দুর্ভোগের আরেক নাম নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট আফিস

দুর্ভোগের আরেক নাম নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট আফিস। এ কার্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের সীমাহীন অনিয়ম, দুর্নীতি আর অবহেলার কারণে দূর দূরান্ত থেকে পাসপোর্ট করতে আসা সাধারণ মানুষ চরম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। এমন অভিযোগ পাসপোর্ট করতে আসা অসংখ্য মানুষের।

 

জেলার বন্দর থানাধিন দেউলি এলাকার বাসিন্দা রইস উদ্দন বলেন, আমার খালা বাতুন নেছা ওমরা হজ পালন করতে সৌদি আরব যাবেন। প্রায় তিন মাস আগে তার পাসপোর্ট করতে দিয়েছিলাম। ২৮ দিনে পাসপোর্ট দেয়ার কথা থাকলেও প্রায় তিন মাস অতিবাহিত হলেও কর্তৃপক্ষ তা দিতে পারছে না। এর কারণ জানতে চাইলে অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারি থেকে শুরু করে দালালদেরও একই বক্তব্য ‘বই সংকট’।

 

জেলার রুপগঞ্জ থেকে আসা দিদারুল আলম নামের এক ব্যক্তিও প্রায় একই অভিযোগ করে বলেন, প্রায় দুই মাস পার হয়ে গেলেও কর্তৃপক্ষ পাসপোর্টের বই হাতে দিতে পারছে না। আজ না কাল বলে প্রতিনিয়ত হয়রানি করছে। বিলম্বের কারণ জানতে চাইলে বরাবরই বই সংকটের অযুহাত দেখাচ্ছেন।

 

গতকাল মঙ্গলবার (১৫ মে) ও বুধবার (১৬ মে) সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়িতে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট আফিসে সরেজমিনে গিয়ে এমন অসংখ্য অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

এছাড়াও পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক নুরুল হুদার বিরুদ্ধে মানুষের পাওয়া গেছে নানা অনিয়ম ও দুর্র্নীতির অভিযোগ।

 

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে পাসপোর্ট অফিসের একটি সুত্র বলছে, বিগত প্রায় ৭ মাস আগে এ কার্যালয়ের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। মূলত তিনি আসার পর থেকেই পাসপোর্ট করতে আসা সাধারণ মানুষের ভোগান্তি বহুগুণ বেড়ে গিয়েছে। টাকা ছাড়া কিছুই বোঝেন না তিনি। যে যত বেশি টাকা দেয় তার বই তত তাড়াতাড়ি পাশ হয়। আর যে যত কম দেয় তার বই তত দেরিতে পাশ হয়।

 

তবে তিনি এসব অপকর্ম নিজ হাতে না করে তার অধিনস্থ উপ-সহাকারি পরিচালক মিজানুর রহমান ও সুপার সিরাজ পাটোয়ারীরসহ নিন্ম শ্রেনীর কর্মচারীদের মাধ্যমে করে যাচ্ছেন। এভাবে দিন শেষে বাড়ি ফেরার পথে পকেট ভারি করে নিয়ে যাচ্ছেন। তবে এ টাকা তিনি সাথে বহন না করে রিফাত নামের একজনকে দিয়ে অফিস থেকে বের হবার আগেই সরিয়ে ফেলেন।

 

এছাড়া পাসপোর্ট করতে আসা সাধারণ মানুষের সাথে খারাপ আচরনের অভিযোগ রয়েছে এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

 

এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে সহকারি পরিচালক নূরুল হুদার মুখোমুখি হলে গ্রাহকদের বই পেতে বিলম্বের কথা স্বীকার করে বলেন, হেড অফিস থেকেই এ সমস্যা। বই ছাপানোর তিনটি মেশিনের মধ্যে দু’টিই নষ্ট। আগামী জুলাই মাসের আগে এ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না।

 

তবে অন্যান্য অভিযোগগুলো তিনি পুরোপুরি অস্বীকার করে বলেন, আমি কখনও কারো সাথে খারাপ আচরন করেছি এমন প্রমান কেউ দিতে পারবে না। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখানে কোনো ধরনের অনিয়ম দুর্নীতি করা হয় না। দিন শেষে রিফাত নামের এক ব্যক্তিকে দিয়ে টাকা পাচারের বিষয়টিও সরাসরি অস্বীকার করেন।সূত্র-নারায়ণগঞ্জ টুডে

নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

সর্বশেষ আপডেট



» চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ দাবি কাফনের কাপড় পরে রাস্তায় শুয়ে অবস্থান

» নভেম্বর থেকে ফেসবুক, ইউটিউব ও গুগল নিয়ন্ত্রণ করবে সরকার: মোস্তাফা জব্বার

» কক্সবাজারে ৪৩ জলদস্যু অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ

» চট্টগ্রামে মায়ের পাশে মাটির বিছানায় আইয়ুব বাচ্চু

» সেই জেডিসি পরীক্ষার্থী তানিয়া পেল নতুন দোকান-ঘর

» কুষ্টিয়ায় আ’লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষে আহত ২৫

» রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এরশাদের ১৮ দফা

» মেয়েটি অষ্টম শ্রেনীতে পড়তো, আর ছেলেটি দশম শ্রেনীতে, অতপর…

» অন্ধ মায়ের ভিক্ষার সঙ্গী আগামী ১ নভেম্বর জেডিসি পরিক্ষার্থী

» প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে নজর দেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ৬ই কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দুর্ভোগের আরেক নাম নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট আফিস

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

দুর্ভোগের আরেক নাম নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট আফিস। এ কার্যালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের সীমাহীন অনিয়ম, দুর্নীতি আর অবহেলার কারণে দূর দূরান্ত থেকে পাসপোর্ট করতে আসা সাধারণ মানুষ চরম হয়রানির শিকার হচ্ছেন। এমন অভিযোগ পাসপোর্ট করতে আসা অসংখ্য মানুষের।

 

জেলার বন্দর থানাধিন দেউলি এলাকার বাসিন্দা রইস উদ্দন বলেন, আমার খালা বাতুন নেছা ওমরা হজ পালন করতে সৌদি আরব যাবেন। প্রায় তিন মাস আগে তার পাসপোর্ট করতে দিয়েছিলাম। ২৮ দিনে পাসপোর্ট দেয়ার কথা থাকলেও প্রায় তিন মাস অতিবাহিত হলেও কর্তৃপক্ষ তা দিতে পারছে না। এর কারণ জানতে চাইলে অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারি থেকে শুরু করে দালালদেরও একই বক্তব্য ‘বই সংকট’।

 

জেলার রুপগঞ্জ থেকে আসা দিদারুল আলম নামের এক ব্যক্তিও প্রায় একই অভিযোগ করে বলেন, প্রায় দুই মাস পার হয়ে গেলেও কর্তৃপক্ষ পাসপোর্টের বই হাতে দিতে পারছে না। আজ না কাল বলে প্রতিনিয়ত হয়রানি করছে। বিলম্বের কারণ জানতে চাইলে বরাবরই বই সংকটের অযুহাত দেখাচ্ছেন।

 

গতকাল মঙ্গলবার (১৫ মে) ও বুধবার (১৬ মে) সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়িতে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ আঞ্চলিক পাসপোর্ট আফিসে সরেজমিনে গিয়ে এমন অসংখ্য অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

এছাড়াও পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক নুরুল হুদার বিরুদ্ধে মানুষের পাওয়া গেছে নানা অনিয়ম ও দুর্র্নীতির অভিযোগ।

 

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে পাসপোর্ট অফিসের একটি সুত্র বলছে, বিগত প্রায় ৭ মাস আগে এ কার্যালয়ের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। মূলত তিনি আসার পর থেকেই পাসপোর্ট করতে আসা সাধারণ মানুষের ভোগান্তি বহুগুণ বেড়ে গিয়েছে। টাকা ছাড়া কিছুই বোঝেন না তিনি। যে যত বেশি টাকা দেয় তার বই তত তাড়াতাড়ি পাশ হয়। আর যে যত কম দেয় তার বই তত দেরিতে পাশ হয়।

 

তবে তিনি এসব অপকর্ম নিজ হাতে না করে তার অধিনস্থ উপ-সহাকারি পরিচালক মিজানুর রহমান ও সুপার সিরাজ পাটোয়ারীরসহ নিন্ম শ্রেনীর কর্মচারীদের মাধ্যমে করে যাচ্ছেন। এভাবে দিন শেষে বাড়ি ফেরার পথে পকেট ভারি করে নিয়ে যাচ্ছেন। তবে এ টাকা তিনি সাথে বহন না করে রিফাত নামের একজনকে দিয়ে অফিস থেকে বের হবার আগেই সরিয়ে ফেলেন।

 

এছাড়া পাসপোর্ট করতে আসা সাধারণ মানুষের সাথে খারাপ আচরনের অভিযোগ রয়েছে এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।

 

এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে সহকারি পরিচালক নূরুল হুদার মুখোমুখি হলে গ্রাহকদের বই পেতে বিলম্বের কথা স্বীকার করে বলেন, হেড অফিস থেকেই এ সমস্যা। বই ছাপানোর তিনটি মেশিনের মধ্যে দু’টিই নষ্ট। আগামী জুলাই মাসের আগে এ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না।

 

তবে অন্যান্য অভিযোগগুলো তিনি পুরোপুরি অস্বীকার করে বলেন, আমি কখনও কারো সাথে খারাপ আচরন করেছি এমন প্রমান কেউ দিতে পারবে না। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখানে কোনো ধরনের অনিয়ম দুর্নীতি করা হয় না। দিন শেষে রিফাত নামের এক ব্যক্তিকে দিয়ে টাকা পাচারের বিষয়টিও সরাসরি অস্বীকার করেন।সূত্র-নারায়ণগঞ্জ টুডে

নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited