রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বৈঠক শুধু শুনলেন, কিছু বললেন না মিয়ানমার দূত

rasel 2017

মিয়ানমার সেনা বাহিনীর ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ড ও অগ্নি সংযোগের ঘটনায় বাংলাদেশে প্রবেশ করা লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থীর দায় নেয়ার ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি বাংলাদেশ সফররত দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন। রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান নিয়ে গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বিশেষ দূত শুধু বাংলাদেশের কথা শুনেই গেলেন, কিন্তু কোনো প্রতিশ্রুতিও দিলেন না বা দায় নেয়ার কথাও বললেন না। রাষ্ট্রীয় অতিথিভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র আরো জানায়, মিয়ানমারে সাম্প্রতিক মুসলিম নিধনযজ্ঞে এ পর্যন্ত যে ৬৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, তাদের ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয় মিয়ানমার দূতের কাছে। জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে বাংলাদেশে প্রবেশ করা শরণার্থীর সংখ্যা ৬৫ হাজার মানতেও অস্বীকৃতি জানায় মিয়ানমার। এছাড়া রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারের বিষয়টিও এড়িয়ে যান বিশেষ দূত। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রচারিত রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টিও মানতে চাননি তিনি। বাংলাদেশ সফররত মিয়ানমারের বিশেষ দূত কিয়াও থিন এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী ও পররাষ্ট্র সচিব শহীদুলের হকের মধ্যে কয়েক ঘণ্টা রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে বৈঠকে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারকে সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস পুনর্ব্যক্ত করেছে বাংলাদেশ। পাশাপাশি রাখাইন রাজ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আহ্বান জানানো হয়। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়া শুরু করতে মিয়ানমার দূতের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এছাড়া নতুন করে আর কোনো রোহিঙ্গা যেন বাংলাদেশে না আসে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়।
উল্লেখ্য, মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিষয়ে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে আলোচনার লক্ষ্যে অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকায় আছেন। গতকাল সন্ধ্যায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময়ও রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে বিষয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।
কূটনৈতিক সূত্রের মতে, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে এই মুহূর্তে মিয়ানমার আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে বাংলাদেশের বিশেষ দূত পাঠিয়েছে। কারণ, আগামী ১৯ জানুয়ারি মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা ইস্যুতে ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক আছে এবং সেখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীরও যাওয়ার কথা রয়েছে। এ কারণেই ওই বৈঠকের আগেই বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করছে মিয়ানমার। এছাড়া মিয়ানমার সরকার আন্তর্জাতিক মহলকে দেখাতে চায়, তারা বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তারা দেখাতে চায়, তাদের উদ্দেশ্য ভালো এবং তারা রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান চায়।-মানবকণ্ঠ  

আপনার মতামত লিখুন

সর্বশেষ আপডেট



» ফতুল্লা মডেল থানা শুধুমাত্র নামেই মডেল!

» মোল্লা আজাদ মেমোরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ তবিবর রহমান এর বিদায় অনুষ্ঠান

» কলাপাড়ায় তিনদিন ব্যাপী সার্বজনীন মিলন মেলা

» গাজীপুরে জাল নোটসহ জাল টাকা ব্যবসায়ী চক্রের ২ সদস্য আটক

» মৌলভীবাজারে প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী স্মরণে ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

» মৌলভীবাজারে অগ্রনী ব্যাংক লিঃ এর আঞ্চলিক কার্যালয় ও আঞ্চলিক ট্রেনিং ইন্সটিটিউট ভবন উদ্ভোধন

» কলাপাড়ায় বন-বিভাগের বোডম্যানের উপর হামলা

» আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০১৭ উপলক্ষে শহীদ মিনারকে ঘিরে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা

» ঝালকাঠিতে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সহ গ্রেফতার-৫

» ওয়ার্ল্ড লিডারশিপ পুরস্কার পাচ্ছেন হুইপ ইকবাল

» প্রধান মন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীর বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও ষডযন্ত্র মূলক মামলা প্রত্যাহার প্রতিবাদে মানববন্ধন

» বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন এসোসিয়েশন (বাংলাদেশ গভ: রেজিঃ নং ১০২৮/৯৮) নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন

» নাম বদলের সুযোগ নাই, কুমিল্লা নামে’ই বিভাগ চাই

» মোরেলগঞ্জে দক্ষিণ হোগলাবুনিয়া সুরাতুন্নেছা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকের অভাবে বন্ধের উপক্রম

» কুয়াকাটায় প্রোভিটা গ্রুপের বার্ষিক পরিবেশক সম্মেলন

» কুয়াকাটায় সাংবাদিকদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু

» দেশ ও জাতির স্বার্থে জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় যেতে হবে : এরশাদ

» কুয়াকাটার ট্রলারসহ নিখোঁজ ১০ জেলে মায়ানমারে

» মৎস্যবন্দর মহিপুরে ৩২০পিস ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক

» চলন্ত গাড়িতে শ্লীলতাহানির শিকার মালয়লাম অভিনেত্রী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সোহেল আহমেদ
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০২ ৮৮৭১২০২, ৮৭১৫৭১৯,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন: + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে বৈঠক শুধু শুনলেন, কিছু বললেন না মিয়ানমার দূত

rasel 2017

মিয়ানমার সেনা বাহিনীর ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ড ও অগ্নি সংযোগের ঘটনায় বাংলাদেশে প্রবেশ করা লক্ষাধিক রোহিঙ্গা শরণার্থীর দায় নেয়ার ব্যাপারে কোনো কথা বলেননি বাংলাদেশ সফররত দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন। রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান নিয়ে গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বিশেষ দূত শুধু বাংলাদেশের কথা শুনেই গেলেন, কিন্তু কোনো প্রতিশ্রুতিও দিলেন না বা দায় নেয়ার কথাও বললেন না। রাষ্ট্রীয় অতিথিভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত বৈঠক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
সূত্র আরো জানায়, মিয়ানমারে সাম্প্রতিক মুসলিম নিধনযজ্ঞে এ পর্যন্ত যে ৬৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, তাদের ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয় মিয়ানমার দূতের কাছে। জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে বাংলাদেশে প্রবেশ করা শরণার্থীর সংখ্যা ৬৫ হাজার মানতেও অস্বীকৃতি জানায় মিয়ানমার। এছাড়া রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারের বিষয়টিও এড়িয়ে যান বিশেষ দূত। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রচারিত রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টিও মানতে চাননি তিনি। বাংলাদেশ সফররত মিয়ানমারের বিশেষ দূত কিয়াও থিন এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী ও পররাষ্ট্র সচিব শহীদুলের হকের মধ্যে কয়েক ঘণ্টা রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে বৈঠকে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারকে সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস পুনর্ব্যক্ত করেছে বাংলাদেশ। পাশাপাশি রাখাইন রাজ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আহ্বান জানানো হয়। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়া শুরু করতে মিয়ানমার দূতের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এছাড়া নতুন করে আর কোনো রোহিঙ্গা যেন বাংলাদেশে না আসে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়।
উল্লেখ্য, মিয়ানমার সেনা বাহিনীর অত্যাচারে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বিষয়ে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে আলোচনার লক্ষ্যে অং সান সুচির বিশেষ দূত ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিয়াও থিন মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকায় আছেন। গতকাল সন্ধ্যায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এ সময়ও রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে বিষয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়।
কূটনৈতিক সূত্রের মতে, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে এই মুহূর্তে মিয়ানমার আন্তর্জাতিক চাপে পড়ে বাংলাদেশের বিশেষ দূত পাঠিয়েছে। কারণ, আগামী ১৯ জানুয়ারি মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা ইস্যুতে ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক আছে এবং সেখানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলীরও যাওয়ার কথা রয়েছে। এ কারণেই ওই বৈঠকের আগেই বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করছে মিয়ানমার। এছাড়া মিয়ানমার সরকার আন্তর্জাতিক মহলকে দেখাতে চায়, তারা বাংলাদেশের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তারা দেখাতে চায়, তাদের উদ্দেশ্য ভালো এবং তারা রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান চায়।-মানবকণ্ঠ  

আপনার মতামত লিখুন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সোহেল আহমেদ
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০২ ৮৮৭১২০২, ৮৭১৫৭১৯,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন: + ৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited