কুয়াকাটায় চোর সন্দেহে দুই জেলে আটক

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: কুয়াকাটায় চোর সন্দেহে দুই জেলেকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা। রবিবার রাতে কুয়াকাটা পৌর সভার ০৪নং ওয়ার্ডের খুরমাতলা এলাকা থেকে সন্দেহজনক অবস্থায় এদেরকে আটক করা হয়। এসময় তিনজনকে আটক করলেও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সাগর মোল্লা মামুন নামের একজনকে অভিভাবকের নিকট তুলে দিয়েছেন।

 

প্রতক্ষ্যদর্শী রুহুল আমিন মোল্লা জানান, রবিবার রাত সোয়া দশটার দিকে খুরমাতলা বাস্তহারা রাস্তায় কুয়াকাটা পৌর এলাকার হোসেনপাড়া গ্রামের মোঃ সরোয়ার (৩৫), লতাচাপলী ইউনিয়নের নাউরীপাড়া গ্রামের নজরুল ইসলাম (৩৪) ও খুরমাতলা বাস্তহারা গ্রামের হোসেন ঘরামীর ছেলে মামুন (২৫) সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করছিল। এ সময় এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে ৩জনকে আটক করে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সাগর মোল্লার বাড়িতে নিয়ে যায়। সাগর মোল্লা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কথায় অসংগতি দেখে তারও সন্দেহ হয়। পরে মামুনকে তার বাবার হাতে তুলে দেন এবং অপর দুইজনকে মহিপুর থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন। এদিকে মামুন কাউন্সির সাগর মোল্লার অনুসারী বিধায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে এমন অভিযোগ করেছেন ওই এলাকার লোকজন। স্থানীয় বাসিন্দা মোসা. বকুল বেগম বলেন, মামুনের বিরুদ্ধে চুরি ও মাদক সেবনসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। তারপরও মামনুকে কেন ছেড়ে দেওয়া হলো।

 

কাউন্সিলর সাগর মোল্লা বলেন, রাতে স্থানীয়রা চোর সন্দেহে ওদেরকে ধরে আমার বাসায় নিয়ে আসেন। আমি প্রাথমিকভাবে মামুনকে নির্দোষ মনে হওয়ায় তার বাবার হাতে তুলে দিয়েছি। আর নজরুল ও সরোয়ারের কথায় মিল না থাকায় পুলিশে দিয়েছি। এ প্রসঙ্গে মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, স্থানীয়রা চোর সন্দেহে দুইজনকে আটক করে থানায় খবর দেয়। আমি পুলিশ পাঠিয়ে রাতেই থানায় নিয়ে আসি। সোমবার বিকালে আদালতে প্রেরণ করা হবে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য যে, গত পনের দিন ধরে কুয়াকাটা পৌরসভা, লতাচাপলী, মহিপুর, ডালবুগঞ্জ ও ধুলাসার ইউনিয়নে চোর-ডাকাত আতংক বিরাজ করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» কলাপাড়ার ধানখালী ডিগ্রী কলেজ বাজারের রাস্তাটির বেহাল দশা”দেখার কেউ নাই !

» ফতুল্লায় চোরদের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাসিন্দারা

» গোপালগঞ্জে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গোপালগঞ্জে দিনব্যাপী ফ্রি-মেডিকেল ক্যাম্প

» গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে জমে উঠেছে কোরবানীর পশুরহাট

» ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ৮ মাস ধরে ব্যবসায়ী নিখোঁজ

» বাগেরহাটে-শরণখোলা আঞ্চলিক মহাসড়কে দূর্ঘটনা নিহত-১, আহত ৫

» বাগেরহাটে ৪০ মন জমজ ভাই সাড়ে ৬ লাখ টাকায় বিক্রি!

» উদ্বোধনের অপেক্ষায় দশমিনা ফায়ার সাব-ষ্টেশন

» নওগাঁয় জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মান কাজের উদ্ধোধন

» কুয়াকাটা রাখাইন মার্কেটে জলাবদ্ধতা॥ দুর্ভোগে ব্যবসায়ী ও পর্যটকরা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন




ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

কুয়াকাটায় চোর সন্দেহে দুই জেলে আটক

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: কুয়াকাটায় চোর সন্দেহে দুই জেলেকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা। রবিবার রাতে কুয়াকাটা পৌর সভার ০৪নং ওয়ার্ডের খুরমাতলা এলাকা থেকে সন্দেহজনক অবস্থায় এদেরকে আটক করা হয়। এসময় তিনজনকে আটক করলেও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সাগর মোল্লা মামুন নামের একজনকে অভিভাবকের নিকট তুলে দিয়েছেন।

 

প্রতক্ষ্যদর্শী রুহুল আমিন মোল্লা জানান, রবিবার রাত সোয়া দশটার দিকে খুরমাতলা বাস্তহারা রাস্তায় কুয়াকাটা পৌর এলাকার হোসেনপাড়া গ্রামের মোঃ সরোয়ার (৩৫), লতাচাপলী ইউনিয়নের নাউরীপাড়া গ্রামের নজরুল ইসলাম (৩৪) ও খুরমাতলা বাস্তহারা গ্রামের হোসেন ঘরামীর ছেলে মামুন (২৫) সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করছিল। এ সময় এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে ৩জনকে আটক করে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সাগর মোল্লার বাড়িতে নিয়ে যায়। সাগর মোল্লা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কথায় অসংগতি দেখে তারও সন্দেহ হয়। পরে মামুনকে তার বাবার হাতে তুলে দেন এবং অপর দুইজনকে মহিপুর থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন। এদিকে মামুন কাউন্সির সাগর মোল্লার অনুসারী বিধায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে এমন অভিযোগ করেছেন ওই এলাকার লোকজন। স্থানীয় বাসিন্দা মোসা. বকুল বেগম বলেন, মামুনের বিরুদ্ধে চুরি ও মাদক সেবনসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। তারপরও মামনুকে কেন ছেড়ে দেওয়া হলো।

 

কাউন্সিলর সাগর মোল্লা বলেন, রাতে স্থানীয়রা চোর সন্দেহে ওদেরকে ধরে আমার বাসায় নিয়ে আসেন। আমি প্রাথমিকভাবে মামুনকে নির্দোষ মনে হওয়ায় তার বাবার হাতে তুলে দিয়েছি। আর নজরুল ও সরোয়ারের কথায় মিল না থাকায় পুলিশে দিয়েছি। এ প্রসঙ্গে মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, স্থানীয়রা চোর সন্দেহে দুইজনকে আটক করে থানায় খবর দেয়। আমি পুলিশ পাঠিয়ে রাতেই থানায় নিয়ে আসি। সোমবার বিকালে আদালতে প্রেরণ করা হবে বলে তিনি জানান। উল্লেখ্য যে, গত পনের দিন ধরে কুয়াকাটা পৌরসভা, লতাচাপলী, মহিপুর, ডালবুগঞ্জ ও ধুলাসার ইউনিয়নে চোর-ডাকাত আতংক বিরাজ করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited