দশমিনায় নিত্য পয়োজনীয় দ্রব্যের উর্দ্ধগতিতে দিশেহারা সাধারন মানুষ

 সঞ্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা প্রতিনিধি: পবিত্র মাহে রমজান মাসের শুরুতেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যে উর্দ্ধগতি হওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে সাধারন মানুষ পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে রমজানের শুরুতেই হু হু করে বেড়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজার দর।
উপজেলাসহ গ্রামের বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পিয়াজ, রসুন, বেগুন, সবজি, মাছ, মাংস, চিনি ও সোয়াবিন সহ প্রায় সকল পন্যের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ বলছেন সরকারের বেধে দেয়া মূল্য তালিকার বাইরে গিয়ে চড়া দামে জিনিসপত্র বিক্রি হচ্ছে। তবে বাজার নিয়ন্ত্রনে স্থানীয় প্রশাসনের নজরদারি বাড়ানো হলে ক্রেতারা ন্যায্য সুবিধা পাবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। বুধবার গছানী, দশমিনাসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যের লাগাম ছাড়া বৃদ্ধিতে হতাশ ক্রেতারা। মূলত প্রতি বছর কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা পন্য মজুদ করে অধিক মুনাফার আশায় দ্রব্য মূল্যের দাম বাড়ায়।
এ সব অসাধু ব্যবসায়ীরা সরকারের বেধে দেওয়া মূল্যের কোন তোয়াক্কা করে না। এবারও পবিত্র রমজানের শুরুতেই এসব অসাধু ব্যবসায়ীরা নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য, সবজি, মাছ, মাংস ও চিড়া মুড়ির দাম বাড়িয়েছে। রসুন প্রতি কেজি ৫০থেকে ৭০ টাকা, পিয়াজ ৪২ থেকে ৫৫ টাকা, শসা ৪৫ থেকে ৭০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৭০ থেকে ৯০ টাকা, বেগুন ৭০ থেকে ১০০ টাকা, কাকরোল ৯০ টাকা, চিনি ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, মুড়ি ৮০ থেকে ১০০ টাকা, বয়লার মুরগী ১৪০ থেকে ১৭০ টাকা সহ প্রতিটি নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মুল্য বৃদ্ধি পেয়েছে । সরকারের বেধে দেয়া ৪৪০ টাকার গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে এখন ৪৮০- ৫০০ টাকা দরে। এ ছাড়া দাম বেড়েছে মাছের বাজারেও। আল-আমিন নামের এক ক্রেতা জানান, রমজানের শুরুতেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বাড়ায় আমরা সাধারন মানুষ বিপাকে আছি। শুরুতেই দ্রব্য মূল্যের বুদ্ধি হলে অবশিষ্ট রোজাগুলোতে তো এর চেয়ে আরো বৃদ্ধি পাবে তখন আমাদের (সাধারণ) মানুষের কি হবে। এনজিও কর্মী আসাদ রহমান বলেন, প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেশী, আমরা যারা সীমিত বেতনে চাকরি করি তাদের মাস চালানো কষ্ট হবে। সবজি ব্যবসায়ী বহরমপুরের সুলতান বলেন, উপজেলার বাহির থেকে সবজি আনতে হলে গাড়ী ভাড়া সহ অনেক খরচ হয় বিধায় সবজির দাম বৃদ্ধি। গরুর মাংস ব্যবসায়ী লিটন বলেন, বাজারে গরুর যে চাহিদা সে অনুযায়ী গরু পাওয়া যাচ্ছে না ।
 এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুভ্রা দাস বলেন, শিঘ্রই উপজেলার বাজার গুলোতে মনিটরিং করা হবে।
নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

সর্বশেষ আপডেট



» ফতুল্লায় যাত্রীবাহী বাসে তল্লাশীর সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে পুলিশ সদস্য আহত

» রাজাপুরে বালুর জাহাজের ধাক্কায় ব্রীজ ভাঙ্গার কারনে দুজন আটক

» যশোরের বেনাপোলে ইয়াবা ও ফেনসিডিল সহ নারী ব্যবসায়ী আটক

» মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে মোবাইল বিক্রয় করার অপরাধে X-টেলিকোম ও দি গ্রীণ ভিউকে জরিমানা

» মিয়ানমারের ৫ জেনারেলের ওপর অস্ট্রেলিয়ার নিষেধাজ্ঞা

» এবার আমির খানের ছেলে ব্রিটিশ মডেল!

» ব্যারিস্টার মইনুলকে নিয়ে যে রায় দিলো আদালত

» সাপাহারে জাতীয় নিরাপদ সড়ক উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

» কিশোর-কিশোরী সম্মেলনে খেপুপাড়া সরকা‌রি ম‌ডেল মাধ্য‌মিক বিদ্যাল‌য় এর ০৪ মেধাবী শিক্ষার্থী

» ‘‘আইন মেনে চলবো-নিরাপদ সড়ক গড়বো’’ স্লোগানে ঝিনাইদহে সড়ক নিরাপদ দিবস উপলক্ষে র্যালী

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
আজ মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ, ৮ই কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

দশমিনায় নিত্য পয়োজনীয় দ্রব্যের উর্দ্ধগতিতে দিশেহারা সাধারন মানুষ

ইউটিউবে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:
 সঞ্জয় ব্যানার্জী, দশমিনা প্রতিনিধি: পবিত্র মাহে রমজান মাসের শুরুতেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যে উর্দ্ধগতি হওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে সাধারন মানুষ পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে রমজানের শুরুতেই হু হু করে বেড়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজার দর।
উপজেলাসহ গ্রামের বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় পিয়াজ, রসুন, বেগুন, সবজি, মাছ, মাংস, চিনি ও সোয়াবিন সহ প্রায় সকল পন্যের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ বলছেন সরকারের বেধে দেয়া মূল্য তালিকার বাইরে গিয়ে চড়া দামে জিনিসপত্র বিক্রি হচ্ছে। তবে বাজার নিয়ন্ত্রনে স্থানীয় প্রশাসনের নজরদারি বাড়ানো হলে ক্রেতারা ন্যায্য সুবিধা পাবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। বুধবার গছানী, দশমিনাসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যের লাগাম ছাড়া বৃদ্ধিতে হতাশ ক্রেতারা। মূলত প্রতি বছর কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা পন্য মজুদ করে অধিক মুনাফার আশায় দ্রব্য মূল্যের দাম বাড়ায়।
এ সব অসাধু ব্যবসায়ীরা সরকারের বেধে দেওয়া মূল্যের কোন তোয়াক্কা করে না। এবারও পবিত্র রমজানের শুরুতেই এসব অসাধু ব্যবসায়ীরা নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য, সবজি, মাছ, মাংস ও চিড়া মুড়ির দাম বাড়িয়েছে। রসুন প্রতি কেজি ৫০থেকে ৭০ টাকা, পিয়াজ ৪২ থেকে ৫৫ টাকা, শসা ৪৫ থেকে ৭০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৭০ থেকে ৯০ টাকা, বেগুন ৭০ থেকে ১০০ টাকা, কাকরোল ৯০ টাকা, চিনি ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, মুড়ি ৮০ থেকে ১০০ টাকা, বয়লার মুরগী ১৪০ থেকে ১৭০ টাকা সহ প্রতিটি নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মুল্য বৃদ্ধি পেয়েছে । সরকারের বেধে দেয়া ৪৪০ টাকার গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে এখন ৪৮০- ৫০০ টাকা দরে। এ ছাড়া দাম বেড়েছে মাছের বাজারেও। আল-আমিন নামের এক ক্রেতা জানান, রমজানের শুরুতেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বাড়ায় আমরা সাধারন মানুষ বিপাকে আছি। শুরুতেই দ্রব্য মূল্যের বুদ্ধি হলে অবশিষ্ট রোজাগুলোতে তো এর চেয়ে আরো বৃদ্ধি পাবে তখন আমাদের (সাধারণ) মানুষের কি হবে। এনজিও কর্মী আসাদ রহমান বলেন, প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেশী, আমরা যারা সীমিত বেতনে চাকরি করি তাদের মাস চালানো কষ্ট হবে। সবজি ব্যবসায়ী বহরমপুরের সুলতান বলেন, উপজেলার বাহির থেকে সবজি আনতে হলে গাড়ী ভাড়া সহ অনেক খরচ হয় বিধায় সবজির দাম বৃদ্ধি। গরুর মাংস ব্যবসায়ী লিটন বলেন, বাজারে গরুর যে চাহিদা সে অনুযায়ী গরু পাওয়া যাচ্ছে না ।
 এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুভ্রা দাস বলেন, শিঘ্রই উপজেলার বাজার গুলোতে মনিটরিং করা হবে।
নিউজটি শেয়ার করুন:
image_print

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited