বেকারত্ব দূরীকণে সম্ভাবনাময় দশমিনায় পোল্ট্রি খামার ধ্বংসের পথে

সঞ্জয় ব্যনার্জী, দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: বয়লারের বাচ্চা ও খাবারের মূল্য বৃদ্ধি, বিদ্যুতের লোডশেডিংসহ বিবিধ কারণে উপকূলীয় পটুয়াখালীর দশমিনায় উজ্জল সম্ভাবনাময় পোল্ট্রি খামার ধ্বংসের পথে।

 

অপরদিকে পরিশ্রম নির্ভর পোল্ট্রি খামার গড়তে ব্যাংক ঋণের সুব্যবস্থা ও সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা না পাওয়ায় সম্ভাবনা থাকছে অধরা। ফলে কর্মহীন থাকছে বেকার যুবকরা। সরেজমিনে কথা হয় উপজেলার নিজাবাদ গ্রামের পোল্ট্রি খামারি মোঃ শাহআলম খানের সাথে, তিনি জানায়, আফতাব কোম্পানির ৩’শ ব্রয়লার রয়েছে খামারে। বাচ্চা থেকে বিক্রি উপযুক্ত প্রায় দেড় কিলোগ্রাম মাংস আনতে খরচ হয় প্রায় ১৬৫ টাকা। প্রতি কিলোগ্রাম ব্রয়লারের প্রাথমিক বাজার মূল্য আসে ১২০ টাকা। পূর্ব অভিজ্ঞতার কথা স্মরণ করে বলেন প্রতি’শ বাচ্চার মধ্যে বিভিন্ন ধাপে ৭-১০টি মারা যায়। মৃত্যু ব্রয়লার খামারিদের জন্য লোকসান বয়ে আনে। তিনি আরও জানায়, শীতের তীব্রতা থেকে ব্রয়লারের বাচ্চা রক্ষার্থে হিটার এয়ার হিটার ব্যবহার ছাড়াও বাল্ব জ্বালিয়ে তাপ ধরে রাখতে হয় লিটারে। বিদ্যুতের ঘনঘন লোডশেডিং মৃত্যু হার বাড়ায়।

 

গরমেও ঠিক একই সমস্যা, প্রচন্ড তাপে ফ্যান চালিয়ে রাখা দরকার হয় ওই সময়। উপজেলা সদরের রাব্বী পোল্ট্রি খামারের মালিক মোঃ নাসির সিকদার জানায়, তার ফার্মে ভিআইপি, নারিশ, কাজী, এসএসক্লাবসি, হারবাল, প্যারাগসহ বেশ কয়েকটি কোম্পানির ব্রয়লার বাচ্চা পালন করেছেন। এসব কোম্পানির মধ্যে এসএসক্লাবসি ও কাজী কোম্পানীর বচ্চা ছাড়া অন্যসব গুলোয় গুনগতমানে অন্যূনত লক্ষনীয়। অন্যূনত বাচ্চা দিয়ে খামার করায় খামারি মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন প্যাদা প্রায় ১০ বছরের ব্যবসা লোকসানের মূখে গুটিয়ে নিয়েছে। গছানী বাজারের ব্যবসাই আলমগীর রাড়ী জানান, কোম্পানীর বদনাম করছিনা, হয়ত সরবরাহকারী কর্তৃক উন্নত বাচ্চার সাথে মিশ্রণ দেয়া হতে পারে। লোকসানের জন্য পুজিঁ হারিয়ে ও ব্যাংক লোনের তদবিরে বর্থ্যতায় ব্যবসায় নামতে পারছি না। আফতাব কোম্পানির দশমিনা উপজেলার ডিলার মোঃ ফিরোজ বলেন, প্রতি বছরে বাচ্চার মূল্য বৃদ্ধির সাথে তাল রেখে ফিডের মূল্য বাড়ছে। লোকসানের মূখে ২৫টি খামারের মধ্যে ১০টি বন্ধ হয়ে যায়।

 

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা.মো. হাফিজুর রহমান বলেন, দশমিনার আবহাওয়া পোল্ট্রি খামারের জন্য উৎকৃষ্ট। সস্তায় শ্রম পাওয়া ও বিস্তর চরাঞ্চলসহ খালি জায়গা পোল্ট্রি শিল্প গড়াতে সম্ভাবনার হাতছানি রয়েছে। ভ্যাকসিনসহ বিভিন্ন পরামর্শ ছাড়াও স্বল্পকালীন প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে খামারিদের। এ ধরণের ব্যবসায় বেকারত্ব হ্রাস হবে বলে আশা করছি। এ বিষয় উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শুনিল কুমার রায় জানন, যুবকদের বেকারত্ব দূরীকরণে পোল্টি খামার যুতসই ব্যবসা। এক একটি খামার গড়ে ৫ জন বেকার যুবকের কর্মসংস্থান করতে সক্ষম। যুব উন্নয়ন দপ্তরে নিয়মিত প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা রয়েছে।

 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আমিনুল ইসলাম জানান,  ব্রয়লারের মাংসে চর্বি কম ও শতকরা ৬০ভাগ আমিষ থাকায় প্রসূতি মা ও বাড়ন্ত শিশুসহ হৃদ রোগীদের উত্তম খাদ্য। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, দশমিনায় কর্মক্ষম প্রায় ১৫ হাজার বেকার যুবক রয়েছে। ছোট-বড় ৩ হাজার ফার্ম সৃষ্টি বেকারত্ব দূরীকরণে সক্ষম। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম ফরিদ উদ্দিন জানান, সারা দেশের বেকারত্ব দূরীকরণে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে। পোল্ট্রি খামারিদের পূঁজি সংকট মোকাবেলায় ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা থাকলে ভাল হতো। তবে বাড়তি গ্রাহকের চাহিদা বিদ্যুৎ সংকট মোকাবেলায় অন্তরায়।

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে : চিফ হুইপ আসম ফিরোজ

» তারেকের স্ত্রী, কন্যার ব্রিটিশ নাগরিকত্বের আবেদনের খবর

» ঝিনাইদহে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল

» কালীগঞ্জের ফুলের মাঠে নতুন অতিথি ইউরোপের জারবেরা

» আগৈলঝাড়ায় ইয়াবাসহ দুই ব্যবসায়ী গ্রেফতার

» ঝিনাইদহে সাপের ভয় দেখিয়ে চাঁদা দাবী ,আতংকে নিরুপায় পথচারিরা !

» আগৈলঝাড়ায় ডেনমার্ক সরকারের অর্থ সহায়তায় বহুল প্রতিক্ষিত সড়ক নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

» আগৈলঝাড়ায় মন্দিরের মূর্ত্তি ভাংচুর করেছে অজ্ঞাতনামা দুবৃর্ত্তরা

» শ্রীমঙ্গলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বাদশার ৩ সন্তানের কান্না থামছে না

» ফতুল্লায় ১২শ‘২০পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতা গ্রেফতার

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন




ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: kuakataonline@gmail.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

বেকারত্ব দূরীকণে সম্ভাবনাময় দশমিনায় পোল্ট্রি খামার ধ্বংসের পথে

সঞ্জয় ব্যনার্জী, দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: বয়লারের বাচ্চা ও খাবারের মূল্য বৃদ্ধি, বিদ্যুতের লোডশেডিংসহ বিবিধ কারণে উপকূলীয় পটুয়াখালীর দশমিনায় উজ্জল সম্ভাবনাময় পোল্ট্রি খামার ধ্বংসের পথে।

 

অপরদিকে পরিশ্রম নির্ভর পোল্ট্রি খামার গড়তে ব্যাংক ঋণের সুব্যবস্থা ও সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা না পাওয়ায় সম্ভাবনা থাকছে অধরা। ফলে কর্মহীন থাকছে বেকার যুবকরা। সরেজমিনে কথা হয় উপজেলার নিজাবাদ গ্রামের পোল্ট্রি খামারি মোঃ শাহআলম খানের সাথে, তিনি জানায়, আফতাব কোম্পানির ৩’শ ব্রয়লার রয়েছে খামারে। বাচ্চা থেকে বিক্রি উপযুক্ত প্রায় দেড় কিলোগ্রাম মাংস আনতে খরচ হয় প্রায় ১৬৫ টাকা। প্রতি কিলোগ্রাম ব্রয়লারের প্রাথমিক বাজার মূল্য আসে ১২০ টাকা। পূর্ব অভিজ্ঞতার কথা স্মরণ করে বলেন প্রতি’শ বাচ্চার মধ্যে বিভিন্ন ধাপে ৭-১০টি মারা যায়। মৃত্যু ব্রয়লার খামারিদের জন্য লোকসান বয়ে আনে। তিনি আরও জানায়, শীতের তীব্রতা থেকে ব্রয়লারের বাচ্চা রক্ষার্থে হিটার এয়ার হিটার ব্যবহার ছাড়াও বাল্ব জ্বালিয়ে তাপ ধরে রাখতে হয় লিটারে। বিদ্যুতের ঘনঘন লোডশেডিং মৃত্যু হার বাড়ায়।

 

গরমেও ঠিক একই সমস্যা, প্রচন্ড তাপে ফ্যান চালিয়ে রাখা দরকার হয় ওই সময়। উপজেলা সদরের রাব্বী পোল্ট্রি খামারের মালিক মোঃ নাসির সিকদার জানায়, তার ফার্মে ভিআইপি, নারিশ, কাজী, এসএসক্লাবসি, হারবাল, প্যারাগসহ বেশ কয়েকটি কোম্পানির ব্রয়লার বাচ্চা পালন করেছেন। এসব কোম্পানির মধ্যে এসএসক্লাবসি ও কাজী কোম্পানীর বচ্চা ছাড়া অন্যসব গুলোয় গুনগতমানে অন্যূনত লক্ষনীয়। অন্যূনত বাচ্চা দিয়ে খামার করায় খামারি মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন প্যাদা প্রায় ১০ বছরের ব্যবসা লোকসানের মূখে গুটিয়ে নিয়েছে। গছানী বাজারের ব্যবসাই আলমগীর রাড়ী জানান, কোম্পানীর বদনাম করছিনা, হয়ত সরবরাহকারী কর্তৃক উন্নত বাচ্চার সাথে মিশ্রণ দেয়া হতে পারে। লোকসানের জন্য পুজিঁ হারিয়ে ও ব্যাংক লোনের তদবিরে বর্থ্যতায় ব্যবসায় নামতে পারছি না। আফতাব কোম্পানির দশমিনা উপজেলার ডিলার মোঃ ফিরোজ বলেন, প্রতি বছরে বাচ্চার মূল্য বৃদ্ধির সাথে তাল রেখে ফিডের মূল্য বাড়ছে। লোকসানের মূখে ২৫টি খামারের মধ্যে ১০টি বন্ধ হয়ে যায়।

 

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা.মো. হাফিজুর রহমান বলেন, দশমিনার আবহাওয়া পোল্ট্রি খামারের জন্য উৎকৃষ্ট। সস্তায় শ্রম পাওয়া ও বিস্তর চরাঞ্চলসহ খালি জায়গা পোল্ট্রি শিল্প গড়াতে সম্ভাবনার হাতছানি রয়েছে। ভ্যাকসিনসহ বিভিন্ন পরামর্শ ছাড়াও স্বল্পকালীন প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে খামারিদের। এ ধরণের ব্যবসায় বেকারত্ব হ্রাস হবে বলে আশা করছি। এ বিষয় উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শুনিল কুমার রায় জানন, যুবকদের বেকারত্ব দূরীকরণে পোল্টি খামার যুতসই ব্যবসা। এক একটি খামার গড়ে ৫ জন বেকার যুবকের কর্মসংস্থান করতে সক্ষম। যুব উন্নয়ন দপ্তরে নিয়মিত প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা রয়েছে।

 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আমিনুল ইসলাম জানান,  ব্রয়লারের মাংসে চর্বি কম ও শতকরা ৬০ভাগ আমিষ থাকায় প্রসূতি মা ও বাড়ন্ত শিশুসহ হৃদ রোগীদের উত্তম খাদ্য। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, দশমিনায় কর্মক্ষম প্রায় ১৫ হাজার বেকার যুবক রয়েছে। ছোট-বড় ৩ হাজার ফার্ম সৃষ্টি বেকারত্ব দূরীকরণে সক্ষম। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম ফরিদ উদ্দিন জানান, সারা দেশের বেকারত্ব দূরীকরণে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে। পোল্ট্রি খামারিদের পূঁজি সংকট মোকাবেলায় ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা থাকলে ভাল হতো। তবে বাড়তি গ্রাহকের চাহিদা বিদ্যুৎ সংকট মোকাবেলায় অন্তরায়।

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: kuakataonline@gmail.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited