বর্ষবরনে দিনভর নানা আয়োজনে: মুখরিত পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা ভিডিওসহ

উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি, ১৪এপ্রিল।। পুরাতন বছরের সুখ দুঃখ জড়ানো স্মৃতিকে পিছনে ফেলে নতুন বছরকে বরন করতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকত পর্যটকদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে।

 

সমুদ্রের ঢেউয়ের তরঙ্গের সাথে নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছে বিভিন্ন বয়সের হাজারো পর্যটক। প্রচন্ড তাপদাহ উপেক্ষা করে বাংলা ১৪২৫ সালের প্রথম সূর্য্যােদয় আবলোকন করতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সমুদ্রপ্রেমী মানুষ প্রিয়জনদের নিয়ে ছুটে এসেছেন মনলোভা এই সৈকতে। বাংলা বছরকে বরন করতে কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের উপস্থিতিতে দেখা দিয়েছে আবাসন সংকট। পর্যটনমুখী ব্যবসায়ীদের মুখে ফুটে উঠেছে হাসি ।

 

তবে সৈকতে রাতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা না থাকা ও খাবার হোটেল গুলোর অতিরিক্ত দাম নিয়ে পর্যটকদের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এদিকে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ট্যুরিষ্ট পুলিশ ও নৌ-পুলিশের টহল জোরদার করেছেন বলে প্রশাসনিক সুত্রে জানা গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকায় এ বছর আগত দর্শনার্থীরা কুয়াকাটার সৈকতসহ জিরো পয়েন্ট, ইকোপার্ক, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী, মিস্ত্রীপাড়া, রাখাইন মহিলা মার্কেট, গঙ্গামতি এলাকার বিভিন্ন আকর্ষনীয় স্থান গুলোতে এখন উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

 

কুয়াকাটার অভিজাত পাঁচ তারকা আবাসিক হোটল শিকদার রিসোর্টে জমকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে পালন করা হয় বাংলা বর্ষবরন উৎসব। এছাড়া পর্যটকদের আলাদা বিনোদন দিতে ৭২ ফুট দৈর্ঘ্য একটি ইলিশের ভাস্কর্য্যরে পেটে বসে বাঙ্গালী পরিবেশে মাটির ক্রোকারিজে খাবার পরিবেশন করা হয়েছে বলে জানান ইলিশ পার্ক কর্তৃপক্ষ। একাধিক আবাসিক হোটেল মালিক ও স্থানীয়দের সাথে আলাপ করলে তারা জানান, বাংলা নববর্ষকে বরন করতে এক সপ্তাহ আগেই হোটেল মোটেল গুলোর সিট বুকিং হয়ে গেছে।

 

ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক মাছুমবিল্লাহ জানান, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আমি স্ব-পরিবারে কুয়াকাটায় এসেছি। আগেভাগে রুম বুকিং না দেয়ায় ভালমানের রুম পাইনি। এখানে খাওয়ার জন্য ভাল মানের হোটেল থাকলেও খাদ্য দ্রব্যের দাম অনেক চড়া । এখানে এসে বাংলা বছরের প্রথম সূর্য্যােদয় ও সূর্যাস্থের দৃশ্য উপভোগ, কুয়াকাটার সৈকতসহ দর্শনীয় স্পট গুলো অসাধারন লোগেছে বলে জানান এই পরিবার। গ্রীন ট্যুরিজমের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, বর্ষবরন উপলক্ষ্যে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা পাথওয়ে সৈকতে বাউল সঙ্গীত ও ঘুড়ি উৎসবের অয়োজন করে। এই আয়োজনে অসংখ্য পর্যটকসহ স্থানীয়রা অংশগ্রহন করেন।

 

পাথওয়ের নির্বাহী পরিচালক মো.শাহীন বলেন, পর্যটন শিল্পকে বিকশতি করতে খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, কুয়াকাটাসহ ঢাকায় নববর্ষকে ঘিরে নানা উৎসবের আয়োজন করেছি। ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোনের ইনচার্জ এএসপি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকার কারনে এবছর পর্যটকদের ব্যাপক সমাগম ঘটেছে। বর্ষবরণ উৎসবকে ঘিরে পর্যটকদের নিরাপত্তায় প্রতিটি ট্যুরিস্ট পয়েন্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» সোনারগাঁয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠিত

» জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে একটি উন্নয়নশীল দেশে পরিনত হয়েছে:

» তালতলীতে ভূমিদস্যুদের দখলে খাস জমি, ভূমিহীনের মানববন্ধন

» আগৈলঝাড়ায় কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে সরকারী জায়গা দখল করে বালু ভরাট

» আগৈলঝাড়ায় সরকারী রাস্তার উপর পাকা ভবন নির্মাণ করলেও প্রশাসন ব্যবস্থা না নেয়ায় এলাকাবাসীর ক্ষোভ

» বরিশালের আগৈলঝাড়ায় দুই মাদকসেবী গ্রেফতার

» হরিণাকুন্ডুর ভবানীপুর বাজারে বন্ধ হচ্ছে না জুয়া ও অশ্লিলতা বেসামাল যুবসমাজ!

» আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ‘আয়নাবাজি’ খ্যাত অভিনেত্রী নাবিলার বিয়ে

» প্রধানমন্ত্রী দিয়েছেন তা এ মাসের মধ্যে প্রজ্ঞাপন না হলে ফের আন্দোলন

» ঝিনাইদহ রাঙ্গীয়ারপোতা গ্রামে পরকিয়ায় অবলা নারীর ঘর ভাংলো লম্পট তাহের

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

বর্ষবরনে দিনভর নানা আয়োজনে: মুখরিত পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা ভিডিওসহ

উত্তম কুমার হাওলাদার,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি, ১৪এপ্রিল।। পুরাতন বছরের সুখ দুঃখ জড়ানো স্মৃতিকে পিছনে ফেলে নতুন বছরকে বরন করতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকত পর্যটকদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে।

 

সমুদ্রের ঢেউয়ের তরঙ্গের সাথে নেচে গেয়ে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেছে বিভিন্ন বয়সের হাজারো পর্যটক। প্রচন্ড তাপদাহ উপেক্ষা করে বাংলা ১৪২৫ সালের প্রথম সূর্য্যােদয় আবলোকন করতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সমুদ্রপ্রেমী মানুষ প্রিয়জনদের নিয়ে ছুটে এসেছেন মনলোভা এই সৈকতে। বাংলা বছরকে বরন করতে কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের উপস্থিতিতে দেখা দিয়েছে আবাসন সংকট। পর্যটনমুখী ব্যবসায়ীদের মুখে ফুটে উঠেছে হাসি ।

 

তবে সৈকতে রাতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা না থাকা ও খাবার হোটেল গুলোর অতিরিক্ত দাম নিয়ে পর্যটকদের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এদিকে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ট্যুরিষ্ট পুলিশ ও নৌ-পুলিশের টহল জোরদার করেছেন বলে প্রশাসনিক সুত্রে জানা গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকায় এ বছর আগত দর্শনার্থীরা কুয়াকাটার সৈকতসহ জিরো পয়েন্ট, ইকোপার্ক, লেম্বুর চর, শুটকি পল্লী, মিস্ত্রীপাড়া, রাখাইন মহিলা মার্কেট, গঙ্গামতি এলাকার বিভিন্ন আকর্ষনীয় স্থান গুলোতে এখন উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।

 

কুয়াকাটার অভিজাত পাঁচ তারকা আবাসিক হোটল শিকদার রিসোর্টে জমকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে পালন করা হয় বাংলা বর্ষবরন উৎসব। এছাড়া পর্যটকদের আলাদা বিনোদন দিতে ৭২ ফুট দৈর্ঘ্য একটি ইলিশের ভাস্কর্য্যরে পেটে বসে বাঙ্গালী পরিবেশে মাটির ক্রোকারিজে খাবার পরিবেশন করা হয়েছে বলে জানান ইলিশ পার্ক কর্তৃপক্ষ। একাধিক আবাসিক হোটেল মালিক ও স্থানীয়দের সাথে আলাপ করলে তারা জানান, বাংলা নববর্ষকে বরন করতে এক সপ্তাহ আগেই হোটেল মোটেল গুলোর সিট বুকিং হয়ে গেছে।

 

ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা পর্যটক মাছুমবিল্লাহ জানান, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে আমি স্ব-পরিবারে কুয়াকাটায় এসেছি। আগেভাগে রুম বুকিং না দেয়ায় ভালমানের রুম পাইনি। এখানে খাওয়ার জন্য ভাল মানের হোটেল থাকলেও খাদ্য দ্রব্যের দাম অনেক চড়া । এখানে এসে বাংলা বছরের প্রথম সূর্য্যােদয় ও সূর্যাস্থের দৃশ্য উপভোগ, কুয়াকাটার সৈকতসহ দর্শনীয় স্পট গুলো অসাধারন লোগেছে বলে জানান এই পরিবার। গ্রীন ট্যুরিজমের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, বর্ষবরন উপলক্ষ্যে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা পাথওয়ে সৈকতে বাউল সঙ্গীত ও ঘুড়ি উৎসবের অয়োজন করে। এই আয়োজনে অসংখ্য পর্যটকসহ স্থানীয়রা অংশগ্রহন করেন।

 

পাথওয়ের নির্বাহী পরিচালক মো.শাহীন বলেন, পর্যটন শিল্পকে বিকশতি করতে খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, কুয়াকাটাসহ ঢাকায় নববর্ষকে ঘিরে নানা উৎসবের আয়োজন করেছি। ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোনের ইনচার্জ এএসপি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, সড়ক যোগাযোগ ভাল থাকার কারনে এবছর পর্যটকদের ব্যাপক সমাগম ঘটেছে। বর্ষবরণ উৎসবকে ঘিরে পর্যটকদের নিরাপত্তায় প্রতিটি ট্যুরিস্ট পয়েন্টে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited