ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল: র‌্যাবের কমান্ডার মুফতি মাহমুদ

মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম, ঢাকা:  নাখালপাড়ায় সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে যারা নিহত হয়েছেন, তারা ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ কোনো স্থানে হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে জানিয়েছে অভিযান পরিচালনাকারী বাহিনী র‌্যাব।

 

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জানান, এই তথ্য পেয়ে গোয়েন্দা অনুসন্ধান চালিয়েই আস্তানাটি খুঁজে পেয়েছেন তারা। বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে এই অভিযান শুরু করে র‌্যাব। আর আজ শুক্রবার (১২ জানুয়ারি ২০১৮)দুপুরের পর গণমাধ্যম কর্মীদের বিস্তারিত জানান বাহিনীটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান ।

 

বাহিনীটির গণমাধ্যম শাখার প্রধান মুফতি মাহমুদ খান জানান, আস্তানাটিতে যারা ছিলেন তারা সবাই জেএমবির সদস্য বলে তাদের কাছে প্রাথমিক তথ্য ছিল। তবে তাদের নেতৃত্বে কারা, কী বা তাদের নাম-ঠিকানা, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য নেই। তবে জাহিদ পরিচয় দিয়ে এই বাড়িটি ভাড়া নেয়া হয়েছিল। নিজেকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানেক চাকুরে পরিচয় দেয়া জাহিদ তার কথিত দুই ভাইকে নিয়ে ভাড়া করা বাসায় উঠেছিল। এ সময় দুটি জাতীয় পরিচয়পত্র দেয় তারা। তবে তাতে ছবি একজনেরই ছিল। আর নাম, বাবার নাম, ঠিকানা ছিল ভিন্ন। দুটি পরিচয়পত্রই বানানো হয়েছে। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ জানান, রাতে বাড়িটির লোহার গ্রিল ভেঙে ঢুকেন তারা। আর এখানকার বাসিন্দাদের শুরুতে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে দোতলায় রাখা হয়।

 

এরপর  পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলায় যান তারা। এই ভবনের এই দুটি তলায় তিনটি ফ্ল্যাটে মেস বানিয়ে বসবাস করতেন ২১ জন। আর তাদেরকে তত্ত্বাবধান করতেন রুবেল নামে একজন। পঞ্চম তলায় সন্দেহভাজন কক্ষের দরজায় নক করলেই সেখানে গ্রেডেন ও গুলি ছোড়া হয় বলে জানান সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব কর্মকর্তা। এতে আহত হয় দুই জন। এ সময় পাল্টা গুলিতে নিহত হন তিন জন। পরে কক্ষটি থেকে দুইটি পিস্তল, তিনটি আইইডি, তিনটি আত্মঘাতি বেল্ট ও বিপুল বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব কমান্ডার জানান, তাদের অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে জঙ্গিরা গ্যাসের চুলা জ্বালিয়ে গ্রেনেড ও আইইডি রেখে দিয়েছিল যেন গোটা বাড়িটিই উড়ে যায়। বাড়িতে ঢোকার পরই গন্ধ পেয়ে গ্যাসের লাইন কেটে দেন তারা। কোথায় এবং কখন হামলার পরিকল্পনা করেছিল জঙ্গিরা-এমন প্রশ্নে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডারবলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা বিস্তারিত কোনো তথ্যই পাইনি। আর যারা নিহত হয়েছেন তাদের নাম পরিচয় সম্পর্কেও তেমন কিছু জানতে পারিনি। তাদের ব্যাপারে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানাতে পারব।

 

যে তিন জন এখানে নিহত হয়েছে তাদের বিষয়ে যে তথ্য আমাদের কাছে ছিল তারা সবাই জেএমবির সদস্য। তাদের পরিকল্পনা ছিল… ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল। সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ওপর নাশকতার পরিকল্পনা আছে। বিধ্বংসী কোনো একটি কার্যক্রমের জন্য তারা এখানে জড়ো হয়েছিল। এখানে যারা নিহত হয়েছে, তাদের নেতা তারা-এমন প্রশ্নে র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন,  এই মুহূর্তে বলা সম্ভবপর হচ্ছে না নেতা কারা। যে ডকুমেন্ট আছে, বাকিগুলো তদন্ত করেই বের হয়ে আসবে এর আগে যারা গ্রেপ্তার হয়েছিল অথবা নিহত হয়েছিল তাদের সঙ্গে কোনো কানেকশন আছে, অথবা এদের সাথে আর কারা কারা জড়িত আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ আপডেট



» অবশেষে ১৩০ ফুট টাওয়ারের উপর থেকে ৭ ঘণ্টা পর নেমে এলো জাকির পাগল!

» রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে দেশনেত্রী আজ কারাগারে-রোজেল

» কমলগঞ্জে আর্থিক অনুদান বিতরণ

» ফতুল্লায় পরকিয়া প্রেমের টানে স্ত্রীকে ফেলে প্রেমিকাকে নিয়ে চম্পট

» দশমিনা থেকে বিলুপ্তির পথে দেশি প্রজাতির মাছ

» দশমিনায় গত তিনদিনের বৈশাখী ঝড়ে ইরি ধান ও রবিশস্য হুমকিতে

» দশমিনা-গলাচিপায় নৌকার প্রার্থী হতে চাইছেন এ্যাড. ইকবাল মাহামুদ লিটন

» ফতুল্লায় ২৪২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেপ্তার -৫

» বন্দরে মাদকাসক্ত পুত্রের অত্যাচারে গৃহহীন অসহায় বৃদ্ধ পিতা

» বাগেরহাটে সরকারী খালের উপর ভেড়ীবাধ নির্মাণ করে অবৈধ মৎস্য ঘের স্থাপন, বর্ষা মৌসুমে বন্যার আশাংখা

লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com
Desing & Developed BY PopularITLtd.Com
,

ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল: র‌্যাবের কমান্ডার মুফতি মাহমুদ

মোঃ মাসুদ হাসান মোল্লা রিদম, ঢাকা:  নাখালপাড়ায় সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে যারা নিহত হয়েছেন, তারা ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ কোনো স্থানে হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে জানিয়েছে অভিযান পরিচালনাকারী বাহিনী র‌্যাব।

 

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জানান, এই তথ্য পেয়ে গোয়েন্দা অনুসন্ধান চালিয়েই আস্তানাটি খুঁজে পেয়েছেন তারা। বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে এই অভিযান শুরু করে র‌্যাব। আর আজ শুক্রবার (১২ জানুয়ারি ২০১৮)দুপুরের পর গণমাধ্যম কর্মীদের বিস্তারিত জানান বাহিনীটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান ।

 

বাহিনীটির গণমাধ্যম শাখার প্রধান মুফতি মাহমুদ খান জানান, আস্তানাটিতে যারা ছিলেন তারা সবাই জেএমবির সদস্য বলে তাদের কাছে প্রাথমিক তথ্য ছিল। তবে তাদের নেতৃত্বে কারা, কী বা তাদের নাম-ঠিকানা, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য নেই। তবে জাহিদ পরিচয় দিয়ে এই বাড়িটি ভাড়া নেয়া হয়েছিল। নিজেকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানেক চাকুরে পরিচয় দেয়া জাহিদ তার কথিত দুই ভাইকে নিয়ে ভাড়া করা বাসায় উঠেছিল। এ সময় দুটি জাতীয় পরিচয়পত্র দেয় তারা। তবে তাতে ছবি একজনেরই ছিল। আর নাম, বাবার নাম, ঠিকানা ছিল ভিন্ন। দুটি পরিচয়পত্রই বানানো হয়েছে। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ জানান, রাতে বাড়িটির লোহার গ্রিল ভেঙে ঢুকেন তারা। আর এখানকার বাসিন্দাদের শুরুতে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে দোতলায় রাখা হয়।

 

এরপর  পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলায় যান তারা। এই ভবনের এই দুটি তলায় তিনটি ফ্ল্যাটে মেস বানিয়ে বসবাস করতেন ২১ জন। আর তাদেরকে তত্ত্বাবধান করতেন রুবেল নামে একজন। পঞ্চম তলায় সন্দেহভাজন কক্ষের দরজায় নক করলেই সেখানে গ্রেডেন ও গুলি ছোড়া হয় বলে জানান সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব কর্মকর্তা। এতে আহত হয় দুই জন। এ সময় পাল্টা গুলিতে নিহত হন তিন জন। পরে কক্ষটি থেকে দুইটি পিস্তল, তিনটি আইইডি, তিনটি আত্মঘাতি বেল্ট ও বিপুল বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব কমান্ডার জানান, তাদের অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে জঙ্গিরা গ্যাসের চুলা জ্বালিয়ে গ্রেনেড ও আইইডি রেখে দিয়েছিল যেন গোটা বাড়িটিই উড়ে যায়। বাড়িতে ঢোকার পরই গন্ধ পেয়ে গ্যাসের লাইন কেটে দেন তারা। কোথায় এবং কখন হামলার পরিকল্পনা করেছিল জঙ্গিরা-এমন প্রশ্নে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডারবলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা বিস্তারিত কোনো তথ্যই পাইনি। আর যারা নিহত হয়েছেন তাদের নাম পরিচয় সম্পর্কেও তেমন কিছু জানতে পারিনি। তাদের ব্যাপারে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানাতে পারব।

 

যে তিন জন এখানে নিহত হয়েছে তাদের বিষয়ে যে তথ্য আমাদের কাছে ছিল তারা সবাই জেএমবির সদস্য। তাদের পরিকল্পনা ছিল… ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নাশকতার পরিকল্পনা ছিল। সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ওপর নাশকতার পরিকল্পনা আছে। বিধ্বংসী কোনো একটি কার্যক্রমের জন্য তারা এখানে জড়ো হয়েছিল। এখানে যারা নিহত হয়েছে, তাদের নেতা তারা-এমন প্রশ্নে র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন,  এই মুহূর্তে বলা সম্ভবপর হচ্ছে না নেতা কারা। যে ডকুমেন্ট আছে, বাকিগুলো তদন্ত করেই বের হয়ে আসবে এর আগে যারা গ্রেপ্তার হয়েছিল অথবা নিহত হয়েছিল তাদের সঙ্গে কোনো কানেকশন আছে, অথবা এদের সাথে আর কারা কারা জড়িত আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : মো: আবুল কালাম আজাদ, খোকন
প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক : কামাল হোসেন খান
সম্পাদক : এডভোকেট মো: ফেরদৌস খান
বার্তা সম্পাদক : মো: সো‌হেল অাহ‌ম্মেদ
মফস্বল বিভাগ প্রধান: উত্তম কুমার হাওলাদার
Email: info@kuakatanews.com
যোগাযোগ: বাড়ী- ৫০৬/এ, রোড- ৩৫,
মহাখালী, ডি ও এইচ এস, ঢাকা- ১২০৬,
ফোন: +৮৮ ০১৭৩১ ৬০০ ১৯৯, ৯৮৯১৮২৫,
বার্তা এবং বিজ্ঞাপন : + ৮৮ ০১৬৭৪ ৬৩২ ৫০৯।
বিজ্ঞাপন এবং নিউজ : + ৮৮ ০১৭১৬ ৮৯২ ৯৭০।
News: editor.kuakatanews@gmail.com

© Copyright BY KuakataNews.Com

Design & Developed BY PopularITLimited