রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বৈঠক শুধু শুনলেন, কিছু বললেন না মিয়ানমার দূত

rasel 2017

মিয়ানমার সেনা বাহিনীর ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ড ও অগ্নি সংযোগের ঘটনায় বাংলাদেশে প্রবেশ করা লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থীর দায় নেয়ার ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি বাংলাদেশ সফররত দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন। রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান নিয়ে গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বিশেষ দূত শুধু বাংলাদেশের কথা শুনেই গেলেন, কিন্তু কোনো প্রতিশ্রুতিও দিলেন না বা দায় নেয়ার কথাও বললেন না। রাষ্ট্রীয় অতিথিভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র আরো জানায়, মিয়ানমারে সাম্প্রতিক মুসলিম নিধনযজ্ঞে এ পর্যন্ত যে ৬৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, তাদের ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয় মিয়ানমার দূতের কাছে। জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে বাংলাদেশে প্রবেশ করা শরণার্থীর সংখ্যা ৬৫ হাজার মানতেও অস্বীকৃতি জানায় মিয়ানমার। এছাড়া রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারের বিষয়টিও এড়িয়ে যান বিশেষ দূত। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রচারিত রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টিও মানতে চাননি তিনি। বাংলাদেশ সফররত মিয়ানমারের বিশেষ দূত কিয়াও থিন এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী ও পররাষ্ট্র সচিব শহীদুলের হকের মধ্যে কয়েক ঘণ্টা রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে বৈঠকে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারকে সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস পুনর্ব্যক্ত করেছে বাংলাদেশ। পাশাপাশি রাখাইন রাজ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আহ্বান জানানো হয়। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়া শুরু করতে মিয়ানমার দূতের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এছাড়া নতুন করে আর কোনো রোহিঙ্গা যেন বাংলাদেশে না আসে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়।
উল্লেখ্য, মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিষয়ে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে আলোচনার লক্ষ্যে অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকায় আছেন। গতকাল সন্ধ্যায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময়ও রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে বিষয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।
কূটনৈতিক সূত্রের মতে, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে এই মুহূর্তে মিয়ানমার আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে বাংলাদেশের বিশেষ দূত পাঠিয়েছে। কারণ, আগামী ১৯ জানুয়ারি মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা ইস্যুতে ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক আছে এবং সেখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীরও যাওয়ার কথা রয়েছে। এ কারণেই ওই বৈঠকের আগেই বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করছে মিয়ানমার। এছাড়া মিয়ানমার সরকার আন্তর্জাতিক মহলকে দেখাতে চায়, তারা বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তারা দেখাতে চায়, তাদের উদ্দেশ্য ভালো এবং তারা রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান চায়।-মানবকণ্ঠ  

আপনার মতামত লিখুন

সর্বশেষ আপডেট



» ভারতীয় টিভি চ্যানেল জি বাংলা, স্টার জলসা, স্টার প্লাস বন্ধের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

» নারায়ণগঞ্জে সাত খুন : ফাঁসির ১২ আসামি না.গঞ্জ, প্রধান আসামি নূর হোসেন ও র‌্যাবের সাবেক তিনকর্মকর্তাসহ পাঁচজন কাশিমপুর কারাগারে

» ছাত্রের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের দায়ে শিক্ষিকার কারাদণ্ড! ভিডিও

» পুলিশ পদক: বিপিএম-পিপিএম পুরস্কার পাচ্ছেন যারা

» র্যা ব যেভাবে তৈরি হয়েছে, সেভাবেই চলবে-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল

» কুয়াকাটার সৈকতে কনসার্টে গান গেয়ে দর্শক মাতালেন জনপ্রিয় ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চু

» কলাপাড়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় সকরকরি কর্মচারিসহ তিন জন আহত

» মৌলভীবাজারে বিজয় মেলায় ব্যবসায়ীকে কোপানোর ৮ম দিনে মামলা নিয়েছে থানা

» কলাপাড়ায় স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় প্রচন্ড মারধর

» পুলিশ লাইনস্ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় একটি কক্ষে একাধিক ক্লাস

» মাদারীপুরে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গ্রেফতার

» বান্দরবানে ৩ সশস্ত্র সস্ত্রাসী গ্রেফতার

» দু:স্থ ও শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের মানবিক ও নৈতিক দায়িত্ব

» জাবিতে আড়ম্বরপূর্ন্য ভাবে জাবির চারুকলার নবীন বরন

» ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ:উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত মেট্রো বেকারস নতুন আঙ্গিকে, বৃহৎ পরিসরে পণ্য উৎপাদন

» রাজধানীর মিরপুরে শীতার্ত ও দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

» আর কত বয়স হলে বয়স্ক ভাতার কার্ড পাব?

» নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মামলার রায়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সরকারের জিরো টলারেন্স নীতি প্রমাণিত হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

» সাংবাদিক নাজমুল ও অভিনেতা মন্টুর জামিন ও রিমান্ডের আবেদন নামঞ্জুর

» ডিজিটাল দেশ গড়ার প্রধান কারিগর হচ্ছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা: শিল্পমন্ত্রী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
নির্বাহী সম্পাদক : মো: মাসুম খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সোহেল আহমেদ
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০২ ৮৮৭১২০২, ৮৭১৫৭১৯,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন: + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বৈঠক শুধু শুনলেন, কিছু বললেন না মিয়ানমার দূত

rasel 2017

মিয়ানমার সেনা বাহিনীর ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ড ও অগ্নি সংযোগের ঘটনায় বাংলাদেশে প্রবেশ করা লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থীর দায় নেয়ার ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি বাংলাদেশ সফররত দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন। রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান নিয়ে গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বিশেষ দূত শুধু বাংলাদেশের কথা শুনেই গেলেন, কিন্তু কোনো প্রতিশ্রুতিও দিলেন না বা দায় নেয়ার কথাও বললেন না। রাষ্ট্রীয় অতিথিভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র আরো জানায়, মিয়ানমারে সাম্প্রতিক মুসলিম নিধনযজ্ঞে এ পর্যন্ত যে ৬৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, তাদের ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয় মিয়ানমার দূতের কাছে। জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে বাংলাদেশে প্রবেশ করা শরণার্থীর সংখ্যা ৬৫ হাজার মানতেও অস্বীকৃতি জানায় মিয়ানমার। এছাড়া রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারের বিষয়টিও এড়িয়ে যান বিশেষ দূত। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রচারিত রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টিও মানতে চাননি তিনি। বাংলাদেশ সফররত মিয়ানমারের বিশেষ দূত কিয়াও থিন এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী ও পররাষ্ট্র সচিব শহীদুলের হকের মধ্যে কয়েক ঘণ্টা রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে বৈঠকে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারকে সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস পুনর্ব্যক্ত করেছে বাংলাদেশ। পাশাপাশি রাখাইন রাজ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আহ্বান জানানো হয়। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়া শুরু করতে মিয়ানমার দূতের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এছাড়া নতুন করে আর কোনো রোহিঙ্গা যেন বাংলাদেশে না আসে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়।
উল্লেখ্য, মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিষয়ে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে আলোচনার লক্ষ্যে অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকায় আছেন। গতকাল সন্ধ্যায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময়ও রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে বিষয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।
কূটনৈতিক সূত্রের মতে, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে এই মুহূর্তে মিয়ানমার আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে বাংলাদেশের বিশেষ দূত পাঠিয়েছে। কারণ, আগামী ১৯ জানুয়ারি মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা ইস্যুতে ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক আছে এবং সেখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীরও যাওয়ার কথা রয়েছে। এ কারণেই ওই বৈঠকের আগেই বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করছে মিয়ানমার। এছাড়া মিয়ানমার সরকার আন্তর্জাতিক মহলকে দেখাতে চায়, তারা বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তারা দেখাতে চায়, তাদের উদ্দেশ্য ভালো এবং তারা রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান চায়।-মানবকণ্ঠ  

আপনার মতামত লিখুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
নির্বাহী সম্পাদক : মো: মাসুম খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সোহেল আহমেদ
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০২ ৮৮৭১২০২, ৮৭১৫৭১৯,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন: + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited