অভ্যাস কোনো দিনও যাবে না। এরা চোর। এরা ভোটে চোর, গম চোর, চাল চোর আরো নানা বিধি চুরির অভ্যাস ’

হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘বিএনপিকে বাদ দিয়ে দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। হতে দেওয়া হবে না। এদেশে নির্বাচন হবে সহায়ক সরকারের অধীনে, হাসিনার অধীনে নয়। হাসিনার অধীনে নির্বাচন কয়েক বার দেখেছি। সারাপৃথিবী বলেছে ২০১৪ সালের বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হয়নি। একটা নির্বাচন কমিশন ছিল রকিব উদ্দিন, তাকে দিয়ে ঘোষণা দিয়েছে। যে এত ভাগ ভোট পড়েছে । এসব ছিল মিথ্যা কথা।’

তিনি বলেন, ‘আগামীতে এমন নির্বাচন বাংলাদেশ হবে না।  নির্বাচন হবে সেই নির্বাচন হবে সহায়ক সরকারের অধীনে, সকাল রাজনৈতিক দল অংশ গ্রহণ করবে।’

আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কথায় কথায় মুক্তিযুদ্ধের বলে। আসলে যারা যুদ্ধ করেনি মুক্তিযুদ্ধে যাদের অংশ গ্রহণ ছিল না। সীমান্ত পাড়ি দিয়েছিল তারা আজকে বড় মুক্তিযোদ্ধা হয়ে গেছে। তারা কথায়কথায় কিছূ না হলেও অমুকে রাজাকার, অমুকে এই করেছে তাকে দরুন তাকে শাস্তি দেওয়া হউক, বিচার করুণ। বিশেষ করে বিএনপিতে যারা জনপ্রিয় তাদের বিরুদ্ধে নানাভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে। যে মুক্তিযোদ্ধের সময় সে এটা করেছে, সেটাকরেছে, রাজকারি করেছে। তাদেরকে নাম দিয়ে নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। এটা নতুন করে ষড়যন্ত্র।  এলাকায় এলাকায় খোঁজ নিচ্ছে তাদের( আওয়ামী লীগ) কোথায় জনপ্রিয়তা নেই। বিএনপির কোথায় কোথায় জনপ্রিয়তা সেই সব নেতাদেরকেমিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ জানে তাদের কত জনপ্রিয়তা। এই ১০ বছরের যে লুট করেছে। এখন তাদের চলাফেরার অবস্থা নেই, একেক জনের এমন ‍ওজন বেড়েছে এদের নির্বাচন তো দুরের কথা পালাবারও অবস্থা নেই।’

শেখ হাসিনার নির্বাচনী প্রচারনার প্রসঙ্গে টেনে খালেদা জিয়া বলেন, ‘নিজেকে সঘোষিত প্রধানমন্ত্রী একেক জায়গায় যাচ্ছেন আর নৌকার প্রচারণা চালাচ্ছেন। অন্য দিকে বিএনপির ধর্মীয় মাহফিলেও বাধা দিয়ে যাচ্ছে। এর কারণটা কি তারা চায় নাবিএনপি নির্বাচনে আসুক। বিএনপির নির্বাচনে আসলে তাদের যে কি করুণ পরিণতি হবে তারা গোপনে খবর নিয়ে তা জেনে গেছে। সেই জন্য্ তারা নানা হয়রানি করছে যাতে বিএনপি নির্বাচনে না আসে। মামলা-হামলা নানা রকম হয়রানি করেদ্রুত সাজা দেওয়া ব্যবস্থা নিচ্ছে।’

মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজীজ উলফাতের সভাপতিত্বে আরোও বক্তব্য দেন- এলডিপির চেয়ারম্যান কর্ণেল(অব.) অলি আহমদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যানব্যারিস্টার শাহজাহার ওমর, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম প্রমুখ।

ইফতার পার্টিতে অংশ নেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম খান, আবদুল্লাহ আল নেমান, সেলিমা রহমান, শামছুজ্জামান দুদু, মজিবুর রহমান সারেয়ার, শ্যামা ওবায়েদ, কামরুজ্জামান রতন,সাদেক খান প্রমুখ।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» আমরা তো ডুবেছিই, এবার বাংলাদেশকে ডুবাবো

» রেস্টুরেন্টের গোপন কক্ষে অসামাজিক কাজ, ৩ তরুণীসহ আটক ১১

» বুদ্ধির জোরে ৩ শতাধিক ট্রেনযাত্রীর প্রাণ বাঁচালেন শাহান মিয়া

» সম্মাননা ক্রেষ্ট হাতে পেয়ে খুশিতে কেঁদে দিলেন আওয়ামীলীগ প্রবীন নেতা রনধীর দত্ত

» কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা: নিহত ৫, আহত আড়াই শতাধিক

» রাজনৈতিক দল হিসাবে আওয়ামী লীগের ভবিষ্যৎ কি?

» বাংলাদেশের বিপুল খেলাপি ঋণ আদায় হচ্ছে না যে কারণে

» ২০২১ সাল থেকে বাধ্যতামূলক হবে কারিগরি শিক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী

» ঠাকুরগাঁওয়ে ৮ হাজার ইয়াবাসহ পুলিশের এসআই গ্রেফতার

» কলাপাড়া উপজেলা সমিতি ঢাকা’র উদ্যোগে ঈদ পূণর্মিলনী অনুষ্ঠিত

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন





ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ, ১০ই আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিএনপিকে বাদ দিয়ে দেশে কোনো নির্বাচন হবে না,হতে দেওয়া হবে না-বিএনপি চেয়ারপারসন

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
Spread the love

মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম, ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন,‘আমরা ভিশন ২০৩০ দিয়েছি। আওয়ামী লীগ বলে তাদের ভিশন নাকি বিএনপি চুরি করেছে। তাদের তো কোনো ভিশন নেই। তারা চুরির চিন্তায়থাকে। আমাদের ভিশন আর তাদের ভিশন এক হতেপারে না। আমাদের চিন্তা আর তাদের চিন্তা এক নয়।’

রবিবার গুলশান-১ এর ইমানুয়েল কনভেনশন সেন্টারে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সময় শেষ। তারা জানে সুষ্ঠু ভোট হলে পালাতে হবে। কিন্ত তারা এতো বেশি লুট করেছে যে পালানোরও সুযোগ পাবে না। সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে, হাসিনার অধীনে নয়। ইনশাল্লাহ২০১৮ সালে দেশের জনগণের বছর হবে, গণতন্ত্র, উন্ণয়ন ও শান্তি বছর হবে।’
আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্যে জিয়া বলেন, ‘কেন তারা ১০ টাকা কেজি চাল খাওয়াবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। আজকে কেন ৭০ টাকা কেজি চাল খেতে হয়। এদেশের মানুষ আওয়ামী লীগ সরকারের সময় দুই বেলা পেট পুড়ে খেতে পারে না।  তারারিলিফ পযর্ন্ত দেয় না। রিলিফ চুরির অভ্যাস আওয়ামী লীগের স্বাধীনতার পর থেকে। তাদের এই অভ্যাস কোনো দিনও যাবে না। এরা চোর। এরা ভোটে চোর, গম চোর, চাল চোর আরো নানা বিধি চুরির অভ্যাস ’

হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘বিএনপিকে বাদ দিয়ে দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। হতে দেওয়া হবে না। এদেশে নির্বাচন হবে সহায়ক সরকারের অধীনে, হাসিনার অধীনে নয়। হাসিনার অধীনে নির্বাচন কয়েক বার দেখেছি। সারাপৃথিবী বলেছে ২০১৪ সালের বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হয়নি। একটা নির্বাচন কমিশন ছিল রকিব উদ্দিন, তাকে দিয়ে ঘোষণা দিয়েছে। যে এত ভাগ ভোট পড়েছে । এসব ছিল মিথ্যা কথা।’

তিনি বলেন, ‘আগামীতে এমন নির্বাচন বাংলাদেশ হবে না।  নির্বাচন হবে সেই নির্বাচন হবে সহায়ক সরকারের অধীনে, সকাল রাজনৈতিক দল অংশ গ্রহণ করবে।’

আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কথায় কথায় মুক্তিযুদ্ধের বলে। আসলে যারা যুদ্ধ করেনি মুক্তিযুদ্ধে যাদের অংশ গ্রহণ ছিল না। সীমান্ত পাড়ি দিয়েছিল তারা আজকে বড় মুক্তিযোদ্ধা হয়ে গেছে। তারা কথায়কথায় কিছূ না হলেও অমুকে রাজাকার, অমুকে এই করেছে তাকে দরুন তাকে শাস্তি দেওয়া হউক, বিচার করুণ। বিশেষ করে বিএনপিতে যারা জনপ্রিয় তাদের বিরুদ্ধে নানাভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছে। যে মুক্তিযোদ্ধের সময় সে এটা করেছে, সেটাকরেছে, রাজকারি করেছে। তাদেরকে নাম দিয়ে নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। এটা নতুন করে ষড়যন্ত্র।  এলাকায় এলাকায় খোঁজ নিচ্ছে তাদের( আওয়ামী লীগ) কোথায় জনপ্রিয়তা নেই। বিএনপির কোথায় কোথায় জনপ্রিয়তা সেই সব নেতাদেরকেমিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ জানে তাদের কত জনপ্রিয়তা। এই ১০ বছরের যে লুট করেছে। এখন তাদের চলাফেরার অবস্থা নেই, একেক জনের এমন ‍ওজন বেড়েছে এদের নির্বাচন তো দুরের কথা পালাবারও অবস্থা নেই।’

শেখ হাসিনার নির্বাচনী প্রচারনার প্রসঙ্গে টেনে খালেদা জিয়া বলেন, ‘নিজেকে সঘোষিত প্রধানমন্ত্রী একেক জায়গায় যাচ্ছেন আর নৌকার প্রচারণা চালাচ্ছেন। অন্য দিকে বিএনপির ধর্মীয় মাহফিলেও বাধা দিয়ে যাচ্ছে। এর কারণটা কি তারা চায় নাবিএনপি নির্বাচনে আসুক। বিএনপির নির্বাচনে আসলে তাদের যে কি করুণ পরিণতি হবে তারা গোপনে খবর নিয়ে তা জেনে গেছে। সেই জন্য্ তারা নানা হয়রানি করছে যাতে বিএনপি নির্বাচনে না আসে। মামলা-হামলা নানা রকম হয়রানি করেদ্রুত সাজা দেওয়া ব্যবস্থা নিচ্ছে।’

মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজীজ উলফাতের সভাপতিত্বে আরোও বক্তব্য দেন- এলডিপির চেয়ারম্যান কর্ণেল(অব.) অলি আহমদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যানব্যারিস্টার শাহজাহার ওমর, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম প্রমুখ।

ইফতার পার্টিতে অংশ নেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম খান, আবদুল্লাহ আল নেমান, সেলিমা রহমান, শামছুজ্জামান দুদু, মজিবুর রহমান সারেয়ার, শ্যামা ওবায়েদ, কামরুজ্জামান রতন,সাদেক খান প্রমুখ।

 

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Click Here



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



About Us | Privacy Policy | Terms & Conditions | Contact Us | Sitemap
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
সহ-সম্পাদক : নুরুজ্জামান কাফি
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited