যৌন বিড়ম্বনায় আইপিএলের চিয়ার গার্লরা!

চার-ছক্কার হৈ হুল্লোড়ের মাঝে চেয়ারগার্লদের উন্মাতাল নৃত্য, এই তো আইপিএলের অন্যতম বৈশিষ্ট্য।  ব্যাটে বলে ঝড় তোলা যেমন আইপিএলের ক্রিকেটারদের পেশাগত কাজ, তেমনি নৃত্য-বিভঙ্গে দর্শকদের মাতিয়ে রাখাটাও চেয়ারলিডারদের পেশাগত দায়িত্ব।

 

আইপিএল নামক মোহময়ী ক্রিকেটের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর এই চিয়ার লিডাররাই। তাদেরকে পণ্য হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। বিনিময়ে টাকা যায় আয়োজকদের পকেটে। ইউরোপ, লাতিন আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র থেকে আইপিএলে মৌসুমী চাকরি করতে আসেন অনেক তন্বী-তরুণী। কিন্তু তাদের ভারতে অবস্থানের অভিজ্ঞতা কেমন তা শুনলে চমকে উঠতে হয়।

 

একাধিক ভারতীয় গণমাধ্যমে তারা খোলাখুলি জানিয়েছেন তাদের সেই অভিজ্ঞতা। তাদের পোশাক, অভিজ্ঞতা, অনুভবসহ সবকিছুর বিষয়েই কথা বলেছেন নাম না প্রকাশ করার শর্তে। নাম প্রকাশ করলে চাকরি তো যাবেই, আরও খারাপ কিছুও হতে পারে! সাক্ষাতকার দেওয়া সেই চিয়ার লিডারের বিস্ফোরক মন্তব্য, ‘পাশ্চাত্যে যখন কোনো নারী নৃত্যশিল্পী নাচেন, তখন তার পোশাক, শরীর নিয়ে কেউ ভাবেই না। কিন্তু এদেশে চিয়ারলিডারদের সেক্স অবজেক্ট হিসাবেই দেখা হয়।

 

অন্য এক চিয়ারলিডার বলেছেন, আমি একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবে টুর্নামেন্টে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। কিন্তু এখন দেখছি, এখানে যৌন পণ্য হিসেবেই আমাকে দেখা হয়। চিয়ার গার্লদের প্রায়ই দর্শকদের যৌন-ইঙ্গিতপূর্ণ আচরণ সইতে হয়। দর্শকদের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এক চিয়ারলিডার বলেন, ‘মাঠে অনেকেই এমন অঙ্গভঙ্গি করে, মন্তব্য করে যা সহজে মেনে নেওয়া যায় না। এড়িয়ে যেতে বাধ্য হই আমরা। ক্ষমাসুলভ দৃষ্টিতে দেখি।

 

আইপিএলে এসে মোহভঙ্গ হওয়ার পর উঠতি মডেলদেরও এই পেশা থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন সেই চিয়ারলিডার। বলেছেন, ‘যদি কেউ চিয়ারলিডার হতেই চায়, তাহলে অবশ্যই নাচের তালিম নিয়ে চিয়ারলিডার হওয়া উচিত। কারণ সেক্ষেত্রে এই পেশা হতাশ করলে, নৃত্যশিল্পী হিসেবে জীবনযাপন করা যেতে পারে। আইপিএলের বিরুদ্ধে নারীকে পণ্য করার অভিযোগ শুরু থেকেই। অনেকেই নারীর দেহকে এভাবে পণ্য হিসেবে উপস্থাপনের তীব্র বিরোধিতা করছেন। কিন্তু মুনাফা  যেখানে মুখ্য, সেখানে কারো কথাতেই কান দিচ্ছেন না আইপিএলের কর্তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» তীরে এসে তরী ডুবালো বাংলাদেশের মেয়েরা

» জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই

» দশমিনায় ভিজিএফের চাল বিতরন

» কলাপাড়ার ধানখালী ডিগ্রী কলেজ বাজারের রাস্তাটির বেহাল দশা”দেখার কেউ নাই !

» ফতুল্লায় চোরদের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাসিন্দারা

» গোপালগঞ্জে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গোপালগঞ্জে দিনব্যাপী ফ্রি-মেডিকেল ক্যাম্প

» গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে জমে উঠেছে কোরবানীর পশুরহাট

» ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ৮ মাস ধরে ব্যবসায়ী নিখোঁজ

» বাগেরহাটে-শরণখোলা আঞ্চলিক মহাসড়কে দূর্ঘটনা নিহত-১, আহত ৫

» বাগেরহাটে ৪০ মন জমজ ভাই সাড়ে ৬ লাখ টাকায় বিক্রি!

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন




ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

যৌন বিড়ম্বনায় আইপিএলের চিয়ার গার্লরা!

চার-ছক্কার হৈ হুল্লোড়ের মাঝে চেয়ারগার্লদের উন্মাতাল নৃত্য, এই তো আইপিএলের অন্যতম বৈশিষ্ট্য।  ব্যাটে বলে ঝড় তোলা যেমন আইপিএলের ক্রিকেটারদের পেশাগত কাজ, তেমনি নৃত্য-বিভঙ্গে দর্শকদের মাতিয়ে রাখাটাও চেয়ারলিডারদের পেশাগত দায়িত্ব।

 

আইপিএল নামক মোহময়ী ক্রিকেটের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর এই চিয়ার লিডাররাই। তাদেরকে পণ্য হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। বিনিময়ে টাকা যায় আয়োজকদের পকেটে। ইউরোপ, লাতিন আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র থেকে আইপিএলে মৌসুমী চাকরি করতে আসেন অনেক তন্বী-তরুণী। কিন্তু তাদের ভারতে অবস্থানের অভিজ্ঞতা কেমন তা শুনলে চমকে উঠতে হয়।

 

একাধিক ভারতীয় গণমাধ্যমে তারা খোলাখুলি জানিয়েছেন তাদের সেই অভিজ্ঞতা। তাদের পোশাক, অভিজ্ঞতা, অনুভবসহ সবকিছুর বিষয়েই কথা বলেছেন নাম না প্রকাশ করার শর্তে। নাম প্রকাশ করলে চাকরি তো যাবেই, আরও খারাপ কিছুও হতে পারে! সাক্ষাতকার দেওয়া সেই চিয়ার লিডারের বিস্ফোরক মন্তব্য, ‘পাশ্চাত্যে যখন কোনো নারী নৃত্যশিল্পী নাচেন, তখন তার পোশাক, শরীর নিয়ে কেউ ভাবেই না। কিন্তু এদেশে চিয়ারলিডারদের সেক্স অবজেক্ট হিসাবেই দেখা হয়।

 

অন্য এক চিয়ারলিডার বলেছেন, আমি একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবে টুর্নামেন্টে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। কিন্তু এখন দেখছি, এখানে যৌন পণ্য হিসেবেই আমাকে দেখা হয়। চিয়ার গার্লদের প্রায়ই দর্শকদের যৌন-ইঙ্গিতপূর্ণ আচরণ সইতে হয়। দর্শকদের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এক চিয়ারলিডার বলেন, ‘মাঠে অনেকেই এমন অঙ্গভঙ্গি করে, মন্তব্য করে যা সহজে মেনে নেওয়া যায় না। এড়িয়ে যেতে বাধ্য হই আমরা। ক্ষমাসুলভ দৃষ্টিতে দেখি।

 

আইপিএলে এসে মোহভঙ্গ হওয়ার পর উঠতি মডেলদেরও এই পেশা থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন সেই চিয়ারলিডার। বলেছেন, ‘যদি কেউ চিয়ারলিডার হতেই চায়, তাহলে অবশ্যই নাচের তালিম নিয়ে চিয়ারলিডার হওয়া উচিত। কারণ সেক্ষেত্রে এই পেশা হতাশ করলে, নৃত্যশিল্পী হিসেবে জীবনযাপন করা যেতে পারে। আইপিএলের বিরুদ্ধে নারীকে পণ্য করার অভিযোগ শুরু থেকেই। অনেকেই নারীর দেহকে এভাবে পণ্য হিসেবে উপস্থাপনের তীব্র বিরোধিতা করছেন। কিন্তু মুনাফা  যেখানে মুখ্য, সেখানে কারো কথাতেই কান দিচ্ছেন না আইপিএলের কর্তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited